বড় খবর

মমতার নজরে গোয়া, শত্রুর শত্রুকে আপন করে বিজেপির বিরুদ্ধে খেলতে মরিয়া তৃণমূল

এবার গোয়ায় বিজেপি বিরোধী শক্তিকে একজোট করার লক্ষ্যে জোড়া-ফুল শিবির।

TMC reaches out to GFP chief as BJP ex-ally weighs options in Goa
গোয়া দখলে ঘুঁটি সাজাচ্ছে তৃণমূল।

আগামী বৃহস্পতিবার গোয়া যাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পৌঁছে গিয়েছেন সৌগত রায় ও বাবুল সুপ্রিয়, আছেন ডেরেক ও’ব্রায়েন। আগামী বছরের গোড়াতেই গোয়াতে বিধানসভা ভোট। আরব সাগরের তীরে ছোট্ট রাজ্যে পদ্ম বধে মরিয়া তৃণমূল। তলে তলে চলছে ঘুঁটি সাজানোর প্রক্রিয়া। সে রাজ্যের রাজনৈতিক জমি ইতিমধ্যেই খতিয়ে দেখেছেন ভোট কূশলী প্রশান্ত কিশোর। তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী, সমর্থন জানিয়েছেন নির্দল বিধায়ক, এসেছেন বিভিন্ন দলের বহু নেতা-কর্মীরাও। এবার গোয়ায় বিজেপি বিরোধী শক্তিকে একজোট করার লক্ষ্যে জোড়া-ফুল শিবির।

গোয়াতে ‘খেলা হবে’র ডাক দিয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। দেশের পশ্চিমের রাজ্যে খাতা খুলতে চেষ্টার কসুর করছে না ডেরেক ও’ব্রায়েন, প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়রা। তবে, সে রাজ্যে দীর্ঘ্যমেয়াদী খেলার পক্ষে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাই একা নয়, বিরোধী শক্তিকে একজোটে করে বিধানসভা নির্বাচন লড়াইয়ের তোড়জোড় করছে তৃণমূল। জোর গুঞ্জন, প্রাক ভোটে জোটের জন্য তৃণমূলের নজরে সে রাজ্যে বিজেপি সরকারের প্রাক্তন সঙ্গী গোয়া ফরওয়ার্ড পার্টি। দলের প্রধান বিজয় সারদেশাইয়ের সঙ্গে কথা বলতেও আগ্রহ প্রকাশ করেছে ঘাস-ফুলের শীর্ষ নেতৃত্ব।

ইতিমধ্যেই গোয়া ফরওয়ার্ড পার্টির প্রধান বিজয় সারদেশাইয়ের সঙ্গে ভোট কূশলী প্রশান্ত কিশোরের কথা হয়েছে। সূত্রের খবর জোট নয়, সারদেশাইয়ের বিজেপি বিরোধী সত্ত্বাকেই কাজে লাগাতে চাইছে বাংলার শাসক দল। তাই সারদেশাইকে তৃণমূলে যোগ দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন প্রশান্ত কিশোর, এমনকী মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থীও তাঁকেই করা হবে বলে আশ্বাস দেওয়া হয়। এমনকী তৃণমূলের সঙ্গে গোয়া ফরওয়ার্ড পার্টিকে মিশিয়ে দেওয়ার কথাও বলা হয়েছে।

এখন প্রশ্ন, বিজয় সারদেশাই কী তৃণমূলের প্রস্তাব মেনে নেবেন? গোয়ার রাজনীতিতে এখন নয়া রাজনৈতিক সমীকরণের অপেক্ষা। তবে, সারদেশাই এ নিয়ে এখনও মুখ খোলেননি। চলতি সপ্তাহে মমতা গোয়ায় যাবেন। তখনই এ সব নিয়ে সারদেশাই-মমতা আলোচনা হতেপারে বলে মনে করা হচ্ছে। অবশ্য, এই ধরণের বৈঠকের এখনও কোনও সম্ভাবনা নেই বলে দাবি করেছে সারদেশাই ঘনিষ্ঠরা।

তবে, বিজয় সারদেশাইকে প্রশান্ত কিশোরের প্রস্তাব ঘিরে ইতিমধ্যেই অসন্তোষ দানা বেঁধেছে গোয়া ফরওয়ার্ড পার্টির অন্দরে। বাংলার শাসক দলের সঙ্গে গোয়া ফরওয়ার্ড পার্টির মিশিয়ে দেওয়ার প্রস্তাবটি তৃণমূলের আগ্রাসী মনোভাবের প্রকাশ হিসাবেই দেখছেন সে দলের নেতা, কর্মীরা।

২০১৬ সালে গোয়া ফরওয়ার্ড পার্টির জন্ম। ২০১৭-র বিধানসভা নির্বাচনে চারটি আসনে প্রার্থী দিয়ে তিনটি জয়লাভ করেছিল এই দল৷ কংগ্রেসের পাশাপাশি বিজেপি-রও জোটসঙ্গী হয়েছে গোয়ার এই রাজনৈতিক দলটি৷ গতবার বিধানসভা ভোটের পর প্রথমে কংগ্রেসের সঙ্গে জোটের কথা বললেও শেষ পর্যন্ত বিজেপিকেই সমর্থন জানায় তারা। গোয়া ফরওয়ার্ড পার্টির সমর্থনেই গোয়ায় সরকার গঠন করেছিল বিজেপি৷ কিন্তু, মাঝে বিজেপির বিরুদ্ধে একনায়কতন্ত্রের অভিযোগ তুলে জোট থেকে বেরিয়ে আসে এই দলটি। সমর্থন প্রত্যাহার করে সরকারের থেকে।

উল্লেখ্য, গোয়ায়া বিধানসভা ভোটের আগেই বিরোধী জোট গঠনে আগ্রহী গোয়া ফরওয়ার্জডড পার্টির প্রধান বিজয় সারদেশাইও। এই লক্ষ্যে গত জুলাইতে কংগ্রেসের সঙ্গে তাঁর কথা হয়। জানানো হয়, নীতির ভিত্তিতে কংগ্রেস ও ফরওয়ার্ড পার্টি জোট হবে। তবে, বাস্তবে এখনও তার কোনও প্রতিফলন চোখে পড়েনি। তবে, চলতি মাসের শুরুতেই হঠাৎ করে সারদেশাই কংগ্রেসের প্রতি অসন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, ‘প্রধান বিরোধী দল জোট গঠনে আগ্রহী না হলে আমরাই বিরোধী ঐক্য গঠনের প্রয়াস চালাবো।’

এই সময়ই সারদেশাইয়ের মুখে তৃণমূলের সঙ্গে জোটের কথা শোনা যায়। বলেছিলেন যে, ‘রাজনীতিতে মহিলাদের বেশি অংশগ্রহণ রাজ্য তথা দেশকে এগিয়ে দিতে পারে। কলকাতায় এমনটাই দেখা যাচ্ছে। কিন্তু, এ জন্য আমাদের স্ট্রিট ফাইটার প্রয়োজন।’

Read in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Politics news here. You can also read all the Politics news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Tmc reaches out to gfp chief as bjp ex ally weighs options in goa

Next Story
ফেডারেল ফ্রন্ট নিয়ে মমতার উদ্যোগের প্রশংসায় ডিএমকে-র স্ট্যালিনmk stalin
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com