বড় খবর

টোকিওয় জোড়া ইতিহাস সোমবার! সোনা-রুপোয় দেশকে মুড়ে দিলেন অবনী-যোগেশ

২০১২ সালে দুর্ঘটনায় পক্ষাঘাতগ্রস্ত হয়ে পড়েছিলেন অবনী। তারপরে ফিরে আসার নিজেকে চেনানোর লড়াই শুরু হয় একান্তে।

টোকিওয় একের পর এক ইতিহাস গড়ছে ভারত। ভারতের প্যারালিম্পিক শ্যুটার অবনী লেখারা চলতি ইভেন্টে প্ৰথম সোনা জিতলেন। সোমবার ১০ মিটার এয়ার রাইফেল ইভেন্টে বাজিমাত করেন তিনি। সোমবারই F56 ক্যাটাগরিতে ডিসকাস থ্রোয়ার যোগেশ কাথুনিয়া রুপো জিতলেন। ডিসকাস থ্রোয়িংয়ে ৪৪.৩৮ মিটার দূরত্ব পেরিয়ে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেন তিনি।

অবনী লেখারা ইতিহাস গড়ে সোনা জিতলেন ফাইনালে টোটাল ২৪৯.৬ স্কোর করে। কোয়ালিফিকেশন রাউন্ডে ৬২১.৭ স্কোরে সপ্তম স্থান অর্জন করে ফাইনালে পৌঁছেছিলেন তিনি। তারপরে গোটাটাই ইতিহাস।

২০১২ সালে দুর্ঘটনায় পক্ষাঘাতগ্রস্ত হয়ে পড়েছিলেন অবনী। তারপরে ফিরে আসার নিজেকে চেনানোর লড়াই শুরু হয় একান্তে। টোকিওয় যেন সেই বৃত্ত সম্পন্ন হল। রাজস্থানের জয়পুরের বাসিন্দা অবনী অনুশীলন সারেন জেডিএ শ্যুটিং রেঞ্জে। অবনির কৃতিত্বে উচ্ছ্বসিত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি থেকে অলিম্পিকে ভারতের প্ৰথম ব্যক্তিগত সোনাজয়ী অভিনব বিন্দ্রাও। টোকিওয় মাইকফলক গড়ার পরেই অবনীর উদ্দেশ্যে বার্তা পাঠিয়েছেন মোদি, বিন্দ্রা।

অবনীর সঙ্গেই এদিন সোনাজয়ীদের তালিকায় নাম লিখিয়ে ফেলতে পারতেন যোগেশ কাথুনিয়াও। অল্পের জন্য সোনা জয়ের সুযোগ হারালেন নতুন দিল্লির কিররিমল কলেজের ২৪ বছরের বি.কম গ্র্যাজুয়েটের ছাত্র যোগেশ। রবিবার ভারত হাই জাম্প এবং ডিসকাস থ্রো-য়ে যথাক্রমে রুপো এবং ব্রোঞ্জ জিতেছিল। তবে বিতর্কের পরে সাময়িকভাবে সেই সরকারি ঘোষণা স্থগিত রয়েছে।

যোগেশের কাহিনী রুপোলি পর্দার গল্পকেও হার মানাবে। মাত্র ৮ বছরে পক্ষাঘাতগ্রস্ত হয়ে পড়েন। তারপরে হাল না ছাড়ার অনবদ্য কীর্তি। ডিসকাস থ্রোয়িংয়ে সোনা জিতলেন ব্রাজিলের ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ক্লদিনে বাতিস্তা ডস স্যান্টোস (৪৫.৫৯ মিটার)। ব্রোঞ্জ জিতলেন কিউবার লিওনার্দো ডায়াজ আলদানা (৪৩.৩৬ মিটার)।

আরও পড়ুন: ইতিহাসে ভাবিনা! টোকিওয় গর্বের মুহূর্ত গড়ে দেশকে রুপো দিলেন সোনার মেয়ে

২০১৯-এ ওয়ার্ল্ড প্যারা এথলিট চ্যাম্পিয়নশিপে ৪২.৫১ মিটার ডিসকাস থ্রোয়িংয়ে ব্রোঞ্জ জিতে পায়ারালিম্পিকের টিকিট নিশ্চিত করেছিলেন। তারও আগে বার্লিনে প্যারা এথলেটিক্স গ্রা পি-তে বিশ্ব রেকর্ড গড়েছিলেন তিনি।

শৈশব থেকেই এথলিট হওয়ার স্বপ্ন দেখতেন। তবে মাঝে শারীরিক প্রতিবন্ধকতায় সেই স্বপ্ন কার্যত অনেকটাই দূরে সরে গিয়েছিল। তবে কোচ সত্যপাল সিংয়ের সান্নিধ্যে এসে কেরিয়ারের আমূল ভোলবদল ঘটে। কয়েক বছর পরে যোগেশ নভাল সিংয়ের তত্ত্বাবধানে বিশ্বের সেরাদের মধ্যে নিজেকে তুলে ধরেন।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Sports news here. You can also read all the Sports news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Tokyo paralympics 2020 avani lekhara clinches gold in shooting yogesh kathuniya wins silver in discus throw

Next Story
ভারতের হারে ‘বলির পাঁঠা’ এই তারকা, বাদ পড়ছেন বাকি দুই টেস্টেই
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com