scorecardresearch

বড় খবর

প্রয়াত পেলে, মেসির বিশ্বকাপ পাওয়ার বছরেই শোকে ছারখার দুনিয়া

পেলের মৃত্যুতে শোকে মুষড়ে পড়ল দুনিয়া

প্রয়াত পেলে, মেসির বিশ্বকাপ পাওয়ার বছরেই শোকে ছারখার দুনিয়া

চলতি বছরেই মেসির হাতে বিশ্বকাপ উঠেছে। আনন্দে উদ্বেল হয়ে উঠেছে দুনিয়া। তবে বছর পেরোতে না পেরোতেই তীব্র দুঃসংবাদ আছড়ে ফেলল ফুটবল দুনিয়াকে। ৮২ বছরে প্রয়াত হলেন সর্বকালের শ্রেষ্ঠ কিংবদন্তি পেলে।

প্রায় এক মাস ধরে ভর্তি ছিলেন হাসপাতালে। ক্রিসমাস কেটেছিল হাসপাতালে পরিবারের সঙ্গে। তবে নতুন বছর আর দেখা হল না কিংবদন্তির। পেলের এজেন্ট জো ফ্রাগা তাঁর মৃত্যুর খবর কনফার্ম করেছেন।

সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ কিংবদন্তি হিসাবে ধরে নেওয়া হয় পেলেকে। প্রায় দুই দশক ম্যাজিক দেখিয়েছেন সাম্বা ফুটবলের। ব্রাজিলের ক্লাব স্যান্টোস এবং জাতীয় দলের হয়ে মাঠে নেমে গড়েছেন একের পর এক কীর্তি। তিনটে বিশ্বকাপ জিতেছেন। তবে এক লহমায় সব অতীত হয়ে গেল বৃহস্পতিবারের পর।

বেশ কয়েকসপ্তাহ ধরেই ক্যান্সারের বিরুদ্ধে অসম লড়াই করছিলেন ফুটবল সম্রাট। ক্যান্সারে নতুন করে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। তবে পরিস্থিতি ক্রমশ অবনতি ঘটছিল।

ব্রাজিলকে ফুটবলকে জনপ্রিয়তার শীর্ষে পৌঁছে দিয়েছিলেন। জনপ্রিয়তার সেই ফল্গুধারা এখনও বহমান। সাও পাওলোর রাস্তায় মোজায় কাপড় ভরে ফুটবলে লাথি মারা শুরু। তারপরে পেশাদারি ফুটবলে পা রাখার পর একের পর এক এভারেস্ট ছুঁয়েছেন। হয়ে উঠেছেন আস্ত এক মিথ।

ফুটবল জগতে সেরাদের আসনে মেসি-মারাদোনা-রোনাল্ডোর সঙ্গেই একই নিঃশ্বাসে উচ্চারিত হয় পেলের নাম। গত কয়েকবছর ধরেই গৃহবন্দি হয়ে পড়েছিলেন। শারীরিক অসুস্থতার কারণে। কোনও অনুষ্ঠানে যেতেন না। হুইলচেয়ার ছিল সর্বক্ষণের সঙ্গী। কিছুদিন আগেই ১৯৭০-এ বিশ্বজয়ী ব্রাজিল দলের জয়কে স্মরণীয় করে রাখতে তাঁর মূর্তি উন্মোচনের অনুষ্ঠানেও হাজির থাকতে পারেননি। ৮০ তম জন্মদিন পালন করেছিলেন পরিবারের সঙ্গে বিচ হোমে।

১৯৪০-এর ২৩ অক্টোবর জন্ম মিনাস গ্রেসিয়াসে। বাবা ছিলেন অপেশাদার ফুটবলার, যাঁর ফুটবলার হওয়ার স্বপ্ন চূর্ণ হয়ে গিয়েছিল হাঁটুর চোটে। তাঁর কাছেই ফুটবলে প্ৰথম হাতেখড়ি।

স্কিলের বিচ্ছুরণ ঘটিয়ে পেলে নিজের কেরিয়ারে ১২৮১ গোল করেছেন ১৩৬৬ ম্যাচে। ফিফার দেওয়া তথ্য এমনটাই বলছে। ম্যাচ পিছু গোলের সংখ্যা ০.৯৪টি। এর মধ্যে বেশ কিছু ম্যাচ ফ্রেন্ডলি অথবা অর্ধ-পেশাদার জগতে খেলা হয়েছিল যখন মিলিটারি বিভাগে কাজ করার সময়ে। বিশ্বের একমাত্র ফুটবলার হিসাবে তিন-তিনটে বিশ্বকাপ জয় করেছেন। পেশাদারি ক্ষেত্রে পেলে ৮১২ ম্যাচে ৭৫৭ গোল করেছেন।

বছর দুয়েক আগেই অকালে কাঁদিয়ে বিদায় নিয়েছিলেন ফুটবল রাজপুত্র মারাডোনা। এবার চলে গেলেন সম্রাট পেলেও। ফুটবল বিশ্ব আক্ষরিক অর্থেই অনাথ হয়ে গেল।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Sports news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Three world cup winner pele passes away at 82 after one month in hospital