বড় খবর


‘এখন থেকেই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর লেটার হেড ছাপিয়ে রাখুন’, মমতাকে নিশানা শুভেন্দুর

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম নিয়েই তাঁকে ‘তোলাবাজ ভাইপো’ বলে তোপ দাগেন এই বিজেপি নেতা।

খেজুরির হেড়িয়াতে মমতার নন্দীগ্রামের সমাবেশের পাল্টা সভা করলেন শুভেন্দু অধিকারী। কড়া আক্রম শানালেন তৃণমূল নেত্রীকে। রীতিমত চ্যালেঞ্জ ছুড়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর লেটার হেড ছাপিয়ে রাখার পরামর্শ দেন শুভেন্দু। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম নিয়েই তাঁকে ‘তোলাবাজ ভাইপো’ বলে তোপ দাগেন।

পাঁচ বছর আগে নন্দীগ্রামে দাঁড়িয়ে শুভেন্দুকে সেখানকার প্রার্থী ঘোষণা করেছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই নন্দীগ্রামে এবার নিজেই প্রার্থী হিসেবে দাঁড়াচ্ছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। মমতার এই ঘোষণার পরই বঙ্গ রাজনীতিতে নানা সমীকরণ নিয়ে চর্চা শুরু হয়েছে। দুপুরে তৃণমূল সুপ্রিমোর প্রার্থী ঘোষণার পরই অবশ্য সোমবার সন্ধ্যায় দক্ষিণ কলকাতায় দাঁড়িয়েই মমতাকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। হাফ লক্ষ ভোটে নন্দীগ্রামে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে হারাবেন বলে ঘোষণা করেন শুভেন্দু। জানিয়ে দেন লড়াই এবার সামনা-সামনি। সোমবারের মুখ্যমন্ত্রীর তোলা সব অভিযোগের জবাব মঙ্গলবার দেবেন বলে কার্যত হুঁশিয়ারি দেন বিজেপি নেতা। আজ আরও চড়া সুরে বিঁধেছেন প্রাক্তন দলের নেত্রীকে।

কী বলেছেন শুভেন্দু?

* ‘গতকাল মাননীয়ার সভাকে আমি হায়দ্রাবাদরে সভা বলে মনে করি। তিনি কোথায় সভা করছেন তা জানেন না। পাঁচ বছর পর পর নন্দীগ্রাম আসেন। ভোট এলেই মনে পড়ে যায়। তাই সব গুলিয়ে যাচ্ছে। শহিদ ভরত মণ্ডলকে বলছেন ভারত মণ্ডল। আমাকে পাতা দেখে শহিদের নাম বলতে হয় না।’

* ‘কী বলতে এসেছিলেন? কত মিথ্যা বলবেন? অষ্টম শ্রেণির পাঠ্যপুস্তকে নন্দীগ্রামের একটা লাইন নেই। নন্দীগ্রামকে আপনি সম্মান করেন না। অভিযুক্ত পুলিশ অফিসারকে জামিনে ছাড়িয়েছেন।’

* ‘দেখে মনে হচ্ছে মাননীয়া রাজনৈতিক হতাশগ্রস্ত।’

* ‘কোম্পানিতে মঞ্চ থেকে প্রার্থী ঠিক হয়। তৃণমূলে মাননীয়া ও তাঁর ভাইপো যা বলিবেন তাহাই হইবে। বিজেপিতে হয় না। ‘

* ‘দু’জায়গায় দাঁড়ালে চলবে না। দু’জায়গায় আমরা আপনবাকে দাঁড়াতে দেব না। আপনাকে নন্দীগ্রামেই দাঁড়াতে হবে।’

* ‘এখন থেকেই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর লেটার হেড ছাপিয়ে রাখুন।’

খেজুরির সভা শুভেন্দু অধিকারী, বাবুল সুপ্রিয়ো, লকেট চট্টোপাধ্যায়।

* ‘আপনি কার ভরসায় নন্দীগ্রামে দাঁড়াবেন? হিসাব তো সব আমার জানা। গ্রামগুলোকে আমি চিনি। ৬২ হাজারের ভরসায়? পদ্ম তো জিতবে ২ লাখ ১৩-র ভরসায়। ২ লাখ ১৩ কারা- জয়শ্রীরাম বলে যারা। ৬২ হাজারেও সিঁধ কাটব। আমরা লড়তে জানি। নন্দীগ্রামে আমরাই জিতব। মমতা ব্যানার্জী হারবে হারবে হারবে।’

* ‘অনবরত মিথ্যা কথা বলছেন মাননীয়া। উনি সেদিন নন্দীগ্রামে ঢুকতে পারেননি। নিরাপদ স্থানে গিয়ে বসেছিলেন। তাই বিজেপির সরকার আসবে। মিথ্যা শ্রী পুরস্কার দেব, আর সেটা প্রথম পাবে মমতা ব্যানার্জী। আরেকটা তোলা শ্রী পুরস্কার হবে। সেটা পাবে ওঁর ভাইপো। তোলাবাজ অভিষেক ব্যানার্জী। তোলাবাজ ভাইপো হটাও। গরু চোর, কয়লা চোর, বালি চোর ভাইপো হটাও।’

* ‘আজ সভায় আসার পথে পাঁচ জায়গায় দলের ছেলেরা মার খেয়েছে। ছাড়র কোনও জায়গা নেই। রবিবার পর্যন্ত পুলিশ প্রশাসনকে সময় দিচ্ছি। না হলে তমলুকে জেলা পুলিশ সুপারের অফিসের সামনে বলে থাকব।’

চ্যালেঞ্জ, পাল্টা চ্যালেঞ্জ। সব মিলিয়ে জমি আন্দোলনের মাটিতে এবার ভোটে লড়াই হাড্ডাহাড্ডি।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Web Title: Suvendu ahikari bjp meeting khehuri nandigram updates

Next Story
“কেউটের থেকেও বিষাক্ত বিজেপি”, পুরুলিয়ায় কড়া আক্রমণ মমতার
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com