বিরাট সরতেই কোহলি-ভক্তদের টার্গেট সৌরভ-শাহকে! বেনজির ডামাডোলে ভারতীয় ক্রিকেট

সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের সঙ্গে কোহলি সম্পর্ক নিয়ে বেশ কিছুদিন আলোচনা চলছে। এমন অবস্থায় কোহলির পদত্যাগে নেটিজেনদের টার্গেটে সৌরভ।

বোর্ডের সঙ্গে বেশ কিছুদিন ধরেই সম্পর্কের টানাপোড়েন চলছিল। প্রকাশ্যেই বোর্ড সভাপতির মন্তব্য খন্ডন করে বিতর্ক আকাশ ছুঁইয়ে দিয়েছিলেন কোহলি। আর তা শেষমেশ গিয়ে দাঁড়াল অধিনায়ক কোহলির তিন ফরম্যাটেই নেতৃত্ব থেকে সরে গিয়ে।

কোহলি স্বেচ্ছায় টি২০-র নেতৃত্ব ছেড়ে দিয়েছিলেন। তবে এরপরেই দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের ঠিক আগে বোর্ড আচমকাই ওয়ানডের নেতৃত্ব থেকে কোহলিকে সরিয়ে দেন। রোহিতকে নেতা হিসেবে বেছে নেওয়া হয়।

এই ঘটনার ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে সৌরভ বলে দিয়েছিলেন, কোহলিকে টি২০-র নেতৃত্ব না ছাড়ার জন্য অনুরোধ করা হয়েছিল। তবে কোহলি সরে দাঁড়ানোয় বোর্ডের পক্ষে সীমিত ওভারের ফরম্যাটে পৃথক অধিনায়ক নিয়ে চলা সম্ভব হয়নি।

আরও পড়ুন: টেস্টের নেতৃত্বেও ছেঁটে ফেলতে পারেন সৌরভরা, আগাম বুঝেই বিরাট সিদ্ধান্ত! বিস্ফোরক সানি

এর পরেই বিষ্ফোরক ভঙ্গিতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিমানে ওঠার আগে কোহলি বলে যান, বোর্ডের তরফে টি২০;র নেতৃত্ব ছাড়ার জন্য তাঁর কাছে কোনও অনুরোধই আসেনি। সৌরভ বনাম কোহলি দ্বন্দ্বে এরপরে প্রধান নির্বাচক চেতন শর্মা মুখ খুলে সৌরভের বক্তব্যকেই প্রাধান্য দেন।

এমন প্রতিকূল আবহেই দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সিরিজে হার এবং ২৪ ঘন্টার মধ্যে কোহলির টেস্ট অধিনায়কত্ব থেকে সরে দাঁড়ানো। কোহলির মেগা ঘোষণার পরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় তুমুল ট্রোলড হতে থাকেন বোর্ড সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় এবং জয় শাহ।

কোহলির সরে দাঁড়ানোর জন্য বোর্ডের দুই শীর্ষকর্তাকেই দায়ী করে একের পর এক ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন কোহলি ভক্তরা। দেখে নেওয়া যাক সেই সমস্ত টুইট-

ঘটনা হল, ৬৮ টেস্টে জাতীয় দলকে নেতৃত্ব দেওয়া কোহলি ৪০টি জয় সমেত টিম ইন্ডিয়ার সর্বকালের সফলতম টেস্ট ক্যাপ্টেন। ইংল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়ায় টেস্ট সিরিজ জেতা ক্যাপ্টেন কোহলির কেরিয়ারের উচ্চতম মাইকফলক। টেস্টে ৭ বছরের অধিনায়কত্বের এই কেরিয়ারে দাঁড়ি পড়ল শনিবার।

টেস্টে ভারতের সর্বকালের সেরা অধিনায়ক কোহলি। তারপরেই ৬০ টেস্টে ২৭ জয় নিয়ে এই তালিকায় দ্বিতীয় ধোনি। ২১ জয় নিয়ে সফলতমদের তালিকায় তৃতীয় সৌরভ।

সব দেশ মিলিয়ে সবথেকে বেশি জয়ের নিরিখে কোহলি তালিকায় চতুর্থ স্থানে। তাঁর আগে রয়েছেন গ্রেম স্মিথ (৫৩) রিকি পন্টিং (৪৮) এবং স্টিভ স্মিথ (৪১)। ২০১৪/১৫-য় অস্ট্রেলিয়া সফরের মাঝপথে ধোনি নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়ানোর পরে কোহলি অধিনায়ক হন।

আরও পড়ুন: ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত! কোহলি দায়িত্ব ছাড়ার পরে প্ৰথমবার মুখ খুললেন সৌরভ

কোহলির সরে দাঁড়ানোর পরে সৌরভ টুইট করে জানিয়েছেন, “বিরাটের অধিনায়কত্বে টিম ইন্ডিয়া তিন ফরম্যাটেই দ্রুত গতিতে এগিয়েছে। ওঁর সিদ্ধান্ত পুরোটাই ব্যক্তিগত। বোর্ড এই সিদ্ধান্তকে পুরোপুরি শ্রদ্ধা জানায়। জাতীয় দলকে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার জন্য কোহলি দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য থাকবেন। একজন গ্রেট প্লেয়ার, দারুণ করেছ।”

সচিব জয় শাহ-ও শনিবারের বিরাট-ঘোষণার পর টুইট করে জানান, “টেস্টের অধিনায়কত্ব পর্ব দারুণভাবে সামলানোর জন্য কোহলিকে শুভেচ্ছা। বিরাট জাতীয় দলে তুখোড় ফিট ইউনিট হিসাবে গড়ে তুলেছিল, যাঁরা দেশে-বিদেশে দুর্দান্ত পারফর্ম করে এসেছে। ইংল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়ায় টেস্ট জয় বরাবরের মত স্পেশ্যাল।”

সৌরভ-জয় শাহের এই বিরাট-বন্দনাতেও অবশ্য পরিস্থিতি শান্ত হচ্ছে না। সোশ্যাল মিডিয়ায় আপাতত দুজনই বিরাট ভক্তদের আক্রমণের মুখে।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Sports news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Sourav ganguly trolled by a section of netizen after virat kohli decides to step down as test captain

Next Story
‘বন্ধু’ কোহলির বিদায়ে আবেগ উপুড় করলেন রোহিত! ছবি দিয়ে বিশেষ বার্তা হিটম্যানের