বড় খবর

IPL-এ টাকা কামানোর জন্য ভারতীয়দের বুট চাটছে ইংরেজরা! ঝাঁঝালো আক্রমণ এবার কিংবদন্তির

কীভাবে ইংল্যান্ডে ভারতীয়দের সঙ্গে বৈষম্যমূলক আচরণ করা হয়, সেই অভিজ্ঞতাও শেয়ার করেছেন ইঞ্জিনিয়ার কমেডিয়ান সাইরাস ব্রোচার সঙ্গে এক পডকাস্টে।

অলি রবিনসনের একের পর এক পুরোনো বিদ্বেষী টুইট ভাইরাল হওয়ার পরই যেন প্যান্ডোরার বাক্স খুলে গিয়েছে ইংল্যান্ডের ক্রিকেটে। বিদ্বেষমূলক ট্যুইট করার দায়ে এবার নাম উঠে এসেছে জোশ বাটলার, ইয়ন মর্গ্যান, ব্রেন্ডন ম্যাককালাম, ম্যাট পার্কিনসন, জেমস আন্ডারসনের মত তারকাদের। এমন প্রেক্ষিতেই এবার ইংল্যান্ডকে ধুয়ে দিলেন প্রাক্তন ভারতীয় তারকা ফারুখ ইঞ্জিনিয়ার।

নিজের কেরিয়ারে ল্যাঙ্কাশায়ারের হয়ে কাউন্টি খেলতেন ফারুখ ইঞ্জিনিয়ার। ইংল্যান্ডে খেলার সময় তাঁকেও বর্ণবিদ্বেষমূলক আক্রমণ করা হত, এমনটাই জানিয়েছেন তিনি। তাঁর ইংরেজি বলার ধরণ নিয়ে হোক, বা গায়ের বর্ণ-কুৎসিত মন্তব্য তাঁকে শুনতে হয়েছে একাধিকবার।

আরো পড়ুন: ‘তুমুল ঝামেলা হত শাস্ত্রী-কোহলির সঙ্গেও!’ দলের অন্দরমহল এবার বেআব্রু করলেন প্রসাদ

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ফারুখ ইঞ্জিনিয়ার জানিয়ে দিয়েছেন অতীতের সেই তিক্ত স্মৃতি। “যখন কাউন্টি ক্রিকেট খেলতে প্রথম ইংল্যান্ডে যাই, আমাকে ঘিরে প্রথম প্রশ্নই থাকত, ও কি ভারত থেকে এসেছে? ল্যাংকাশায়ারে খেলার সময় দু-একবার এমন ঘটনার সম্মুখীন হই। আমার ব্যক্তিগত জীবন যাপন নিয়ে নয়, তবে ভারত থেকে আসার দারুণ আমাকে নিয়ে আমার ইংরেজি একসেন্ট নিয়ে তুমুল হাসি ঠাট্টা হত।”

ষাটের দশকের শুরুর দিকে কাউন্টি ক্রিকেট খেলতে ইংল্যান্ডে পাড়ি দিয়েছিলেন ভারতের সর্বকালের অন্যতম সেরা উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান। একাধিকবার তাঁকে নিয়ে তামাশা করা হলেও, তিনিও পাল্টা দিতেন। এমনটাই জানিয়েছেন তিনি। বলেছেন, “আমার ইংরেজি অনেক ইংরেজদের থেকেও ভালো। খুব শীঘ্রই ওঁরা বুঝতে পেরেছিল, একে চটানো ঠিক হবে না! আমি সঙ্গেসঙ্গেই ওঁদের পাল্টা দিতাম। শুধু তাই নয়, ব্যাট-গ্লাভস দিয়েও ওঁদের জবাব দিতাম। দেশের একজন প্রতিনিধি হিসেবে ইংল্যান্ডে খেলতে গিয়েছি, এই বিষয়টাই আমাকে গর্বিত করত।”

কীভাবে ইংল্যান্ডে ভারতীয়দের সঙ্গে বৈষম্যমূলক আচরণ করা হয়, সেই অভিজ্ঞতাও শেয়ার করেছেন কমেডিয়াম সাইরাস ব্রোচার সঙ্গে এক পডকাস্টে। সেই সময় জিওফ্রে বয়কট ভারতীয়দের ‘ব্লাডি ইন্ডিয়ান’ বলে ডাকতেন। এমনটাও জানিয়েছেন তিনি। তবে ফারুখ ইঞ্জিনিয়ারের অভিমত আইপিএল শুরু হওয়ার পর ভারতীয়দের সম্পর্কে দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন ঘটেছে ইংল্যান্ডের ক্রিকেট মহলে। অর্থের জন্যই এখন ভারতীয়দের ‘বুট চাটতে’ হচ্ছে ইংরেজদের। সাফ বলে দিয়েছেন তিনি।

সেই সাক্ষাৎকারে ইঞ্জিনিয়ার সাব জানিয়েছেন, “কয়েক বছর আগে পর্যন্তও ওঁদের কাছে আমরা ব্লাডি ইন্ডিয়ান্স-ই ছিলাম। তবে আইপিএল শুরু হওয়ার পর ওঁরা এখন আমাদের পিছন চাটছে। ভাবতেও আশ্চর্য লাগে, স্রেফ অর্থের জন্য ওঁরা আমাদের বুট চাটতেও রাজি! এখন হঠাৎ ওঁরা নিজেদের সুর বদলে ফেলেছে। ক্রিকেট খেলতে না পারলেও কয়েক মাসের জন্য ভারতে গিয়ে টিভিতে কিছু শো করে টাকা ইনকাম করা যাক- এমনটাই ওদের ভাবনা।” সাফ জানিয়েছেন ইঞ্জিনিয়ার।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Sports news here. You can also read all the Sports news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: England cricket ollie robinson racism row legendary farokh engineer too had faced racism in england while playing for lancashire

Next Story
WTC ফাইনালের আগেই অ্যাডভান্টেজ ভারত! কনুইয়ের চোটে বিধ্বস্ত উইলিয়ামসন
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com