scorecardresearch

বড় খবর

১৬ বছরের ভারতীয় দাবাড়ুর কাছে কিস্তিমাত কার্লসেনের

দাবার আন্তর্জাতিক সংস্থা অনলাইন এই দাবা খেলায় রেটিং না দিলেও দাবাড়ুদের মধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে এই স্বল্প দৈর্ঘ্যের এই গেমসগুলো।

বর্তমান বিশ্বের এক নম্বর দাবাড়ু যে তিনি, তা নিয়ে কোনো সংশয় নেই। অবলীলায় প্রতিপক্ষকে বধ করতে ওস্তাদ তিনি। সেই বিস্ময় দাবাড়ু ম্যাগনাস কার্লসেনকেই শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতার মুখে ফেলে দিয়েছেন ভারতের বছর ষোলোর এক কিশোর। যা নিয়ে আপাতত দাবার বিশ্বে তুমুল হইচই।

ভারতের সেই বিস্ময় কিশোর নিহাল সারিন এক মিনিটের একাধিক চেজ শুট আউটে মুখোমুখি হয়েছিলেন নরওয়ের কিংবদন্তির। ক্রিকেটের টি২০ র ধাঁচে দাবার সেই বুলেট গেমস এর পরে স্কোরকার্ড কার্লসেন ১৯, নিহাল সারিন ১৩।

শুধু এখানেই শেষ নয়, নিহাল সারিন গত সপ্তাহেই ব্লিৎজ গেমসে হারান কার্লসেনকে। ব্লিৎজ গেমসে দাবাড়ুরা প্রতিপক্ষকে মাত করার জন্য মাত্র ৩ মিনিট সময় পান।

এরপরেই নিহাল সারিনকে দাবার ‘টি২০ স্পেশালিস্ট নামে ডাকা শুরু হয়ে গিয়েছে। স্বয়ং কার্লসেন ভারতীয় দাবাড়ুকে বলেছেন, “অন্যতম সেরা ব্লিৎজ খেলোয়াড়”। বিখ্যাত চেজ.কম এ ১৫৪৩১ গেমসের পর নিহালকে সেরা দের তালিকায় তিন নম্বরে রাখা হয়েছে।

দাবার আন্তর্জাতিক সংস্থা অনলাইন এই দাবা খেলায় রেটিং না দিলেও দাবাড়ুদের মধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে এই স্বল্প দৈর্ঘ্যের এই গেমসগুলো।

কার্লসেনকে চ্যালেঞ্জ ছোঁড়া ভারতীয় বিস্ময় দাবাড়ু নিহাল বলছেন, “কার্লসেনকে অনলাইন দেখেই চ্যালেঞ্জ ছুড়ি। যদি ফিডে এই অনলাইন দাবাকে মান্যতা দেয়, তাহলে তো ভালোই হবে।” অনলাইন খেলার পক্ষে আরও সওয়াল করতে গিয়ে নিহালের যুক্তি, “অনলাইনেই দাবার বেসিক ব্যাপার রপ্ত করেছি। নিজেকে ঘষে মেজে নেওয়া, পরীক্ষা করার সুযোগ পেয়েছি অনলাইনেই। রিয়াল সিচুয়েশনে একটা মুভের আগে যে পরিস্থিতি তৈরি হয়, সেগুলো অনলাইনে ঘন্টার পর ঘন্টা পরীক্ষা করলে হয়না।”

দেশের বর্ষীয়ান গ্র্যান্ড মাস্টার প্রবীণ থিপসে জানান, নতুন প্রজন্মের দাবাড়ুরা বিদ্যুৎ গতিতে মাউস ব্যবহার করতে পারায় অনলাইন চেজে এরা প্রায় অপ্রতিরোধ্য। পাশাপাশি তিনি বলেছিলেন, ১ মিনিট, ৩ মিনিটের দাবায় প্রতিটি সেকেন্ড গুরুত্বপূর্ণ। ওদের রিফ্লেক্স অনেক ক্ষিপ্র। সেকেন্ডের ভগ্নাংশ ম্যাচে অনেকটা প্রভাব ফেলে দেয়।

সারিনের পাশাপাশি বিশ্বে অন্যান্য টিনএজ দাবাড়ুরাও উঠে এসেছেন। যেমন ইরানের ১৮ বছরের অলিরেজা ফিরউজা। যিনি সারিনের মতোই গত সপ্তাহে ব্লিৎজ গেমসে হারান কার্লসেনকে। সারিনের ট্রেনিং পার্টনার শ্রীনাথ নারায়ণন বলছিলেন, “অনলাইন চেজে সাড়া ফেলে দিয়েছে অলিরেজা, সারিনের মত দাবাড়ুরা। অনলাইনে ৫০ হাজারেরও বেশি ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা থাকায় খুব দ্রুত মুভ করতে সক্ষম ওরা।”

অনলাইনের মত বাস্তবে কার্লসেনের মুখোমুখি হয়েও কি কিস্তিমাত করতে পারবেন সারিন? ভারতের বিস্ময় দাবাড়ু বলছেন, “সেই খেলার সেটিং, পরিবেশ পুরোপুরি আলাদা হবে। তবে সেটা ম্যাচে প্রভাব ফেলবে কিনা, তা নিয়ে নিশ্চিত নই। কারণ দিনের শেষে আমরা একই ধরণের মুভ করতে পারবো।”

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Sports news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Nihal sarin online chess magnus carlsen blitz bullet