scorecardresearch

বড় খবর

ডেভিস কাপে ভারত-পাক টাই নিয়ে জল্পনা, কাশ্মীর ইস্যুতে সতর্ক দুই দেশ

জুলাই মাসে আইটিএফ-এর তরফে দুই সদস্যের দল ইসলামাবাদে নিরাপত্তা খতিয়ে দেখতে হাজির হয়েছিল। পাকিস্তানের তরফে চূড়ান্ত নিরাপত্তার বন্দোবস্তের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল। তবে এই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে একমাত্র আইটিএফ-ই।

india-paksitan tennis players
ভারত-পাকিস্তানের টেনিস তারকারা (ইনস্টাগ্রাম)

কাশ্মীর ইস্যুতে দুই দেশের সম্পর্কের পারদ চড়ছে। ইতিমধ্যেই যথেষ্ট আগ্রাসী মনোভাব নিয়েছে ইসলামাবাদ। ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে ভারতের রাষ্ট্রদূতকে। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বানিজ্যিক সম্পর্ক। সমঝোতা এক্সপ্রেস আর সীমান্ত পেরোবে না। এর মধ্যেই ডেভিস কাপে ভারত বনাম পাকিস্তান টাই নিয়ে রীতিমতো উদ্বেগের ছায়া। সেপ্টেম্বরেই ইসলামাবাদে ডেভিস কাপের টাই হওয়ার কথা। ৫৫ বছর পরে পাকিস্তানের মাটিতে ভারতীয় টেনিস খেলোয়াড়দের খেলার কথা। এমন অবস্থায় দুই দেশের টেনিস ফেডারেশনই চাইছে আন্তর্জাতিক টেনিস সংস্থা যাতে পুরো বিষয়ে হস্তক্ষেপ করে। নিউট্রাল ভেন্যুতে ম্যাচ খেলিয়ে টাই রক্ষা করার প্রয়াসও জারি রয়েছে।

আন্তর্জাতিক টেনিস ফেডারেশনের পক্ষ থেকে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে জানানো হল,” পাকিস্তানের নিরাপত্তা ব্যবস্থার খুব একটা পরিবর্তন ঘটেনি। পরামর্শদাতাদের সঙ্গে আলোচনা করে পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখছি আমরা। পাশাপাশি জানানো হয়, নিরাপত্তা সর্বাগ্রে আমাদের টপ প্রায়োরিটি। আইটিএফ (ইন্টারন্যাশানাল টেনিস ফেডারেশন) আয়োজক দেশের সঙ্গে কাজ করে। পাশাপাশি নিরাপত্তা বিষয়ক আধিকারিকদের কাছ থেকেও আলাদাভাবে পরামর্শ নিয়ে থাকে। সমস্ত ডেভিস কাপ এবং ফেড কাপের টাইয়ের ক্ষেত্রে নিরাপত্তার পর্যালোচনা করা হয়।”

আরও পড়ুন দুরন্ত ডাবল সেঞ্চুরি শুভমানের, গম্ভীরের রেকর্ড ভাঙলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজে

খানা-পিনায় মজে বিরুষ্কা, সঙ্গী আরেক ভারতীয় ক্রিকেটার

জুলাই মাসে আইটিএফ-এর তরফে দুই সদস্যের দল ইসলামাবাদে নিরাপত্তা খতিয়ে দেখতে হাজির হয়েছিল। পাকিস্তানের তরফে চূড়ান্ত নিরাপত্তার বন্দোবস্তের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল। তবে এই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে একমাত্র আইটিএফ-ই। পিটিএফ (পাকিস্তান টেনিস ফেডারেশন)-এর চেয়ারম্যান সালিম সাইফুল্লা খান সর্বভারতীয় সংবাদসংস্থাকে জানায়, “নিউট্রাল ভেন্যুতে খেলা সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে কিনা, সেই বিষয়ে মন্তব্য করার মতো পরিস্থিতি এখনও আসেনি। সেক্ষেত্রে আমরা আন্তর্জাতিক সংস্থার সিদ্ধান্ত মেনে নেব। তবে টাই সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার মতো কোনও কারণ আপাতত নেই।” পাশাপাশি তিনি আরও জানান, “ইসলামাবাদ পুরোপুরি নিরাপদ। দুই দেশের পারস্পরিক টেনশন অনেকটা বেড়ে গিয়েছে। তবে সেটা কমে যেতে পারে। আমাদের কাছে খেলোয়াড়দের নিরাপত্তা সবথেকে বেশি প্রাধান্য পাবে। হার-জয় মুখ্য নয়, নিরাপত্তাই আসল বিষয়।”

পাকিস্তানের তরফে নিরাপত্তার পূর্ণ আশ্বাস মিললেও ভারতীয় টেনিস সংস্থা কিন্তু আন্তর্জাতিক টেনিস সংস্থাকে চিঠি লিখে নিউট্রাল ভেন্যুতে ম্যাচ সরিয়ে নেওয়ার কথা ভাবছে। অল ইন্ডিয়া টেনিস অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সচিব হিরণ্ময় চট্টোপাধ্যায় জানান, “আন্তর্জাতিক টেনিস সংস্থার কাছে চিঠি লেখার পরিবর্তে আমরা আপাতত দু-দিন পরিস্থিতি উন্নতি হয় কিনা, তার উপরে নজর রাখব। শেষ কয়েকদিন যেভাবে কাশ্মীর ইস্যু প্রকাশ্য়ে এসেছে তা যথেষ্ট সংবেদনশীল। যদি পরিস্থিতির কোনও পরিবর্তন না হয় এবং ওদেশে যাওয়ার উপরে সমস্যা তৈরি হয়, তাহলে আইটিএফ-কে চিঠি লিখে ম্যাচ কোনও নিরপেক্ষ ভেন্যুতে আয়োজন করার অনুরোধ করা হবে।”

গ্রুপ পর্বে ডেভিস কাপ টাই সাধারণত হোম-অ্যাওয়ে ভিত্তিতে হয়ে থাকে। তবে আইটিএফ সবসময়ে দুই দেশের পারস্পরিক সম্পর্কের উপরেও নজর রাখে। সেক্ষেত্রে প্রয়োজন হলে, কোনও নিরপেক্ষ ভেন্যুতে ম্যাচ আয়োজন করা যেতে পারে। কয়েক সপ্তাহ আগেই ভারতীয় টেনিস দলকে ক্রীড়ামন্ত্রকের তরফ থেকে পাকিস্তানে যাওয়ার বিষয়ে সবুজ সঙ্কেত দেওয়া হয়েছে। তারপরে আইটিএফ-এর তরফে ভেন্যু চূড়ান্ত হওয়ার পরে জাতীয় টেনিস সংস্থা কনফার্ম করে পাঁচ সদস্যের দল পাকিস্তানে যাবে। ১৯৬৪ সালে শেষবার পাকিস্তানে গিয়েছিল ভারতীয় টেনিস দল। তারপরে ফের একবার যাওয়ার সুযোগ তৈরি হয়েছিল। তবে উদ্ভূত পরিস্থিতি ভারত-পাকিস্তান টাইয়ের সম্ভবনার উপরে জল ঢেলে দিয়েছে।

Read the full article in ENGLISH

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Sports news download Indian Express Bengali App.

Web Title: India vs pakistan upcoming davis cup tie to be held in islamabad in september in serious doubt