কেন রাম মন্দির, যুব সমাজকে বোঝাতে এরাজ্যে আদাজল খেয়ে নামবে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ

রাম মন্দিরের দাবিতে এরাজ্যে হিন্দু সম্মেলন করবে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ। সম্মেলনে বিশ্ব শান্তি যজ্ঞ, পুজো হবে। একইসঙ্গে রাজ্যের যুব সম্প্রদায়কে বোঝানোর চেষ্টা হবে, কেন রাম মন্দির চাই।

By: Kolkata  Published: November 26, 2018, 4:44:24 PM

রামজন্মভূমিতে কেন রাম মন্দির হওয়া দরকার, এরাজ্যের যুব সমাজকে তা বোঝাবে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ। একই সঙ্গে রাজ্যের প্রায় ২০টি জায়গায় ডিসেম্বর মাসে ‘হিন্দু সম্মেলন’ করে রামমন্দির নির্মাণের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি করতে চলেছে এই হিন্দুত্ববাদী সংগঠন। তারা চাইছে, অর্ডিন্য়ান্স জারি করে রাম মন্দির তৈরি করা হোক। এই সম্মেলন সফল করতে রাজ্য জুড়ে প্রচার শুরু করেছে পরিষদ। তবে ২০১৯ লোকসভা মাথায় রেখেই এই জনজাগরণ কর্মসূচি, তা মানতে চাইছেন না বিশ্ব হিন্দু পরিষদের নেতৃত্ব।

অযোধ্যায় রাম মন্দিরের দাবিতে দক্ষিণ ও উত্তরবঙ্গ মিলিয়ে প্রায় ২০ টি জায়গায় হিন্দু সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এইসব সম্মেলন থেকে রাম মন্দির নির্মাণের দাবি তোলা হবে। একইসঙ্গে বেশ কিছু সম্মলনে বিশ্ব শান্তি যজ্ঞ হবে। সম্মেলন সফল করতে আদাজল খেয়ে নেমে পড়েছে পরিষদ। বাড়ি বাড়ি প্রচার, দেওয়াল লিখন, ফেস্টুন, সোশ্যাল মিডিয়া ইত্যাদি বিভিন্ন মাধ্যমে প্রচার চলছে। জানা গিয়েছে, দক্ষিণবঙ্গে বারাসাত, পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, বসিরহাট সহ ১১ টি জায়গায় এই বিশ্ব শান্তি যজ্ঞ ও সম্মেলন হবে। উত্তরবঙ্গে ইশ্বরপুর, বুনিয়াদপুর, চাঁচল, মাথাভাঙা সহ ৮ টি জায়গায় ওই সম্মেলন করবে পরিষদ। কলকাতার শহিদ মিনারে ১৫ ডিসেম্বর সম্মেলন করার কথা রয়েছে।

আরও পড়ুন: মুসলিমরা অবাঞ্ছিত হলে হিন্দুত্বেরও বিলুপ্তি: মোহন ভাগবত

বিশ্ব হিন্দু পরিষদের মিডিয়া কো-অর্ডিনেটর সৌরিশ মুখোপাধ্যায় বলেন, “সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি করে অর্ডিন্যান্স এনে রাম মন্দির করতে হবে। রাম মন্দির বানাতে আইন আনুক। আমরা ভেবেছিলাম বিচার প্রক্রিয়ার দ্বারাই রাম মন্দির হয়ে যাবে। তা এখনও না হওয়ায় এই পথ নিতে হচ্ছে।” সম্মেলনে কী ধরনের কর্মসূচি রয়েছে পরিষদের? সৌরিশবাবু বলেন, “১৯৯২-এর আন্দোলনের ২৫ বছর হয়ে গিয়েছে। তখন যাঁরা যুবক ছিলেন, তাঁরা এখন বয়জ্যেষ্ঠ। নতুন প্রজন্ম জানেই না রাম মন্দির নিয়ে আন্দোলনটা কী। আমরা সেটা যুব সম্প্রদায়কে জানাব। আমাদের নেতৃত্ব ও কার্যকর্তারা যুবকদের বোঝাবেন, কেন রাম জন্মভূমিতে রাম মন্দির হওয়া দরকার। এই সব বিষয় নিয়েই আমরা হিন্দু সম্মেলন করব। গ্রামে গ্রামে সভা হবে। রাম মন্দিরের লক্ষ্যে পুজো, বিশ্ব শান্তি যজ্ঞ হবে।”

পরিষদ জানিয়েছে, এই হিন্দু সম্মেলনের নেতৃত্বে থাকবেন সাধু-সন্তরা। বিশ্ব শান্তি যজ্ঞ হবে বেশ কিছু জায়গায়। অনেক ক্ষেত্রে খোলা ময়দানেও এই সম্মেলন হবে। পরিষদের উদ্দেশ্য, যতটা সম্ভব মানুষকে এই হিন্দু সম্মেলনে নিয়ে আসা। পরিষদের সর্বভারতীয় নেতৃত্ব কয়েকটি সন্মেলনে হাজিরও হতে পারেন। ২০১৯ ভোটের লক্ষ্যে কি এই হিন্দু সম্মেলন? সৌরিশবাবুর বক্তব্য, “আমাদের সঙ্গে রাজনীতির কোনও যোগ নেই। আমরা স্রেফ রাম মন্দির চাই।”

Get all the Latest Bengali News and West Bengal News at Indian Express Bangla. You can also catch all the Politics News in Bangla by following us on Twitter and Facebook

Web Title:

Vhp hindu sammelan in 20 places west bengal

The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com.
Advertisement

ট্রেন্ডিং