scorecardresearch

বড় খবর

দিনের বাছাই খেলার খবর: জাতীয় দলেও কি নেপোটিজম, ধোনির প্রশংসা, অব্যবস্থা পাক ক্রিকেটে

দিনের সেরা খবর এক ক্লিকে- ভারতীয় ক্রিকেটে স্বজন পোষণ। ধোনিকে নিয়ে আলোচনা অব্যাহত। পাকিস্তান ক্রিকেটে করোনার হানা। বাতিল এবারের ডেভিস কাপ।

ভারতীয় ক্রিকেটে নেপোটিজম কতটা সত্যি? এখনও আলোচনায় ধোনি। ব্যতিব্যস্ত পাক ক্রিকেট। বাতিল করে দেওয়া হল ডেভিস কাপ।

ভারতীয় ক্রিকেট ও স্বজন পোষণ

পুত্র অর্জুনের সঙ্গে শচীন

ভারতীয় ক্রিকেটও কি নেপটিজমের শিকার! এমন প্রশ্ন সটান উড়িয়ে দিচ্ছেন স্বয়ং আকাশ চোপড়া। সুশান্ত সিং রাজপুতের আত্মহত্যার পর থেকেই স্বজনপোষন নীতি নিয়ে সরব হয়েছেন বিভিন্ন পেশার মানুষ।

এমন আবহে প্রশ্ন ওঠে যায়, স্বজন পোষণ থেকে ভারতীয় ক্রিকেট দলও মুক্ত কীনা। শচীন পুত্র অর্জুনকে উদ্দেশ্যে করে বেশ কিছুদিন ধরেই আলোচনা চলছে। এরপরেই নিজের ইউটিউব চ্যানেলে এই বিষয়ে মুখ খুললেন আকাশ চোপড়া। “অর্জুনকে নিয়ে অনেক কথাই হচ্ছে। তবে শচীনের ছেলে বলেই ওকে কেউ সবকিছু প্লেটে করে সাজিয়ে দেয়নি। ইন্ডিয়ান ক্রিকেট দলে ও মোটেই সহজে সুযোগ পায়নি। অনুর্দ্ধ ১৯ পর্যায়ের ক্রিকেটে এমন কোনো নির্বাচন ঘটেনি। যাকেই জাতীয় দলে নেওয়া হয়েছে তা কেবলমাত্র পারফরমেন্স এর কারণেই।”

শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ইয়ুথ টেস্ট ম্যাচে ২০১৮ এ অনুর্দ্ধ ১৯ যুব দলে সুযোগ পেয়েছিলেন অর্জুন। মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের নেট বোলার হিসাবে বোলিং করলেও এখনো শচীন-পুত্রের কাছে কোনো আইপিএল চুক্তি নেই। শুধু আইপিএলই নয়, জাতীয় দলের সঙ্গে বিদেশ সফরে গিয়েও নেট বোলারের ভূমিকা পালন করেন অর্জুন। ইংল্যান্ডে বেশ কয়েকবার গিয়েছেন তিনি। ইংল্যান্ডের নেটে বোলিং করে জনি বেয়ার্স্ট কেও আহত করেছিলেন একবার। তারপর সেই সেশনে আর ব্যাটিংই করেননি ইংল্যান্ডের তারকা। ২০১৭ সালে মহিলা বিশ্বকাপের ফাইনালের আগে জাতীয় মহিলা দলের অনুশীলনে নেট বোলার হিসাবেও দেখা গিয়েছে অর্জুনকে।

ধোনির প্রশংসা

মহেন্দ্র সিং ধোনি

জাতীয় দলের জার্সিতে নেই। স্বেচ্ছা নির্বাসনে রয়েছেন। তবুও মহেন্দ্র সিং ধোনিকে নিয়ে ক্রিকেট বিশ্বে আলোচনার খামতি নেই। সতীর্থ থেকে প্রাক্তন ক্রিকেটার, ক্রিকেট বিশেষজ্ঞ সকলেই ধোনিকে নিয়ে নিজস্ব মতামত রাখেন। বিপক্ষ দলের ক্রিকেটাররাও ধোনিকে নিয়ে প্রশংসা উপুড় করে দেন।

এবার সেই তালিকাতেই নাম লেখালেন আফগানিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটার মহম্মদ নবি। তিনি জানিয়ে দিলেন ধোনিই চিরশ্রেষ্ঠ। আনিস সাজানের সঙ্গে সাম্প্রতিক এক সাক্ষাৎকারে নবি জানিয়েছেন, “ধোনিই সেরা। এ নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। নতুনদের সাহায্য করার জন্য ওর দরজা ২৪ ঘণ্টাই খোলা। ও ক্রিকেটারদের সঙ্গে চা পান করতে করতে গল্প করতে থাকে। ২-৩ বার ওঁর সঙ্গে কথা হয়েছে। সত্যি একজন অসাধারণ মানুষ।” এই প্রথমবার নয়। এর আগেও আফগান ক্রিকেটাররা ধোনিকে নিয়ে নিজেদের মুগ্ধতার কথা স্বীকাই করে নিয়েছেন। উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান মহম্মদ শেহজাদ তো ধোনিকেও ‘গুরু’ মানেন। একাধিকবার একথা জানিয়েছেন। পাশাপাশি, আইপিএলে সানরাইজার্স হায়দরাবাদে খেলার সময়ে তারকা স্পিনার রশিদ খানও ধোনিকে নিয়ে উছ্বাস প্রকাশ করেছেন আগে।

পাক ক্রিকেটে সমস্যা

হাফিজকে নিয়ে সমস্যা বাড়ল পাক ক্রিকেটে

করোনা-টেস্ট নিয়ে বিড়ম্বনার অন্ত নেই পাক ক্রিকেট বোর্ডের। ১০ জন ক্রিকেটার এবং একজন সাপোর্ট স্টাফ করোনা আক্রান্ত হওয়ার আসন্ন ইংল্যান্ড সফর নিয়েই প্রশ্নচিহ্ন উঠে গিয়েছে। এর মধ্যেই মহম্মদ হাফিজকে নিয়ে বিব্রত হতে হচ্ছে পিসিবিকে।

পাক ক্রিকেট বোর্ডের তরফে যে করোনা টেস্টিং হয়, সেখানে মঙ্গলবারে হাফিজ পজিটিভ ধরা পড়েন। তারপর ব্যক্তিগত উদ্যোগে হাফিজ করোনা পরীক্ষা করায় নেতিবাচক রিপোর্ট আসে। ব্যক্তিগত উদ্যোগে করোনা পরীক্ষা করে পিসিবির তোপের মুখে পড়েন পাক অলরাউন্ডার। পাক বোর্ডের তরফে প্রকাশ্যেই হাফিজের কীর্তিতে অসন্তোষ প্রকাশ করা হয়। তবে বিড়ম্বনার এখানেই ইতি নয়। পাক ক্রিকেটারদের করোনা-পরীক্ষা করার জন্য যে হাসপাতালের সঙ্গে পিসিবি চুক্তিবদ্ধ সেই সওকত খানুম মেমোরিয়াল হাসপাতালে তরফে ফের একবার হাফিজের টেস্টিং করা হয়। যথারীতি তাতে আরো একবার করোনা-পজিটিভ ধরা পড়েছেন তিনি।

এরপরেই দৃশ্যতই বিব্রত হয়েছে পাক বোর্ড। কিন্তু কেন হাফিজ ব্যক্তিগতভাবে করোনা পরীক্ষা করলেন। ক্রিকেটারের এক ঘনিষ্ঠ ব্যক্তি জানিয়েছেন, “প্রথম টেস্টের পর হাফিজ বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। নিজের মানসিক স্থিতির জন্য হাফিজ করোনা টেস্ট করে। পিসিবিকে অপদস্থ করার কোনো অভিপ্রায় ছিল না ওঁর।”

বাতিল ডেভিস কাপ

ডেভিস কাপ

অলিম্পিক, উইম্বলডন সহ একাধিক মেগা টুর্নামেন্ট করোনার কারণে হয় বাতিলের খাতায়, নাহয় পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। আইপিএল, ফ্রেঞ্চ ওপেন, টি২০ বিশ্বকাপের ভাগ্য এখনো চূড়ান্ত নয়। এমন সংশয়ের মধ্যেই বাতিল করা হল ডেভিস কাপ। টেনিসের সর্বোচ্চ সংস্থার পক্ষে জানানো হয়েছে, ২০২১ এ যথারীতি খেলা হবে সূচি মেনে।

আন্তর্জাতিক টেনিস ফেডারেশনের তরফে জানানো হয়েছে, ওয়ার্ল্ড গ্রুপ ১ এবং ওয়ার্ল্ড গ্রুপ ২ এর প্রিলিমিনারি ম্যাচ খেলা হবে আগামী বছরের মার্চ অথবা সেপ্টেম্বরে। নভেম্বর মাসের ২২ তারিখ থেকে ফাইনালসের খেলাগুলো মাদ্রিদে আয়োজিত হবে।

আইটিএফ এর পক্ষ থেকে আরো জানানো হয়েছে, ২০২০ এর ফাইনালস এ খেলার জন্য ইতিমধ্যেই ১৮ টি দেশ যোগ্যতা অর্জন করেছিল। সেই দেশগুলি সরাসরি ২০২১ এর ফাইনালসে খেলবে। এছাড়াও চলতি বছরে মহিলা ফেড কাপের ফাইনালসও বাতিল করা হয়েছে। সেই বাতিল হওয়া ম্যাচ গুলি আগামী বছরের এপ্রিলের ১৩-১৮ তারিখে হাঙ্গেরির বুদাপেস্টে খেলা হবে। সূচি অনুযায়ী ফেড কাপের ফাইনালস হওয়ার কথা এপ্রিলে। তবে অতিমারীর কারণে তা প্রাথমিকভাবে স্থগিত করে দেওয়া হয়।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Sports news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Todays top news headlines sports latest updates 26 june