scorecardresearch

বড় খবর

দল ভাঙার কাজ শুরু হয়ে গেল ইস্টবেঙ্গলে! ছাঁটাই স্টিফেনের ডান-হাত

দল ভাঙার কাজ শুরু হয়ে গেল ইস্টবেঙ্গলে

দল ভাঙার কাজ শুরু হয়ে গেল ইস্টবেঙ্গলে! ছাঁটাই স্টিফেনের ডান-হাত

এবারেও আইএসএল-এ যথারীতি মুখ থুবড়ে পড়েছে ইস্টবেঙ্গল। দশম স্থানে ফিনিশ করেছে লাল হলুদ শিবির। লিগের শেষ ম্যাচে ডার্বি হার আগল খুলে দিয়েছে সমস্ত সমালোচনার।

স্টিফেন কনস্টানটাইনের সঙ্গে ৩১ মে পর্যন্ত চুক্তি রয়েছে ইস্টবেঙ্গলের। খুব বড় অঘটন না ঘটলে ব্রিটিশ কোচের কলকাতার ক্লাবে থাকার মেয়াদ ফুরোচ্ছে এই মরশুম শেষেই। সুপার কাপ পর্যন্ত সম্ভবত দায়িত্বে থাকছেন তিনি। তারপরেই দেশে ফেরার বিমানে চড়তে হবে। কোচিং স্টাফ সহ সমস্ত দলই খোলনলচে বদলে ফেলার ডাক এসেছে। আর সুপার কাপের আগেই ক্লাব ছাড়তে হচ্ছে স্টিফেন কনস্টানটাইনের সহকারী কোচ থোরলাহুর সিগার্সনকে।

আরও পড়ুন: ইস্টবেঙ্গলের জার্সি পরার যোগ্যতাই নেই সুহের-কিরিয়াকুদের! বারবার ডার্বি হারে মেজাজ হারালেন ওপারা

আইসল্যান্ডের সহকারী বাছাই করেছিলেন স্টিফেন। সিগার্সন বুধবার সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের বিদায় বার্তা জানিয়ে লিখে দিলেন, “কলকাতায় কোচিংয়ের এবং থাকার দুরন্ত অভিজ্ঞতা হল। এবার শহরকে বিদায় জানানোর পালা। আইএসএলে ইস্টবেঙ্গলের সহকারী কোচ হিসেবে ব্যক্তিগত এবং পেশাদারি জীবনে অনন্য অভিজ্ঞতা অর্জনের সুযোগ দেওয়ার জন্য আমি দারুণভাবে সম্মানিত এবং কৃতজ্ঞ।”

“মাঠ এবং মাঠের বাইরে সমর্থকদের সঙ্গে দারুণ অভিজ্ঞতা নিয়েই আমি দল ছাড়ছি। আশা করি এই সিজনকে পাথেয় করে ক্লাব নতুন করে এগিয়ে যাবে, সেরা ছয়ের মধ্যে থাকবে আগামী সিজনে।”

“ক্লাবের সকলকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। স্টিফেন কনস্টানটাইনের সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা দারুণ। ব্যাকরুম স্টাফ হিসাবে আমাকে সুযোগ দেওয়ার জন্য আমি কৃতজ্ঞ। গোটা মরশুম জুড়ে ফুটবলাররা যে ধারাবাহিকতা দেখিয়েছে, সেই প্রচেষ্টাকে কুর্নিশ জানাচ্ছি। পরের চ্যালেঞ্জের আগে এই মুহূর্তগুলো আমাকে আরও সমৃদ্ধ করবে।”

আরও পড়ুন: কালান্তক ডার্বি কেড়ে নিয়েছে হৃদয়ের মানুষকেই! ইস্টবেঙ্গল থেকে মুখ ফেরালেন বাগুইহাটির বীরাঙ্গনা

চলতি সিজনের শেষে ক্লেইটন, মহেশদের মত কয়েকজনকে রেখে বাকিদের ছাঁটাই করে নতুন করে গঠনের পক্ষপাতী ইস্টবেঙ্গল কর্মকর্তারা। সামনেই ইমামি ইস্টবেঙ্গলের বোর্ড মিটিং। সেই মিটিংয়ে ইনভেস্টর গোষ্ঠীকে বোঝানো হবে বাজেট বাড়িয়ে দল গঠন করতে। না হলে এটিকে মোহনবাগান, মুম্বই সিটি এফসির মত হেভিওয়েট দলের মত গোটা মরশুম জুড়ে পাল্লা নেওয়া যাবে না। সেই জন্য সের্জিও লোবেরার মত ভারতে কোচিং করিয়ে যাওয়া নামি কোচের হাতে দলের দায়িত্ব তুলে দেওয়া।

ঘটনা হল, ইমামির তরফে বাজেট বাড়ানো হবে কিনা, তা নিয়ে সংশয় রয়েছে ক্লাবের অন্দরমহলেই। স্টিফেন কনস্টানটাইনকে বাছাই-ই করা হয়েছিল তিনি জর্জে কোস্তাদের তুলনায় ‘সস্তা’ বলে।

এবার ‘স্টিফেন হঠাও’ ধ্বনি উঠেছে প্রবলভাবে। যাতে সুর মিলিয়েছে ইস্টবেঙ্গল ক্লাব-ও। ক্লাবের কর্তাদের কথায় কর্ণপাত করে আগামী মরশুমে কোচ বদল হয় কিনা, সেদিকে তাকিয়ে রয়েছে ফুটবল মহল।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Sports news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Isl 2023 east bengal assistant coach thorhallur siggeirsson stephen constantines future in jeopardy