‘ক্লান্ত’ কোহলির সঙ্গে বোর্ডের সম্পর্ক তলানিতে! তাই কি টেস্ট নেতৃত্বে পদত্যাগ

বিরাট কোহলি ফের একবার হৈচৈ বাঁধিয়ে টেস্টের নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। কিন্তু হঠাৎ কেন পদত্যাগ। প্রশ্ন থাকছেই।

কোহলির আচমকা পদত্যাগ ক্রিকেটবিশ্বকে অবাক করে দিয়েছে। আইপিএলের আগে গত সেপ্টেম্বরে টি২০-র অধিনায়কত্ব ছাড়ার পরে কোহলি জানিয়েছিলেন ওয়ার্কলোড ম্যানেজমেন্টের কারণেই টি২০-র নেতৃত্ব থেকে সরছেন তিনি।

টি২০-র নেতৃত্ব ছাড়ার পরে কোহলিকে আবার দক্ষিণ আফ্রিকায় সফরের দল নির্বাচনের ঠিক আগে ওয়ানডের অধিনায়কত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয় বোর্ডের তরফে। পরে এই সিদ্ধান্তের ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে বোর্ড সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় এবং নির্বাচক প্রধান চেতন শর্মা জানিয়ে দেন, সীমিত ওভারের ক্রিকেটে দুজন আলাদা আলাদা নেতা চায়নি বোর্ড। এমন টেনশনের আবহেই প্রোটিয়াজ সফরে টেস্ট সিরিজ হারের ২৪ ঘন্টার মধ্যে কোহলির পদত্যাগ।

আরও পড়ুন: বিরাট সরতেই কোহলি-ভক্তদের টার্গেট সৌরভ-শাহকে! বেনজির ডামাডোলে ভারতীয় ক্রিকেট

সংবাদসংস্থা সূত্রের খবর, দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে যাওয়ার আগে বিষ্ফোরক প্রেস কনফারেন্সের পরে বোর্ডের সঙ্গে কোহলির সম্পর্কের অবনতি ঘটেছিল।

কোহলি এই দড়ি টানাটানিতে রীতিমত ক্লান্ত হয়ে পড়েছিল। আর কোহলির পদত্যাগ বোর্ড যে গ্রহণ করে নিল, তা সচিব জয় শাহের অভিনন্দন বার্তাতেই সিলমোহর দিয়ে দিয়েছে।

বোর্ডের প্রেস রিলিজে জয় শাহ জানিয়েছেন, “টিম ইন্ডিয়ার অন্যতম সফল অধিনায়ক কোহলি। ওঁর ক্রিকেটীয় রেকর্ড এবং দলের প্রতি অবদান অদ্বিতীয়। ৪০ টেস্টে যে ও দলকে টেস্ট জিতিয়েছে, তাতেই প্রমাণিত ও সামনে থেকে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছে দারুণভাবে। দেশ এবং দেশের বাইরে- অস্ট্রেলিয়া, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, ইংল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা, সাউথ আফ্রিকায় বেশ কিছু স্মরণীয় জয় পেয়েছে কোহলির ইন্ডিয়া। যাঁরা ভবিষ্যতে দেশের জার্সিতে খেলতে নামবে, তাঁদের কাছে ও সাক্ষাৎ অনুপ্রেরণা। ভবিষ্যতের জন্য কোহলিকে অনেক শুভেচ্ছা রইল। আশা করি আগামীদিনেও দলের প্রতি ও অসামান্য অবদান রেখে যাবে।”

আরও পড়ুন: টেস্টের নেতৃত্বেও ছেঁটে ফেলতে পারেন সৌরভরা, আগাম বুঝেই বিরাট সিদ্ধান্ত! বিস্ফোরক সানি

বোর্ডের সঙ্গে বেশ কিছুদিন ধরেই সম্পর্কের টানাপোড়েন চলছিল। প্রকাশ্যেই বোর্ড সভাপতির মন্তব্য খন্ডন করে বিতর্ক আকাশ ছুঁইয়ে দিয়েছিলেন কোহলি। আর তা শেষমেশ গিয়ে দাঁড়াল অধিনায়ক কোহলির তিন ফরম্যাটেই নেতৃত্ব থেকে সরে গিয়ে।

কোহলি স্বেচ্ছায় টি২০-র নেতৃত্ব ছেড়ে দিয়েছিলেন। তবে এরপরেই দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের ঠিক আগে বোর্ড আচমকাই ওয়ানডের নেতৃত্ব থেকে কোহলিকে সরিয়ে দেন। রোহিতকে নেতা হিসেবে বেছে নেওয়া হয়।

আরও পড়ুন: ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত! কোহলি দায়িত্ব ছাড়ার পরে প্ৰথমবার মুখ খুললেন সৌরভ

এই ঘটনার ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে সৌরভ বলে দিয়েছিলেন, কোহলিকে টি২০-র নেতৃত্ব না ছাড়ার জন্য অনুরোধ করা হয়েছিল। তবে কোহলি সরে দাঁড়ানোয় বোর্ডের পক্ষে সীমিত ওভারের ফরম্যাটে পৃথক অধিনায়ক নিয়ে চলা সম্ভব হয়নি।

এর পরেই বিষ্ফোরক ভঙ্গিতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিমানে ওঠার আগে কোহলি বলে যান, বোর্ডের তরফে টি২০;র নেতৃত্ব ছাড়ার জন্য তাঁর কাছে কোনও অনুরোধই আসেনি। সৌরভ বনাম কোহলি দ্বন্দ্বে এরপরে প্রধান নির্বাচক চেতন শর্মা মুখ খুলে সৌরভের বক্তব্যকেই প্রাধান্য দেন।

এমন প্রতিকূল আবহেই দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সিরিজে হার এবং ২৪ ঘন্টার মধ্যে কোহলির টেস্ট অধিনায়কত্ব থেকে সরে দাঁড়ানো। 

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Sports news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Tired virat kohli was miffed at how he was removed from odi captaincy report

Next Story
বিরাট সরতেই কোহলি-ভক্তদের টার্গেট সৌরভ-শাহকে! বেনজির ডামাডোলে ভারতীয় ক্রিকেট