scorecardresearch

বড় খবর

দেবাশিস দত্তের বাড়ি ঘেরাও কেন! মোহনবাগান সমর্থকদের তুলোধোনা করলেন কুনাল ঘোষ

রিমুভ এটিকে আন্দোলন নিয়ে ফেসবুক পোস্টে বিষ্ফোরক মোহনবাগানের সহ সভাপতি কুনাল ঘোষ

দেবাশিস দত্তের বাড়ি ঘেরাও কেন! মোহনবাগান সমর্থকদের তুলোধোনা করলেন কুনাল ঘোষ

প্রায় দর্শকশূন্য স্টেডিয়াম। যুবভারতীর সোমবারের দর্শক সংখ্যা দেখে এবার শিয়রে সমন গুনতে শুরু করেছেন এটিকে মোহনবাগানের কর্মকর্তারাও। ‘রিমুভ এটিকে’ আন্দোলন সোশ্যাল মিডিয়ায় দানা পাকিয়ে আপাতত ‘গোয়েঙ্কা আউট’ পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছিল পুজোর সময়। পুজোর পরে ক্ষুব্ধ সমর্থকরা বাড়ি ঘেরাও করেছেন বাগান সচিব দেবাশিস দত্তের।

আর সোশ্যাল মিডিয়া, রাজপথ, দেবাশিস দত্তের বাড়ি ঘুরে এবার ‘ব্রেক দ্য মার্জার’ দাবি পৌঁছে গিয়েছে এটিকে মোহনবাগানের আইএসএল-এর প্ৰথম ম্যাচ চেন্নাইয়িন এফসির বিরুদ্ধেও। খা খা স্টেডিয়ামে প্ৰথম ম্যাচ খেলার পরেই এবার বাগানের অন্যতম শীর্ষকর্তা কুনাল ঘোষ সোশ্যাল মিডিয়ায় সোচ্চার হলেন।

আরও পড়ুন: যুবভারতীর অন্ধকারেও ঢাকল না বাগানের লজ্জা! হেরেই ISL শুরু ফেরান্দো ব্রিগেডের

বিষ্ফোরক ভঙ্গিতে নিজের ফেসবুক পোস্টে কুনাল ঘোষ জানিয়ে দিলেন, “আমি মনেপ্রাণে বিশ্বাস করি, প্রথম থেকেই ‘এটিকে’ এড়িয়ে বিকল্প সবকটি পথের সন্ধান করলে আজকের এই পরিস্থিতি হত না। তখন যাঁরা এই প্রক্রিয়ার ভগীরথ ছিলেন, তাঁরা এখন পরস্পরের দিকে দায়িত্বের বল ঠেলে দেওয়াটা হাস্যকর। ১০/১০/২২ তারিখে ক্লাবের তরফ থেকে যে বিবৃতি দেওয়া হয়েছে, তার বয়ানের অনেকাংশে আমারও আপত্তি থাকছে। ওই বিবৃতি তড়িঘড়ি করে দিতে গিয়ে অনভিপ্রেত বিতর্ক সামনে এসেছে। আমার মতে, এটা সচিব বনাম প্রাক্তন সচিব যুদ্ধে পরিণত না হয়ে ‘এটিকে’ জট খোলার প্রক্রিয়া হওয়া দরকার। নতুন কর্মসমিতিতে আমার প্রথম বৈঠকেই বলেছি। বারবার বলেছি। আবার বলব। কী কী বলব, সেটা আজ এখানে লিখছি না।”

ক্লাবের সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পাওয়ার পরে কয়েকমাস আগেই এটিকে শব্দ-বিচ্ছেদ নিয়ে প্রকাশ্যে মুখ খুলেছিলেন কুনাল ঘোষ। তিনি সেই কথা মনে করিয়ে দিয়ে মঙ্গলবার পুনরায় বললেন, “ক্লাবের সহসভাপতি পদে আসার পর কর্মসমিতির বৈঠকে আমিই বিষয়টি তুলেছিলাম। ঠিক হয় সচিব এবিষয়ে লগ্নিকারীদের এবং বিশেষভাবে সঞ্জীববাবুর সঙ্গে কথা বলবেন।”

“এটাও ঠিক, যে একবার চুক্তির পর লগ্নিকারীদের কথাও ক্লাবের মেনে চলার বাধ্যবাধকতা থাকে। যে সময় টাকার দরকার ছিল, না হলে আই এস এল খেলা হত না, তখন শ্রীগোয়েঙ্কা এগিয়ে আসাতেই সমস্যার সমাধান হয়েছিল। কিন্তু, জট হল ‘এটিকে’ নিয়ে। এর বাইরে লগ্নিকারীকে নিয়ে কোনও আপত্তি সমর্থকদের নেই।”

আরও পড়ুন: লিস্টনরা কি কোচের প্ল্যান ফলো করছেন না! বিষ্ফোরক গুঞ্জনে এবার মুখ খুললেন ফেরান্দো

সমর্থকদের আবেগ এবং ‘রিমুভ এটিকে’ আন্দোলন নিয়েই নিজের বক্তব্য সরাসরি জানিয়েছেন তিনি। লিখে দিয়েছেন, “মোহনবাগানে স্পন্সর বা ইনভেস্টর হিসেবে সঞ্জীব গোয়েঙ্কা সসম্মানে স্বাগত। কিন্তু ক্লাবের নামের আগে ‘এটিকে’ কিংবা এটিকে নামক একদা থাকা একটি ক্লাবের সঙ্গে মোহনবাগানের ‘মার্জার’ শব্দটি মানা যায় না। এবিষয়ে সদস্য, সমর্থক, শুভানুধ্যায়ীদের ‘রিমুভ এটিকে’ আন্দোলন সঠিক। মোহনবাগানের একজন সমর্থক হিসেবে আমিও চাই ‘এটিকে’ সরিয়ে লগ্নিকারীরা বিকল্প কিছু করুন।”

সচিব দেবাশিস দত্তের বাড়ি ঘেরাও নিয়েই তীব্র নিন্দা করেছেন কুনাল ঘোষ। স্পষ্ট ভাষায় সমর্থকদের বার্তা দেওয়ার ভঙ্গিতে জানিয়েছেন, “সদস্য সমর্থকদের কাছে অনুরোধ, আপনাদের আবেগ সঠিক। আপনারা প্রতিবাদ করতে পারেন। আপনারা মানে তো আমরাই, আমরা সবাই। কিন্তু সেটা লক্ষ্মীপুজোর দিন কোনও কর্তার বাড়ির সামনে হওয়া অবাঞ্ছিত। ক্লাবের বিষয় বাড়িতে যাবে কেন? প্রতিবাদ হতেই পারে। কিন্তু তার কিছু ধরণধারণ নিয়ে প্রশ্ন উঠলে আন্দোলনেরই ক্ষতি। এবিষয়টিও সমানভাবে গুরুত্ব পাওয়া উচিত।”

সেই সঙ্গে তাঁর আরও সংযোজন, “একজন সমর্থক হিসেবে আমিও চাইব নানা কারণে সময় নষ্ট না হয়ে ‘এটিকে’ সরিয়ে বিকল্প ফর্মুলা কার্যকর হোক। আলোচনা, বিবৃতি এবং নিজেদের ঝগড়ায় সময় নষ্ট করে আসল সমস্যা জিইয়ে রাখলে সদস্য, সমর্থকদের বিরক্তি বাড়বেই। সবচেয়ে বড় কথা ঐতিহ্যশালী মোহনবাগানের নামের আগে অন্য ফুটবল ক্লাবের নাম চলতে পারে না।”

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Sports news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Isl 2022 kunal ghosh condemns mohun bagan fans protest demonstration in front of debasish duttas house supports remove atk movement