বড় খবর

রাফাল রায়: ক্ষমা না চেয়ে ফের তদন্তের দাবি রাহুল গান্ধীর

রাহুল গান্ধীর দেশবাসীর সামনে ক্ষমা চাওয়া উচিত বলে সরব পদ্ম শিবির।

কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী।
রাফাল রিভিউ মামলা খারিজ করেছে সুপ্রিম কোর্ট। কিন্তু, দমার পাত্র নন রাহুল গান্ধী। ফের একবার রাফাল চুক্তির তদন্তের দাবি করলেন কংগ্রেস নেতা। টুইটে  জানালেন, ‘এদিনের রায়ে বিচারপতি জোসেফের তোলা ইস্যুগুলি রাফাল তদন্তের দরজা খুলে দিয়েছে। যৌথ সংসদীয় কমিটির মাধ্যমে ফের একবার স্বাধীনভাবে এই চুক্তির তদন্ত হওয়া প্রয়োজন।’ কংগ্রেস মুখপাত্র রনদীপ সিং সূর্যেওয়ালা সুর চড়িয়ে জানিয়েছে, ‘রায়ের কপি বিশ্লেষণ না করেই রাফাল রায় নিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করছে বিজেপি।’

অন্যদিকে, বিজেপি দাবি করে রাফাল নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে আঙুল তোলার জন্য ক্ষমা চাওয়া উচিত কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীর। সুপ্রিম কোর্টের রাফাল রায়ের পর এই দাবিতেই সোচ্চার হয় বিজেপি। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ থেকে নির্মলা সীতারমন, রাজনাথ সিং, রাম মাধব কটাক্ষ করতে ছাড়ছেন না কংগ্রেসের যুবরাজকে।

আরও পড়ুন: রাহুল গান্ধী সতর্ক হোন, আদালত অবমাননার মামলা খারিজ করে মন্তব্য সুপ্রিম কোর্টের

শীর্ষ আদালতের রায়দানের পরই সাংবাদিক সম্মেলন করে কংগ্রেসকে একহাত নেয় বিজেপি। মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ বলেন, ”আজ আপনাকে ক্ষমা চাইতে হবে রাহুল গান্ধী। আজ রিভিউ পিটিশনও খারিজ হয়ে গিয়েছে। নিজেকে বাঁচানোর জন্য আপনি আদালতে ক্ষমা চেয়েছিলেন। কিন্তু, আপনি কি দেশের জনগণের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন?” বিজেপি নেতার অভিযোগ, ”রাহুল শুধু প্রধানমন্ত্রীকে চোর বলেই থেমে থাকেননি, তিনি লোকসভা নির্বাচনের প্রচার করতে গিয়ে প্রাক্তন ফরাসি প্রধানমন্ত্রীর বিবৃতি নিয়েও মিথ্যে কথা বলেছেন।”

ফরাসি সংস্থার থেকে যে ৩৬টি রাফাল যুদ্ধ বিমান কেনার বরাত নিয়ে অর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছিল, তা নিয়ে ফের সিবিআই তদন্তের কোনও প্রয়োজন নেই বলে আজ জানিয়ে দেয় প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ, বিচারপতি সঞ্জয় কিষেণ এবং বিচারপতি এমকে জোসেফের তিন সদস্যের বেঞ্চ। পাশাপাশি এদিন রাহুল গান্ধীকে আদালত অবমাননার মামলা থেকে রেহাই দিলেও কড়া হুঁশিয়ারি দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। বলা হয়েছে, ভবিষ্যতে মন্তব্যের ক্ষেত্রে ‘সতর্ক’ থাকতে হবে রাহুল গান্ধীকে। আদালতে জানায়, ‘দেশের রাজনৈতিক পরিষরে রাহুল গান্ধী গুরুত্বপূর্ণ অবস্থানে রয়েছেন। রাজনীতির মধ্যে বৈধ বা অবৈধভাবে কোনও আদালতকেই টেনে আনা উচিত নয়।’

আরও পড়ুন: রাফাল মামলার পুনর্বিবেচনার আর্জি খারিজ সুপ্রিম কোর্টে

কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন রাহুল দান্ধীকে নিশানা করে টুইটে লেখেন, ‘রাফাল চুক্তিতে যে কোনও দুর্নীতি নেই তা এদিনের রায় থেকে স্পষ্ট। আদালত অবমাননা মামলাতেও কড়া শুনতে হয়েছে তাঁকে। নিয়ম করে মিথ্যা প্রচার করে জনমানসে বিভ্রান্তি ছড়ানো হয়েছে দিনের পর দিন। লোকসভাকেতেও মিথ্যা বলা হয়েছে। ওঁর (রাহুল গান্ধী) ক্ষমা চাওয়া উচিত প্রকাশ্যে।’

কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেন, ‘রাহুলের অভিযোগ, রাফাল চুক্তিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সরকারের ভাবমূর্তিকে কলুষিত করার চেষ্টা ছাড়া আর কিছুই নয়। এদিন কোর্টের রায়ে সব স্পষ্ট হল। কংগ্রেসের উচিত জনগণকে বিভ্রান্ত করার জন্য ক্ষমা চাওয়া।’

লোকসভা নির্বাচনের প্রচারে বিজেপির বিরুদ্ধে রাফাল দুর্নীতির অভিযোগ তুলে সরব ছিল কংগ্রেসে। এদিনের রায়ের পর সেই বিতর্কের অবসান  হবে বলে মনে করা হয়েছিল। কিন্তু, রাহুল গান্ধীর দাবি ফের খুঁচিয়ে তুললো পুরনো বিতর্ককে।

Read the full story in English

Web Title: Rafale verdict supreme court rahul gandhi congress bjp

Next Story
দিল্লির সরকার মানুষের কথা শোনে এবং সেইমতো সিদ্ধান্ত নেয়ঃ প্রধানমন্ত্রী মোদিpm modi, narendra modi
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com