বড় খবর

‘বাংলায় শুধু দুর্নীতি আর তোষণের রাজনীতি’, সরব হর্ষ বর্ধন

‘সে রাজ্যে পরিবর্তন অবশ্যম্ভাবী।’

বাংলায় রাজনৈতিক পালাবদল অবশ্যম্ভাবী। এই দাবি শনিবার করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন। পরোক্ষে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘বাংলার মানুষ ভাইপোর অত্যাচারে অতিষ্ঠ। বাংলায় শুধু দুর্নীতি আর তোষণের রাজনীতি।’ সংবাদমাধ্যমের সামনে হর্ষ বর্ধনের দাবি, ‘গত একবছর ধরে আমি অভ্যন্তরীণ রিপোর্ট পাচ্ছি। তাতে স্পষ্ট সে রাজ্যে পরিবর্তন অবশ্যম্ভাবী। তোষণ, দুর্নীতি, স্বজনপোষণ আর ভাইপোর অত্যাচারে বাংলার মানুষ অতিষ্ঠ।’

এদিকে, হলদিয়ার জনসভায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করেন প্রধানমন্ত্রী। “বিকাশের রাজনীতি বাংলায় হয়নি। কংগ্রেস, বাম ভ্রষ্টাচার অত্যাচারে শীর্ষে ছিল। বিকাশ কিছুই হয়নি। ২০১১ সালে মমতা দিদি বাংলায় পরিবর্তনের আশ্বাস দিয়েছিল। দেশের সবাই ওকে ভরসা করেছিল। বাংলাও সেই আশ্বাসে বিশ্বাস করেছিল। বদলে নির্মমতা মিলেছে।” এভাবেই কটাক্ষ করেন তিনি।

সুর চড়িয়ে তাঁর মন্তব্য, ‘পরিবর্তন নয়, মমতা সরকার বাম সরকারের পুনর্জীবন এনেছেন। হিংসা, অপরাধী, ভ্রষ্টাচারের পুনর্জীবন এসেছে। তাই এত গরীবি বাড়ছে। কৃষকরা সুবিধা পাচ্ছেন না। সাধারণ মানুষের যা অধিকার তা এখানের সরকার ভোগ করছে। চাকরি তাহলে কীভাবে পাবে যুবকরা? দিদিকে যদি এসব নিয়ে জিজ্ঞেস করা হয় তাহলে উনি চেঁচামেচি করে যান।’

‘ভারত মাতা কি জয়’ বললে উনি রেগে যান, আর দেশের বিষয়ে কিছু বললে ওঁর তখন আর কিছু বলেন না। ভারতকে বদনাম করার সব রকম চেষ্টা করে যাওয়া হচ্ছে। এত কিছু হচ্ছে দেশ জুড়ে। কিন্তু এই বিষয়ে দিদির মুখ থেকে এটা কোনও কথা শুনেছেন?’ এই প্রশ্ন তোলেন প্রধানমন্ত্রী।

Web Title: Change is inevitable in bengal says harsha vardhan national

Next Story
‘বিবেকানন্দ ঠাকুর’, ফের নাড্ডার মন্তব্যে বিতর্ক, সোচ্চার তৃণমূল
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com