scorecardresearch

বড় খবর

বিতর্কের জন্যই ক্যাপ্টেন করা হবে না এমবাপেকে! বড়সড় বোমা ফাটালেন ফ্রান্সের তারকা

ফ্রান্সের ক্যাপ্টেন করা হবে না বিতর্কিত এমবাপেকে, বিষ্ফোরক এবার ফ্রান্সের তারকা

বিতর্কের জন্যই ক্যাপ্টেন করা হবে না এমবাপেকে! বড়সড় বোমা ফাটালেন ফ্রান্সের তারকা

বিশ্বকাপ ফাইনালে হারের পরেই অবসর নিয়েছেন ফ্রান্সের ক্যাপ্টেন হুগো লরিস। তারপরেই ফরাসি ফুটবলে জোর আলোচনা শুরু হয়েছে কে হবেন জাতীয় দলের ক্যাপ্টেন! ফর্ম এবং পারফরম্যান্সের বিচারে ক্যাপ্টেন্স আর্মব্যান্ড পরার দাবিদার হিসাবে একনম্বরে উঠে এসেছেন কিলিয়ান এমবাপে।

ফ্রান্সের জাতীয় দলে অভিষেকের পর থেকেই অপ্রতিরোধ্য কিলিয়ান এমবাপে। দুটো বিশ্বকাপে অংশ নিয়ে একবার চ্যাম্পিয়ন, একবার রানার্স হয়েছেন তারকা। দুটো বিশ্বকাপেই ১২ গোল করে ফেলেছেন সুপারস্টার। ১৯৬৬-এ জিওফ হার্স্টের পর দ্বিতীয় ফুটবলার হিসাবে বিশ্বকাপ ফাইনালে হ্যাটট্রিক করে ফেলেছেন।

আরও পড়ুন: রেগে যেতে পারেন এমবাপে! ঝামেলা এড়াতে মেসিকে বিশ্বকাপ ট্রফি হাতে নামতে দিল না PSG

কাতার বিশ্বকাপে আট গোল করও গোল্ডেন বুট জয়ী তারকাকে তবু ক্যাপ্টেন করবেন না ফ্রান্স কোচ দিদিয়ের দেশঁ। এমনটাই মনে করছেন ফ্রান্সের প্রাক্তন ফুটবলার জেরেমি রথেন। রথেন’স ফ্লেম নামের ফুটবল পডকাস্টে তিনি সরাসরি এর কারণ জানিয়ে দিয়েছেন। বলে দিয়েছেন, “আমি হলে এমবাপেকেই ব্লুজদের ক্যাপ্টেন করতাম। তবে দিদিয়ের দেশ যে পদ্ধতিতে কাজ করেন, তাতে উনি এমবাপেকে ক্যাপ্টেন করবেন বলে মনে হয় না। কারণ? ও সব বিষয়ে কথা বলে।”

ঘটনা হল, মাঠে নেমে দুর্ধর্ষ পারফর্ম করলেও বরাবর বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে থেকেছেন এমবাপে। ফ্রান্স ফুটবল সংস্থার সঙ্গে স্পনসরশিপ চুক্তি রয়েছে কোকাকোলা, উবের ইটস, কেএফসি-র ফুড জয়েন্টস কোম্পানির। এছাড়াও বেটিং সংস্থা বেটক্লিক-এ ফ্রেঞ্চ ফুটবল সংস্থার স্পনসর। এমবাপে ফ্রান্সের ফুটবল সংস্থার স্পনসরদের হয়ে প্রমোট করতে চান না। এমনকি বিশ্বকাপের আগে স্পনসরশিপ ইস্যুতে দলের ফটোসেশনেও অংশ নিতে চাননি তারকা।

আরও পড়ুন: ২০২৬ বিশ্বকাপেও ৩৯-এর মেসি! অবসর গুঞ্জন থামিয়ে বিরাট সুখবর বিশ্বজয়ী কোচ স্কালোনির

ব্যক্তিগত কারণেও এমবাপে অনেকের কাছে তীব্র অপছন্দের। বিশ্বকাপের পরেই এমবাপে ব্রেক আপ করেছেন ট্রান্স-বান্ধবী ইনেস রিউয়ের সঙ্গে। বর্তমান ইউরোপীয় প্রচার মাধ্যমের খবর অনুযায়ী, তিনি ডেটিং করছেন বেলজিয়ান মডেল স্টেফানি রস বেট্রামের সঙ্গে।

শুধু তাই-ই নয়, মাঠের মধ্যে বারবার বিতর্কে জড়িয়েছেন এমবাপে। পিএসজিতে খেলার সময় নেইমারের সঙ্গে ঝামেলায় জড়িয়েছিলেন দলের পেনাল্টি কে নেবেন তা নিয়ে। সেই বিতর্কের রেশ এখনও রয়েছে। মেসির সঙ্গেও ইগোর লড়াই রয়েছে তারকার। বিশ্বকাপ ফাইনালে মেসির মত সিনিয়র মহাতারকার মুখের ওপরেই গোল উদযাপন করে বিতর্কে জড়িয়েছেন। এছাড়াও, লাতিন আমেরিকা ফুটবল দুনিয়ায় ইউরোপের তুলনায় পিছিয়ে রয়েছে, এমন বিতর্কিত মন্তব্যও করেছেন তারকা।

আরও পড়ুন: থামানোই যাচ্ছে না মেসিকে! PSG-র হয়ে নেমেই গোল করে এমবাপেদের বোঝালেন কেন তিনি সর্বসেরা

কোচ দিদিয়ের দেশঁ বরাবর বিতর্কহীন ব্যক্তিকে পছন্দ করেন। হুগো লরিস শান্ত মাথায় মাঠে দল পরিচালনা করেছেন গত একদশক ধরে। কোচ দেশঁ-ও জানিয়েছেন, “২০১২-য় আমি কোচ হওয়ার পরই ওঁকে ক্যাপ্টেন করা হয়েছিল। ওঁর হাতে আর্মব্যান্ড তুলে দিয়ে কখনই অনুশোচনা হয়নি।”

কোচ দেশঁ-এর ফুটবল দর্শন পুরোপুরি বিপরীত এমবাপের। এমন অবস্থায় এমবাপেকে যদি সত্যিই জাতীয় দলের ক্যাপ্টেন করা হয়, তা আশ্চর্যেরই হবে।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Sports news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Kylian mbappe would not be made france captain by coach didier deschamps predicts jerome rothen