বড় খবর

চান্নির সঙ্গে বৈঠকে গলল বরফ, মান ভাঙল সিধুর

সব কিছু ঠিকঠাক চললে আবারও প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি পদে পিরতে পারেন তারকা এই রাজনীতিবিদ।

Sidhu, Channi meet, break deadlock on key postings
সিধুর মানভঞ্জনে সক্ষম চান্নি

অবশেষে গলল বরফ। পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৃহস্পতিবার বৈঠকে বসেছিলেন নভজ্যোৎ সিং সিধু। ঘণ্টা তিনেক ধরে চলা ওই বৈঠকে সিধুর মানভঞ্জনে সক্ষম হয়েছেন চান্নি। এমনই খবর সূত্রের। সব কিছু ঠিকঠাক চললে ফের পঞ্জাব প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি পদে ফিরতে পারেন সিধু।

উল্লেখ্য, চান্নি মন্ত্রিসভায় কয়েকজনের অন্তর্ভুক্তি নিয়ে ঘোরতর আপত্তি ছিল সিধুর। এমনকী পঞ্জাবের পুলিশ প্রধান ও অ্যাডভোকেট জেনারেলকে নিয়েও সিধুর চরম ক্ষোভ ছিল। তাঁর মতামতকে গুরুত্ব না দিয়েই চান্নি নিজের কায়দায় পঞ্জাব সরকার চালাতে চাইছিলেন বলে ঘনিষ্ঠ মহলে ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি। শেষমেশ গত মঙ্গলবার পঞ্জাব প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতির পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে দেন প্রাক্তন এই ভারতীয় ক্রিকেটার। সিধুর আচমকা ইস্তফায় পঞ্জাবে ভোটের ঠিক পাঁচ মাস আগে বিপাকে পড়ে কংগ্রেস। এমনকী সুযোগ বুঝে কংগ্রেসকে বিঁধে ময়দানে নেমে পড়ে বিরোধীরাও।

সিধুর এই পদক্ষেপে অস্বস্তি বাড়তে থাকে কংগ্রেস হাইকমান্ডেরও। তবে পাঞ্জাব কংগ্রেসের প্রধান পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর দু’দিন পরেই ফের ছবিটা বদলায়। মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চান্নি নিজেই সিধুর মানভঞ্জনে উদ্যোগী হন। আলোচনা করেই সব সমস্যা মিটিয়ে নেওয়ার বার্তা দেন চান্নি। মুখ্যমন্ত্রীর ডাকে সাড়া দেন সিধুও। নির্ধারিত সময়েই বৈঠক করতে চান্নির বাড়িতে পৌঁছে যান তিনি।

একটি সূত্র মারফত ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে জানিয়েছে, তিন ঘণ্টা ধরে বৈঠক করেন চান্নি ও সিধু। উভয়পক্ষই পঞ্জাবের অ্যাডভোকেট জেনারেল নিয়োগের সিদ্ধান্ত কংগ্রেস হাইকমান্ডের উপর ছেড়ে দিতে রাজি হন। ওই বৈঠকের কয়েক ঘণ্টা পরেই চান্নি সরকার ডিজিপি পদের জন্য নামের একটি প্যানেল কংগ্রেস হাইকমান্ডকে পাঠিয়ে দেয়। ডিজিপি হিসেবে আইপি সিং সাহোটার নিয়োগের বিরোধিতা করেছিলেন সিধু।

আরও পড়ুন- আবারও প্রবল বৃষ্টির সতর্কতা, ঘূর্ণাবর্তের বৃষ্টিতে ভাসবে একাধিক জেলা

সাম্প্রতিক জটিলতা কাটাতে উভয় পক্ষই সম্মিলিত সিদ্ধান্ত নেওয়ার ব্যাপারে উদ্যোগী হয়েছে। সেই কারণেই মুখ্যমন্ত্রী চান্নি, পিপিসিসি প্রধান এবং এআইসিসি সাধারণ সম্পাদক হরিশ রাওয়াতকে নিয়ে তিন সদস্যের একটি প্যানেল তৈরিতে সম্মত হয়েছে। পরবর্তী সময়েও যাতে আর কোনও বিরোধ তৈরি না হয় সেব্যাপারেই তৎপর সব পক্ষ। সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, সম্ভবত এবার ক্ষোভ কমেছে সিধুর। সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে ফের প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির পদেও ফিরতে পারেন তিনি।

Read full story in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Politics news here. You can also read all the Politics news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Sidhu channi meet break deadlock on key postings

Next Story
দু’ঘণ্টায় মাত্র ৫.২৪% ভোট-বৃদ্ধি, ভবানীপুর নিয়ে কমিশনকে খোঁচা বিজেপি নেতারCuriously five hours after polling closed, EC haven’t updated the number, tweets Bjp leader Amit Malviya
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com