scorecardresearch

মাঠেই কিশোর কুমারের গান গাওয়ার অনুরোধ বীরুকে, পাক ক্রিকেটারের কীর্তি প্রকাশ্যে

বাইশ গজে বীরেন্দ্র শেওয়াগ মানেই ঝড় ওঠা। সেই ঝড়ের সঙ্গেই যে গানের কলি গুনগুনিয়ে ওঠেন তিনি। তা অনেকেই জানেন।

মাঠেই কিশোর কুমারের গান গাওয়ার অনুরোধ বীরুকে, পাক ক্রিকেটারের কীর্তি প্রকাশ্যে

শুধু ব্যাট হাতেই নয়, গান গেয়েও যে তিনি বিনোদন দিতে জানেন, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। বাইশ গজে বীরেন্দ্র শেওয়াগ মানেই ঝড় ওঠা। সেই ঝড়ের সঙ্গেই যে গানের কলি গুনগুনিয়ে ওঠেন তিনি। তা অনেকেই জানেন। তবে প্রতিপক্ষ ক্রিকেটাররাও যে তার গানের ভক্ত ছিলেন তা অনেকেই জানেন না। সেই ঘটনাই এবার প্রকাশ পেল সম্প্রতি।

ক্রিকবাজ-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এমনই অবাক করার মত ঘটনা শেয়ার করলেন নজফগরের নবাব। “ব্যাট করার সময় বরাবরই গান গাইতে পছন্দ করতাম। আমার প্রিয় গান হল ‘চলা যাতা হু, কিসি কি ধুন মে!’ মেজাজ যাই থাকুক না কেন, এই গাইতে সবসময় পছন্দ করি। মেজাজ ভালো করতে এই গানের জুড়ি নেই।”

আরো পড়ুন: শাস্ত্রী মিথ্যাবাদী! রোহিতের নির্বাচন নিয়ে বিশাল তোপ শেওয়াগের

এরপর শেওয়াগ আরো বলেন, “যখন ব্যাট হাতে রান পেতাম, গাইতাম ‘চিতিয়া কালাইয়া’র মত বলিউড গান। তবে রান না পেলেই ভগবানের ভজন শুনতাম।” এরপরেই চ্যাট শো-এর মডারেটর শেওয়াগকে জিজ্ঞাসা করেন, গান গাইতে মাঠে কেউ অনুরোধ করার মত ঘটনা ঘটেছে কিনা! শেওয়াগ তখন ইয়াসির হামিদের ঘটনা জানান।

“যখন খেলতাম, অনেকেই জানত না আমি ব্যাট করার সময় গান-ও করি। তবে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে একদিন এক ঘটনা ঘটে। ব্যাঙ্গালোরে এক টেস্টে আমি ১৫০ এর কাছাকাছি ব্যাট করছিলাম। ইয়াসির হানিফ শর্ট লেগে ফিল্ডিং করছিল। ও আমাকে ব্যাট করার সময় গান গাওয়ার অনুরোধ করে। আমিও রাজি হয়ে যাই। আমাকে কিশোর কুমারের গান করার কথা বলেছিল।”

এমনটা জানিয়ে বীরু আরো বলেন, “আমার ব্যাটিং দিয়ে যেমন পাক ক্রিকেটারদের বিনোদন দিয়েছিলাম, তেমনই গান গেয়েও আনন্দ দি-ই।” জাতীয় দলের হয়ে শেওয়াগ ১০৪ টেস্টে ৪৯.৩ গড়ে ৮৫৮৬ রান করেছেন। ২৩৫ ওডিআই ম্যাচে ৩৫ গড় নিয়ে করেছেন ৮২৭৩ রান।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Sports news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Virender sehwag was asked to sing kishor kumar song by pak cricketer