scorecardresearch

বড় খবর

একদিনে মোদি-আম্বানি হওয়া যায় না! বোর্ড-বিদায়ের পর প্ৰথমবার মুখ খুললেন ‘অভিমানী’ সৌরভ

বোর্ড থেকে সরার পর প্রথমবার মুখ খুললেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়

একদিনে মোদি-আম্বানি হওয়া যায় না! বোর্ড-বিদায়ের পর প্ৰথমবার মুখ খুললেন ‘অভিমানী’ সৌরভ
বোর্ড থেকে পদচ্যুত হওয়ার পর প্ৰথমবার মুখ খুললেন সৌরভ (এক্সপ্রেস ফটো পার্থ পাল, টুইটার)

বোর্ডে তাঁর রাজত্বে ফুলস্টপ। ১৮ অক্টোবর রাজপাট ছেড়ে দিচ্ছেন রজার বিনির জন্য। যেভাবে তাঁকে সরে যেতে হল তাঁর ইচ্ছার বিরুদ্ধে তাতে গোটা দেশ জুড়ে আলোচনার লাভাস্রোত। সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের পক্ষে-বিতর্কে মশগুল ক্রিকেট দুনিয়া।

বোর্ড সভাপতি পদ হারানোর পরে প্রকাশ্যে জনসমক্ষে দেখা গেল সৌরভকে বন্ধন ব্যাংকের অনুষ্ঠানে, বৃহস্পতিবার। বন্ধন ব্যাংকের ব্র্যান্ড এমবাসাডর হলেন তিনি। সেই ব্যাঙ্কের অনুষ্ঠানেই সৌরভ জানিয়ে দিলেন, দীর্ঘদিন তিনি প্রশাসনে যুক্ত ছিলেন। এবার অন্য কিছু করতে চলেছেন তিনি।

আরও পড়ুন: বোর্ডে সৌরভকে ‘পিছন থেকে ছুরি মারলেন’ ইনিই! মহারাজকে ‘হেনস্তা’ করার মাস্টারমাইন্ডকে চিনুন

“প্রশাসক হিসাবে কাজ করেছি। এবার অন্য কিছু করব। ইতিহাসে কখনও বিশ্বাস করতাম না। তবে অতীতে ধারণা ছিল পূর্বাঞ্চলে সর্বোচ্চ পর্যায়ে খেলার জন্য প্রতিভার অভাব রয়েছে। একদিনে কেউ আম্বানি, নরেন্দ্র মোদি হয়ে যান না। মাসের পর মাস বছরের পর বছর পরিশ্রম করে সেই জায়গায় পৌঁছতে হয়।” বোর্ড থেকে অপসারণের পর প্ৰথমবার মুখ খুলে জানিয়ে দিলেন মহারাজ।

সেই সঙ্গে তাঁর আরও সংযোজন, “জীবনের সেরা সময় কাটিয়েছি জাতীয় দলের হয়ে খেলার সময়। বিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট হয়েছি। এবার আরও বড় কিছু করব। চিরকালের জন্য কেউ ক্রিকেটার, প্রশাসক থাকতে পারে না। দুই ক্ষেত্রেই দারুণ অভিজ্ঞতা হয়েছে।”

জাতীয় দলের অধিনায়ক পর্বের সময় নিজের অভিজ্ঞতাও স্বীকার করেছেন মহারাজ। জানিয়েছেন, “একটা সময় ছয়জন দলকে নেতৃত্ব দিত। আমি রাহুলের পাশে দাঁড়াই যখন ও ওয়ানডে থেকে কার্যত বাদ পড়তে চলেছিল। ওঁদের মতামত নিয়ে দল বাছাই করেছি। ক্রিকেটীয় পরিবেশে এমন ঘটনা নিশ্চয় চোখ এড়িয়ে যাবে না! স্রেফ রানের জন্য নয়, মানুষ মনে রাখে নেতা হিসেবে কী করতে পেরেছি।”

বন্ধন ব্যাঙ্কের ইভেন্টে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় এবং সিইও-এমডি চন্দ্রশেখর ঘোষ (এক্সপ্রেস ফটো পার্থ পাল)

বোর্ড থেকে সৌরভের বিদায় মোটেই মসৃণ হল না। একাধিক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সৌরভ আরও একটা টার্ম বোর্ড সভাপতি পদে থাকতে চেয়েছিলেন। তবে বোর্ড সদস্যরা তাতে আপত্তি জানায়। শ্রীনিবাসন নিজে বোর্ডের বৈঠকে প্রবল বিরোধিতা করেন। মহারাজকে প্রশাসক হিসাবে নন-পারফর্মার হিসাবে বলে দেন তিনি। এবং সেই সঙ্গে পরবর্তী বোর্ড প্রেসিডেন্ট হিসেবে রজার বিনির নাম প্রস্তাব করেন। তাঁকে সমর্থন জানান আইপিএলের বর্তমান চেয়ারম্যান রাজীব শুক্লাও।

আরও পড়ুন: আর বোর্ড সভাপতি নন সৌরভ! BCCI প্রেসিডেন্ট হিসেবে কত বেতন পেতেন দাদা

বোর্ডের বৈঠকে প্রকাশ্যে সমালোচিত সৌরভ ভেঙে পড়েন। বিধ্বস্ত হয়ে বোর্ডের বৈঠকে একদম শেষে বেরোন। আগামী ১৮ অক্টোবর বোর্ডের এজিএম। সেখানেই সরকারিভাবে পরবর্তী বোর্ড সভাপতি হিসেবে ঘোষণা করা হবে রজার বিনির নাম। বোর্ডের নির্বাচনের আগে সভাপতি পদে একমাত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন বিনি। নির্বাচনে তিনি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জিততে চলেছেন।

৬৭ বছরের রজার বিনি ১৯৮৩-তে ভারতের বিশ্বকাপ জয়ের অন্যতম স্থপতি ছিলেন। সেই সংস্করণের বিশ্বকাপে ৮ ম্যাচে ১৮ উইকেট নিয়ে টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ উইকেটশিকারী হয়েছিলেন। ১৯৮৫-তে ওয়ার্ল্ড সিরিজ চ্যাম্পিয়নশিপে অস্ট্রেলিয়ায় ১৭ উইকেট নিয়ে বল হাতে অপ্রতিরোধ্য ফর্মে ধরা দিয়েছিলেন। ২৭ টেস্ট এবং ৭২ ওয়ানডেতে খেলে রজার বিনি রান সংখ্যা যথাক্রমে ৮৩০, ৬২৯। আন্তর্জাতিক টেস্ট এবং ওয়ানডেতে উইকেট নিয়েছেন যথাক্রমে ৪৭ এবং ৭৭টি। তাঁর পুত্র স্টুয়ার্ট বিনিও আন্তর্জাতিক স্তরে ক্রিকেট খেলেছেন দেশের জার্সিতে।

আরও পড়ুন: এই চার বিতর্কেই হয়ত বোর্ডে ভরাডুবি সৌরভের! ছেড়ে কথা বললেন না শ্রীনিবাসনও

সৌরভ নিজে বোর্ড প্রেসিডেন্ট না হতে পারলে আইসিসির চেয়ারম্যান হওয়ার ইচ্ছাও প্রকাশ করেন। তবে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের খবর অনুযায়ী, বোর্ডের তরফে তাঁকে জানিয়ে দেওয়া হয়, সৌরভ আইসিসি চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন জমা দিলে বিসিসিআই সমর্থন করবে না।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Sports news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Sourav ganguly after ouster from bcci speaks for the first time in an event