scorecardresearch

বড় খবর

তৃণমূল প্রধানে অনাস্থা, সরাতে তোড়জোড় দলেরই সদস্যদের

তৃণমূল পরিচালিত এই পঞ্চায়েতের প্রধানের বিরুদ্ধে আগামী ৯ সেপ্টেম্বর অনাস্থা আনার সিদ্ধান্ত সিংহভাগ সদস্যের।

Tmc members willing to show no confidence motion against rathbari panchayet pradhan

ঘোর অস্বস্তি মালদহের কালিয়াচক ২ নম্বর ব্লক তৃণমূলে। রথবাড়ি পঞ্চায়েতের তৃণমূলে প্রধানে আস্থা নেই দলেরই বেশ কয়েকজন সদস্যের। প্রধানের অপসারণ চাইছেন পঞ্চায়েতের ওই সদস্যরা। আগামী ৯ সেপ্টেম্বর প্রধানের বিরুদ্ধে অনাস্থা এনে তাঁকে সরানোর ভাবনা ওই তৃণমূল সদস্যদের। তবে রথবাড়ি পঞ্চায়েতে দলের এই সদস্যদের আচরণে চটেছেন মালদহ জেলা তৃণমূলের সভাপতি রহিম বক্সি। ওই সদস্যদের বিরুদ্ধে দলীয়ভাবে ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।

১৯ আসনের রথবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েত। কালিয়াচক ২ নম্বর ব্লকের এই পঞ্চায়েতে বর্তমানে তৃণমূলের সদস্য সংখ্যা ‌১২, বিজেপি ‌৫ ও নির্দল ‌২। তবে গত পঞ্চায়েত ভোটের ফলাফলের নিরিখে সংখ্যার বিন্যাসটা ছিল কংগ্রেস ‌৯, তৃণমূল ‌৩, বিজেপি ‌৫ ও নির্দল ‌২। কংগ্রেস ও তৃণমূল জোট করে পঞ্চায়েত বোর্ড গড়েছিল। প্রধান হয়েছিলেন সাহানারা খাতুন। তবে পরবর্তী সময়ে কংগ্রেসের ৯ সদস্যই তৃণমূলে যোগ দেন। এই ৯ জনই অনাস্থা এনেছেন পঞ্চায়েত প্রধান সাহানারা খাতুনের বিরুদ্ধে। অনাস্থা প্রস্তাবে সায় রয়েছে আরও ২ নির্দল সদস্যেরও।

আরও পড়ুন- দুয়ারে রেশন বাতিলের দাবি ডিলারদের, খাদ্য নিয়ামকের অফিসে ধর্না-বিক্ষোভ

দলের জেলা নেতৃত্বকে না জানিয়ে কোনও পদক্ষেপ নয়, আগেই এব্যাপারে প্রতিটি স্তরের নেতৃত্বকে সতর্ক করেছে তৃণমূল। যদিও এক্ষেত্রে জোড়াফুল-নেতৃত্বের সেই নির্দেশকে কার্যত বুড়ো আঙুল দেখাচ্ছেন দলেরই একাংশের নেতারা। রথবাড়ি পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধে অনাস্থা আনা হয়েছে শুনে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন মালদহ জেলা তৃণমূল সভাপতি রহিম বক্সি। তাঁর কথায়, ‘‌দলকে না জানিয়ে কোথাও অনাস্থা আনা যাবে না।‌ রথবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের অনাস্থা আনার বিষয়টি শুনেছি। ব্লক নেতৃত্বের কাছে রিপোর্ট চাওয়া হয়েছে। রিপোর্ট পেলে কড়া পদক্ষেপ করব।’‌

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Politics news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Tmc members willing to show no confidence motion against rathbari panchayet pradhan