বড় খবর

পরিবহণমন্ত্রীর কর্মসূচি নিয়ে বিস্ফোরক তৃণমূল বিধায়ক, পাত্তা দিতে নারাজ শুভেন্দু

জেলা তৃণমূলের একাংশ মন্ত্রীর কার্যকলাপে ক্ষুব্ধ। এরপরই শুভেন্দুর দলে থাকা না থাকা নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন পূর্ব মেদিনীপুরের তৃণমূলের এর প্রভাবশালী বিধায়ক।

শুভেন্দু অধিকারী
শুভেন্দু অধিকারী
লকডাউনের শুরু থেকে রাজ্যের পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী দলের পতাকা ছাড়াই নানা কর্মসূচি রূপায়ণ করছেন। শুধু দলীয় কর্মসূচি নয়, সরকারি অনুষ্ঠানেও হাজির না থাকার ঘটনা ঘটেছে। শুভেন্দু নিজেই দাবি করেছেন, ‘কাজ করতে গেলে কারও ছাড়পত্র লাগে না, কোনও পদ লাগে না’। তিনি ভারত সেবাশ্রম সংঘের তত্বাবধানে লক্ষ লক্ষ মানুষের খাবারের সংস্থান করেছেন লকডাউনে। এছাড়া সামর্থ্য অনুযায়ী মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন বলে জানিয়েছেন শুভেন্দু। কিন্তু জেলা তৃণমূলের একাংশ তাঁর কার্যকলাপে ক্ষুব্ধ। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলাকে শুভেন্দু অধিকারীর কর্মসূচি নিয়ে রামনগরের তৃণমূল বিধায়ক অখিল গিরি বিষ্ফোরক দাবি করেছেন। শুভেন্দুর দলে থাকা না থাকা নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন অখিল গিরি। তবে পূর্ব মেদিনীপুরে জেলা তৃণমূল কংগ্রেসে অখিল গিরি বরাবর অধিকারী পরিবারের বিরোধী বলেই পরিচিত।

প্রশ্ন: অরাজনৈতিক কর্মসূচি করছেন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী।

অখিল গিরি: ‘মন্ত্রীত্ব রয়েছে, রাজ্য কমিটির বিভিন্ন শীর্ষ কমিটিতে আছেন। এছাড়া দলের কোর কমিটিতে আছেন। তাঁর কর্মসূচিতে দলের পতাকা নেই। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কোনও ছবি নেই। শুধু ওনার ছবি রযেছে। এর ফলে দলের কর্মীদের মধ্যে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। ঠিক করছে। দলের ক্ষতি করার জন্য শপথ নিয়েছে বলে মনে হয়। তিন চার মাস ধরে এমন কর্মসূচি করে চলেছে।’

প্রশ্ন: কী মনে করছেন দল ছেড়ে দেবে নাকি?

অখিল গিরি: ‘ছেড়ে দেওয়ার মতই তো। এখন যা অবস্থা করছে তাতে ওঁর দলে থাকার মত আর জায়গা নেই বোধ হয়।’

প্রশ্ন: দল তো তাহলে ভেঙে যাবে?

অখিল গিরি: ‘তৃণমূলকে ভাঙতে পারবে না। কিন্তু অনেক পয়সা আছে। কর্মীদের একাংশ বিভ্রান্তিতে পড়েছে। অপপ্রচার করে গন্ডগোল করবে। বিজেপি যেমন করে। বিজেপি যেমন লোকসভায় কিছু লোককে ভাঙিয়েছে।’

প্রশ্ন: শীর্ষ নেতৃত্বকে জানিয়েছেন?

অখিল গিরি: ‘এটা রাজ্য জানে তো। বার্তা আমাদের কাছ থেকেও যাচ্ছে। সব কিছুই জানে কিন্তু অ্যাকশনটা কম হচ্ছে। রাজ্যব্যাপী অ্যাকশনটা কম হয়। জেলা বা স্থানীয় স্তরে দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে পারে। রাজ্য সিদ্ধান্ত নেবে তো একটু চিন্তা ভাবনা করে।’

প্রশ্ন: বিজেপি যাবে বা নিজে দল করবে এমন কোনও ধারণা আপনার রয়েছে?

অখিল গিরি: ‘বাজারে এমন কথাবার্তা শুনতে পাচ্ছি। তা নাহলে তাঁর বিরুদ্ধে চার্জশিট দিচ্ছে না কেন।’

প্রশ্ন: দুই মেদিনীপুর বা ঝাড়গ্রামে কতটা দলের ক্ষতি হতে পারে শুভেন্দু না থাকলে?

অখিল গিরি: ‘আমার মনে হয় দল সার্ভে করে দেখেছে খুব বেশি ক্ষতি হবে না। তা যদি হত তাহলে অনেক আগেই ডেকে নিয়ে তাঁর সঙ্গে আলোচনায় বসত। সার্ভে করার পর থেকে দেখেছে সেই ইমেজ তাঁর নেই।’

প্রশ্ন: দলের শীর্ষ নেতৃত্ব শুভেন্দুকে ডেকে নিয়ে আলোচনা করছে না কেন?

‘পর্যবেক্ষক নেই। তবে সারা রাজ্যে সব জেলায় কাজ করতে বলছে। কাজ করুক। দাদার অনুগামী নিয়ে কাজ করছে। হুগলিতে বা হাওড়ায় এভাবে কে কাজ করবে। পূর্ব মেদিনীপুর নিজের জেলা সেখানে কিছু লোকজন আছে। এখানে জেলাপরিষদ, পৌরসভা, পঞ্চায়েতে নিজেরা রাজ্য থেকে সব টিকিট নিয়েছে। বিলি করেছে। সেখানে কিছু লোক দাদার অনুগামী বলে রয়েছে।’

অখিল গিরির অভিযোগ নিয়ে যোগাযোগ করা হয়েছিল পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে। তিনি এ বিষয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া দিতে চাননি। অখিল গিরির মতো নেতাকে পাত্তা দেন না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন শুভেন্দু।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Politics news here. You can also read all the Politics news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Suvendu adhikary akhil giri tmc east midnapore

Next Story
মিটমাট হয়ে গেল মমতা-পবনেরসিকিমের মুখ্যমন্ত্রী পবন চামলিংয়ের সঙ্গে বৈঠক করলেন এরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com