বড় খবর

হৃতিকের প্রাক্তন স্ত্রীর সঙ্গে নাইটক্লাবে কী করছিলেন, বলে দিলেন রায়না

এই কারণেই নির্ধারিত সংখ্যকের বেশি ব্যক্তি কোনো পানশালা বা পাবে জড়ো হতে পারেন না। এই সংক্রান্ত নিয়ম ভেঙেই পুলিশের জালে রায়না, গুরু রানধাওয়া।

নাইটক্লাবে হানা দিয়ে সুরেশ রায়না সহ বলিউডের একাধিক তারকাকে কোভিড নিয়ম ভাঙার জন্য গ্রেফতার করেছিল মুম্বই পুলিশ। অভিযুক্তদের তালিকায় ছিলেন হৃতিকের প্রাক্তন স্ত্রী সুজান খান সহ একাধিক বলি তারকা। পরে জামিনে ছাড়াও পেয়েছেন তারকা ক্রিকেটার। তবে ক্রিকেটারের ভাবমূর্তিতে যথেষ্ট কালি লেগেছে। এমন অবস্থায় সুরেশ রায়নার তরফে ঘটনা জানানো হল রীতিমত বিবৃতি প্রকাশ করে।

সুরেশ রায়নার ম্যানেজমেন্টের পক্ষ থেকে বিবৃতিতে জানানো হয়েছে। রায়না মুম্বইয়ে একটি শ্যুটিংয়ে অংশ নিতে গিয়েছিলেন। সেই শ্যুট মাঝরাত পর্যন্ত গড়ায়। ডিনার করার জন্যই এক বন্ধুর আমন্ত্রণে অন্ধেরির সেই নাইটক্লাবে হাজির হয়েছিলেন তিনি। শ্যুটিংয়ের শেষেই দিল্লি যাওয়ার ফ্লাইট ছিল তাঁর।

আরো পড়ুন: রাত আড়াইটেয় পানশালা থেকে গ্রেফতার রায়না, রানধাওয়া! ভয়ঙ্কর অভিযোগ পুলিশের

মুম্বইয়ের সাম্প্রতিককালের কোভিড নিয়মের বিষয়ে অবহিত ছিলেন না তিনি। এমন ঘটনা নজরে আসতেই তিনি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যথোপযুক্ত সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন। অনিচ্ছাকৃত এমন ঘটনার জন্য রায়নার পক্ষ থেকে দুঃখপ্রকাশও করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ক্রিকেটার সুরেশ রায়নাকে মুম্বই বিমানবন্দরের কাছে ড্রাগনফ্লাই ক্লাবে তল্লাশি চালিয়ে গ্রেফতার করা হয়েছিল মঙ্গলবার রাতে। পরে যদিও ব্যক্তিগত জামিনে মুক্তি দেওয়া হয়েছে।

রাত আড়াইটার সময় রেইডের সময় মোট ৩৪ জনকে আটক করা হয়। তার মধ্যে ড্রাগনফ্লাই ক্লাবের সাত কর্মীও রয়েছেন। কোভিড সংক্রান্ত নিয়মনীতি ভঙ্গ করায় গ্রেফতার করা হয়েছে অভিযুক্তদের।এমনটাই বলেছিল মুম্বই পুলিশ।

সাহার পুলিশ থানার সিনিয়র আধিকারিক জানান, ধৃতদের মধ্যেই ছিলেন ক্রিকেটার সুরেশ রায়না। রায়না ছাড়াও সেই ক্লাবে সেই সময় হাজির ছিলেন হৃতিক রোশনের প্রাক্তন স্ত্রী সুজান খান, গায়ক গুরু রানধাওয়া। বাদশাও ছিলেন। তবে পুলিশের হানা দেওয়ার আগেই তিনি ক্লাব ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন বলে খবর। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দন্ডবিধির ১৮৮, ২৬৯ এবং ৩৪ নম্বর ধারায় কেস দেওয়া হয়েছে।

মুম্বইয়ে বর্তমানে করোনা সংক্রমণের কারণে নাইট কারফিউ চলছে। ব্রিটেন থেকে ফেরত যাত্রীদের ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইন পর্ব কাটাতে হবে, এমন নির্দেশিকাও জারি করেছে মহারাষ্ট্র সরকার। ডিসেম্বর মাসের ২২ তারিখ থেকে জানুয়ারির ৫ তারিখ পর্যন্ত এই নিয়ম বলবৎ থাকছে। এই কারণেই নির্ধারিত সংখ্যকের বেশি ব্যক্তি কোনো পানশালা বা পাবে জড়ো হতে পারেন না।

কোভিড সংক্রান্ত নিয়ম ভঙ্গ করছিল অন্ধেরির এক বিখ্যাত ড্রাগনফ্লাই ক্লাব। তারপরেই হানা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় মুম্বই পুলিশ। সেখানেই নাম জড়িয়ে যায় রায়না, গুরু রানধাওয়ার।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Sports news here. You can also read all the Sports news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Suresh raina statement after he is booked by mumbai police for violating covid protocols

Next Story
শামির জন্য অজি ক্রিকেটে ডামাডোল, প্রকাশ্যেই চ্যাপেলকে ধুয়ে দিলেন স্মিথ
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com