বড় খবর

রোহিতের ডাবল সেঞ্চুরিতে কেঁদে ফেলেন স্ত্রী! কারণ জানালেন হিটম্যান

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সেই ম্যাচে রোহিত নিজের ইনিংসে ১৩টি বাউন্ডারি ও এক ডজন ওভার বাউন্ডারি হাঁকান। রোহিতের ডাবল সেঞ্চুরিতে ভর করে ভারত স্কোরবোর্ডে পাহাড় প্রমাণ ৩৯২/৪ তোলে।

বছর তিনেক আগে রোহিত শর্মার সেই ইনিংস। বিশ্ব চমকে গিয়েছিল। সেই ইনিংস নিয়েই এবার মুখ খুললেন তিনি মায়ঙ্ক আগারওয়ালের শো ‘ওপেন নেটস উইথ মায়ঙ্ক’ এ। মোহালি স্টেডিয়ামে রোহিতের ব্যাট থেকে বেরিয়েছিল ওয়ানডের তৃতীয় দ্বিশতরান। শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে রোহিতের ১৫৩ বলে ২০৮ রানের বিধ্বংসী ইনিংস দেখেই চোখে জল চলে আসে স্ত্রী রিতিকার।

কেন? রোহিত জানাচ্ছেন, “আমি মাইলস্টোন পেরোনোর পরেই স্ত্রী আবেগপ্রবণ হয়ে পড়ে। সেই ইনিংসটা স্পেশ্যাল কারণ সেইদিনই ছিল আমাদের বিবাহবার্ষিকী। এর থেকে ভালো উপহার ওকে আর কী দিতে পারতাম! ১৯৬ রানে থাকাকালীন রান পূর্ণ করার সময় আমি ডাইভ দিই। ও ভেবেছিল আমার হাত মুচড়ে গেছে।”

 

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সেই ম্যাচে রোহিত নিজের ইনিংসে ১৩টি বাউন্ডারি ও এক ডজন ওভার বাউন্ডারি হাঁকান। রোহিতের ডাবল সেঞ্চুরিতে ভর করে ভারত স্কোরবোর্ডে পাহাড় প্রমাণ ৩৯২/৪ তোলে। ভারত সেই ম্যাচ জেতে ১৪১ রানের বিশাল ব্যবধানে। বিশ্বের একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে রোহিতই তিনটে ডাবল সেঞ্চুরির মালিক। মোহালির ইনিংসটি ছিল রোহিতের শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে দ্বিতীয় দ্বিশতরান। মুম্বইকরের আর একটি ডাবল সেঞ্চুরি অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে।

সেই ইনিংস নিয়ে রোহিত সেই শো তে জানিয়েছেন, “প্রথমে ধীরে ধীরেই ব্যাটিং করছিলাম। ভাবতেই পারিনি ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকাতে পারব। তবে একবার ১২৫ পেরোনোর পরে বুঝতে পারি সেটা সম্ভব।কারণ বোলাররা চাপে পড়ে গিয়েছিল। ভুল না করলে সেই ইনিংসে আউট হওয়া শক্ত ছিল।”

মায়ঙ্ক আগারওয়ালের ক্রিকেট শো তে হাজির ছিলেন অন্য ওপেনার শিখর ধাওয়ানও। রোহিতের সঙ্গে তাঁর বিখ্যাত ওপেনিং জুটি নিয়ে তিনি এদিনও মুখ খুলেছেন। জানান, “২০১৩ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে প্রথমবার আমরা ওপেন করি। অনুর্দ্ধ ১৯ ক্রিকেট থেকে একে অন্যকে আমরা চিনতাম। আমাদের পার্টনারশিপের সবথেকে ভাল বিষয় হল, নিজেদের উপর আমরা কখনই চাপ আসতে দি না। এই বিষয়টাকে আমরা উপভোগ করি।”

Get the latest Bengali news and Sports news here. You can also read all the Sports news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Rohit sharma double century wife crying mayank agarwal

Next Story
করোনায় মৃত ভারতীয় ফুটবলার হামজা কোয়া
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com