scorecardresearch

বড় খবর

‘তোমার ছেলে সাংসদ হতে পারে, আমার ছেলে কী দোষ করল?’ শিণ্ডেকে তোপ দাগলেন উদ্ধব

বিদ্রোহীদের পচা ফুল-ফলের সঙ্গে তুলনা করলেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী।

12 Sena MPs write to Lok Sabha Speaker for naming leader and chief whip
উদ্বেগ বাড়ছে উদ্ধব ঠাকরের।

গদি টলমল দেখেই বিদ্রোহী একনাথ শিণ্ডেকে তীব্র আক্রমণ করেছেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে। শুক্রবার দলীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে বৈঠকে শিণ্ডেকে একহাত নিয়েছেন ঠাকরে। বলেছেন, বিদ্রোহী মন্ত্রীর ছেলে শিবসেনার সাংসদ। তাহলে তাঁর ছেলে আদিত্য কেন রাজনৈতিক ভাবে বেড়ে উঠবে না! এদিনও একনাথ বা উদ্ধব কেউ-ই নিজের অবস্থান থেকে সরেননি। মহারাষ্ট্রে মহাসঙ্কট আরও অবনতির দিকে যাচ্ছে।

উদ্ধব এদিন দলীয় বৈঠকে বলেছেন, শিণ্ডেকে গুরুত্বপূর্ণ দফতরের মন্ত্রী করা হয়েছিল। পুর ও নগরোন্নয়ন দফতর মুখ্যমন্ত্রীর হাতে ছিল আগে। কিন্তু শিণ্ডেই ধোঁকা দিলেন উদ্ধবকে। এই ভাবে প্রতিদান দিলেন। ভার্চুয়াল বৈঠকে উদ্ধব দলের নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে বলেন, বিধায়কদের বিদ্রোহ নিয়ে তিনি চিন্তিত নন, কারণ তাঁদের গাছের পচা ফুল-ফলের মতো মনে করেন উদ্ধব।

ঠাকরে এদিন বৈঠকে বলেছেন, “গাছের ফুল-ফল আপনারা নিতে পারেন (বিজেপি) কিন্তু গাছের শিকড় অনেকে গভীরে রয়েছে আর শক্তও বটে। সেই শিকড় উপড়ে ফেলা যাবে না। প্রত্যেক মরশুমে নতুন পাতা, ফল হয়। পাতা শুকিয়ে ঝড়ে যায়। সেগুলি সরিয়ে ফেলা হয় বা ফেলে দেওয়া হয়। বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়ে এটাই মূল বিষয়।”

আরও পড়ুন চরম বিড়ম্বনা! মোদী ফেরার পরদিনই ধসে গেল ৬ কোটির পিচ রাস্তা, তদন্তের নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রীর

ঠাকরের এদিন দাবি, বেশ কয়েকদিন আগে শিণ্ডে নাকি তাঁকে বলেন, সেনা বিধায়করা প্রাক্তন জোটসঙ্গী বিজেপির সঙ্গে যেতে চায়। “কী ধরনের শিবসৈনিক তুমি! তোমার মনে হয় না, বিজেপি নিজের স্বার্থসিদ্ধির জন্য ব্যবহার করে তোমাকে ফেলে দেবে। মাতশ্রীর বিরুদ্ধে কী অভিযোগ এনেছিল মনে নেই?” শিণ্ডেকে তোপ দেগেছেন তিনি।

“যে দফতর আগে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে থাকত, সেই নগরোন্নয়ন এখন তোমার হাতে। তোমার ছেলে সাংসদ হতে পারে তাহলে আমার ছেলে কী দোষ করল। ও কি রাজনীতি করতে পারবে না?” এদিন কটাক্ষ করেছেন উদ্ধব।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Politics news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Thackeray takes on shinde your son is mp should my son also not grow politically