ISL 2019, ATK vs Jamshedpur FC: জামশেদপুরকে হারিয়ে শীর্ষে উঠে এল এটিকে

বিরতির পরে এটিকের প্রেসিং ফুটবলের সামনে অবশ্য তল খুঁজে পায়নি জামশেদপুরের ফুটবলাররা। ৫৭ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে এটিকেকে এগিয়ে দেন রয় কৃষ্ণ।

By:
Edited By: Subhasish Hazra Kolkata  Updated: November 9, 2019, 09:37:00 PM

এটিকে: ৩ (রয় কৃষ্ণ-২, এডু গার্সিয়া)
জামশেদপুর এফসি: ১ (সের্জিও কাসেল)

টানা তিন জয়। ঘরের মাঠে জামশেদপুরের বিপক্ষে তিন পয়েন্ট নিয়েই মাঠ ছাড়ল হাবাসের ফুটবলাররা। জোড়া গোলের নায়ক রয় কৃষ্ণ। দুবারেই পেনাল্টি আদায় করে নিয়েছিলেন তিনি। জোড়া সুযোগের সদ্ব্যবহার করেই জোড়া গোল করে গেলেন ফিজির তারকা ফুটবলার। প্রথমার্ধে গোল না পেলেও দ্বিতীয়ার্ধে কৃষ্ণের সৌজন্যে জোড়া গোল এটিকের।

আগের ম্যাচের একাদশ থেকে একটি পরিবর্তন ঘটিয়ে এদিন দল সাজিয়েছিলেন কোচ অ্যান্তোনিও লোপেজ হাবাস। প্রণয় হালদারের বদলে এদিন প্রথম একাদশে জায়গা পেয়েছিলেন জয়েশ রাণে। তবে জামশেদপুর কোচ অ্যান্তোনিও ইরিওন্দো জোড়া পরিবর্তন ঘটিয়েছিলেন। বিকাশ জাইরু এবং অনিকেত যাদবকে বসিয়ে প্রথম একাদশে নিয়ে এসেছিলেন কিগান পেরেরা এবং আইজাক ভানমালসামাকে।

রাজ্যে বুলবুল-এর প্রভাবে প্রবল বৃষ্টি। সেই বৃষ্টি আছড়ে পড়েছিল যুবভারতী স্টেডিয়ামেও। তবে প্রবল বৃষ্টির মধ্যেই খেলা চালিয়ে যান দু-দলের ফুটবলাররা। জামশেদপুর শুরুতে প্রাধান্য নিয়ে খেলা চালু করে। বল পজেশনেও এগিয়ে ছিল। তবে এটিকে-র হার্ড প্রেসিং ফুটবলের সামনে গোলের মুখ খুলতে পারছিল না। প্রথমার্ধের শুরুটা যদি জামশেদপুরের হয়, তাহলে শেষটা এটিকের।

খেলা ৩০ মিনিট গড়ানোর পরে কন্ট্রোল করতে থাকে এটিকে। এই সময় বেশ কয়েকবার গোলের সুযোগ পেয়েছিল হাবাসের ছেলেরা। বিরতির আগেই এগিয়ে যাওয়ার দারুণ সুযোগ পেয়েছিল এটিকে। গোলকিপার সুব্রত পালের ভুলে যদিও ফায়দা তুলতে ব্যর্থ এটিকে।

তিরি ব্যাকপাস করেছিলেন সুব্রতকে। পালটা সুব্রত পাল পাস দিয়েছিলেন রবিন গুরুংকে। ডেভিড উইলিয়ামস বল চেজ করে বল কেড়েও নিয়েছিলেন। বক্সের মধ্যে কৃষ্ণকে পাস দিয়েছিলেন। কৃষ্ণ সেই বল ব্যাকহিল করেছিলেন হাভিয়ের হার্নান্ডেজকে। শট অবশ্য জালে রাখতে পারেননি হার্নান্ডেজ। এরপরের মুহূর্তেই আবার একক দক্ষতায় গোল করে ফেলতে পারতেন জয়েশ রাণে। দু-জন প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে গোলে শট নিয়েছিলেন। তবে তা লক্ষ্যভ্রষ্ট হয় সামান্যের জন্য।

আরও পড়ুন ISL 2019: জয়ের মোমেন্টাম ধরে রাখাই লক্ষ্য এটিকের

প্রথমার্ধের আগেই গোল হজম না করতে হলেও জামশেদপুর ধাক্কা খায় দারুণ ছন্দে থাকা পিতি উঠে যাওয়ার পরে। প্রবীর দাসের সঙ্গে বল দখলের লড়াইয়ে গিয়ে হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পান পিতি। দলের তারকা ফুটবলার উঠে যাওয়ার পরে অনেকটাই কোনঠাসা হয়ে পড়ে ইস্পাতনগরীর ফুটবলাররা।

বিরতির পরে এটিকের প্রেসিং ফুটবলের সামনে অবশ্য তল খুঁজে পায়নি জামশেদপুরের ফুটবলাররা। ৫৭ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে এটিকেকে এগিয়ে দেন রয় কৃষ্ণ। বক্সের মধ্যে কৃষ্ণকে ফাউল করেছিলেন তিরি। বল ছাড়া ট্যাকল করে মাটিতে আছড়ে ফেলেছিলেন ফিজির তারকা ফুটবলারকে। প্রাপ্ত পেনাল্টি থেকে গোল করতে ভুল করেননি কৃষ্ণ। ঠাণ্ডা মাথায় সুব্রত পালকে পেরিয়ে বল জালে জড়ালেন তিনি।

সেই গোলের হ্যাংওভার কাটতে না কাটতেই ৭১ মিনিটে এটিকের দ্বিতীয় গোল কৃষ্ণের জন্য। একই ভাবে অরিন্দম লম্বা বল পাঠিয়েছিলেন জামশেদপুরের অর্ধে। হেডে বল রিসিভ করে একক দক্ষতায় বক্সের মধ্যে এগিয়ে গিয়েছিলেন কৃষ্ণ। তিরিকে ফেলে এগিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। তবে পিছন থেকে বিশ্রী ট্যাকল করেছিলেন মেমো। বক্সের মধ্যে তারপরেই আরও একবার ফাউল করেন তিরি। তিরিকে হলুদ কার্ড দেখান রেফারি। হতাশা চেপে রাখতে না পারায় গোলকিপার সুব্রত পালও বল ফেলে দিয়ে হলুদ কার্ড হজম করলেন। পেনাল্টিতে প্রথমবার গোল করার পরে রেফারি চেয়েছিলেন দ্বিতীয়বার গোলে শট নিন কৃষ্ণ। দ্বিতীয়বারেও সুব্রত পালকে পরাস্ত করে এটিকেকে ২-০ এগিয়ে দেন কৃষ্ণ।

নির্ধারিত সময়ে খেলা শেষ হওয়ার ঠিক ছয় মিনিট আগে গোলের ব্যবধান কমায় জামশেদপুর। বক্সের মধ্যে আনাস ফাউল করেছিলেন সের্জিও কাসেলকে। রেফারি বাঁশি বাজিয়ে পেনাল্টি দিতে ভুল করেননি। সেখান থেকে ব্যবধান কমান কাসেল। শেষদিকে সংযোজিত সময়ে সুপার সাব এডু গার্সিয়া এটিকের হয়ে স্কোরলাইন ৩-১ করেন।

Get all the Latest Bengali News and West Bengal News at Indian Express Bangla. You can also catch all the Sports News in Bangla by following us on Twitter and Facebook

Web Title:

Isl 2019

The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com.
Advertisement

ট্রেন্ডিং
আবহাওয়ার খবর
X