ভালো ব্যবহারেই আইপিএল কন্ট্রাক্ট পাওয়া যায় না, পাল্টা দিলেন লক্ষ্মণ

“অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের বার্তাই ছিল, আমি কোহলিকে স্লেজ করবো না। আমি চাই কোহলির ব্যাঙ্গালোর আমাকে ১ মিলিয়ন মার্কিন ডলারে নিক ছয় সপ্তাহে খেলার জন্য।”

আইপিএলে সুযোগ পাওয়ার জন্যই অজি ক্রিকেটাররা ভাবতীয় বিশেষ করে কোহলির সঙ্গে নরম সরম আচরণ করেন। এমনটাই জানিয়ে হৈচৈ ফেলে দিয়েছিলেন মাইকেল ক্লার্ক। এরই এবার পাল্টা দিলেন ভিভিএস লক্ষ্মণ।

স্টার স্পোর্টসের শো ক্রিকেট কানেক্টেড এ এসে প্রাক্তন তারকা জানাচ্ছেন, “ভারতীয় ক্রিকেটারদের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ন সম্পর্ক রাখলেই আইপিএল কন্ট্রাক্ট পাওয়া সম্ভব নয়। মেন্টর হিসাবে অকশন টেবিলে আমরা সেরকম আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারদেরই নি ই যাঁরা দেশের জার্সিতে দুরন্ত পারফর্ম করে। যাঁরা ফ্র্যাঞ্চাইজিতে অবদান রাখতে পারবে। কেবলমাত্র বন্ধুত্ব পাতিয়েই আইপিএলের কন্ট্রাক্ট পাওয়া যায় না।”

সানরাইজার্স হায়দরাবাদ দলের কোচিং দলের সদস্য ‘ভেরি ভেরি স্পেশাল’ ক্রিকেটার। তিনি নিজের অভিজ্ঞতা এনে বলেন, “কোনো ভারতীয় ক্রিকেটারের সঙ্গে ভালো ব্যবহার করেই আইপিএলের দল পাওয়া যায় না। কোনো ক্রিকেটারকে নেওয়ার আগে সেই ফ্রাঞ্চাইজি সংশ্লিষ্ট ক্রিকেটারের গুরুত্ব, ক্রিকেটীয় দক্ষতার মূল্যায়ন করে নেয়। সেই ক্রিকেটার টুর্নামেন্টে তাঁদের সাফল্য এনে দিতে পারবে কিনা তা যাচাই করা হয়। তারপরেই সেই ক্রিকেটার আইপিএলের কন্ট্রাক্ট পায়।”

ক্রিকবাজকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ক্লার্ক বিস্ফোরক ভাবে বলেছিলেন, “আন্তর্জাতিক ক্রিকেট হোক বা ঘরোয়া আইপিএলে আর্থিক দিক থেকে ভারত কতটা শক্তিশালী তা সবাই জানে। আমার মনে হয় অস্ট্রেলিয়া হোক বা বাকি দলগুলি ভারতের সামনে একটা পর্যায়ের পর আর আগ্রাসী হতে পারে না। কোহলি সহ অন্য ভারতীয় ক্রিকেটারদের কেউ স্লেজ করতে ভয় পায় কারণ এপ্রিলেই আবার ওদের সঙ্গে খেলতে হবে।”

এখানেই না থেমে ক্লার্কের আরো বক্তব্য ছিল, “অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের বার্তাই ছিল, আমি কোহলিকে স্লেজ করবো না। আমি চাই কোহলির ব্যাঙ্গালোর আমাকে ১ মিলিয়ন মার্কিন ডলারে নিক ছয় সপ্তাহে খেলার জন্য। ঠিক এই জায়গাতেই মনে হয়েছে অস্ট্রেলিয়ানরা নরম হয়ে পড়ছে। এমনটা দেখতে আমরা অভ্যস্ত ছিলাম না।”

ক্লার্কের বক্তব্যের সমালোচনা করেছেন কৃষ্ণমাচারি শ্রীকান্তও। তিনিও ক্রিকেট শো এর অনুষ্ঠানে জানিয়েছেন, “ক্লার্কের যুক্তি হাস্যকর। কেউ স্লেজ করে ম্যাচ জিততে পারে না। নাসের হুসেন কিংবা স্যার ভিভ রিচার্ডসকে জিজ্ঞাসা করা হোক। স্লেজিং করে রান তোলা কিংবা উইকেট পাওয়া যায় না। ভালো ক্রিকেট খেলার পাশাপাশি দৃঢ়তা দেখতে হবে। ভালো ব্যাটিং ও বোলিং করেই স্কোরবোর্ডে রান ও উইকেট পাওয়া সম্ভব।”

এদিকে, আইপিএল নিয়ে আশাবাদী লক্ষ্মণ। তিনি জানিয়েছেন, “বিশ্বের সমস্ত ক্রিকেট বোর্ডই মানবে আইপিএল একটা বড় টুর্নামেন্ট। বিশ্বকাপের আগে আইপিএল হলে তা মেগা টুর্নামেন্টের রিংটোন সেট করে দেবে।। আশাকরি দ্রুত পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যাবে। একবার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলেই আমি নিশ্চিত এবছরের ক্যালেন্ডারে আইপিএল থাকবেই।”

আইপিএলে সুযোগ পাওয়ার জন্যই অজি ক্রিকেটাররা ভাবতীয় বিশেষ করে কোহলির সঙ্গে নরম সরম আচরণ করেন। এমনটাই জানিয়ে হৈচৈ ফেলে দিয়েছিলেন মাইকেল ক্লার্ক। এরই এবার পাল্টা দিলেন ভিভিএস লক্ষ্মণ।

স্টার স্পোর্টসের শো ক্রিকেট কানেক্টেড এ এসে প্রাক্তন তারকা জানাচ্ছেন, “ভারতীয় ক্রিকেটারদের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ন সম্পর্ক রাখলেই আইপিএল কন্ট্রাক্ট পাওয়া সম্ভব নয়। মেন্টর হিসাবে অকশন টেবিলে আমরা সেরকম আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারদেরই নি ই যাঁরা দেশের জার্সিতে দুরন্ত পারফর্ম করে। যাঁরা ফ্র্যাঞ্চাইজিতে অবদান রাখতে পারবে। কেবলমাত্র বন্ধুত্ব পাতিয়েই আইপিএলের কন্ট্রাক্ট পাওয়া যায় না।”

সানরাইজার্স হায়দরাবাদ দলের কোচিং দলের সদস্য ‘ভেরি ভেরি স্পেশাল’ ক্রিকেটার। তিনি নিজের অভিজ্ঞতা এনে বলেন, “কোনো ভারতীয় ক্রিকেটারের সঙ্গে ভালো ব্যবহার করেই আইপিএলের দল পাওয়া যায় না। কোনো ক্রিকেটারকে নেওয়ার আগে সেই ফ্রাঞ্চাইজি সংশ্লিষ্ট ক্রিকেটারের গুরুত্ব, ক্রিকেটীয় দক্ষতার মূল্যায়ন করে নেয়। সেই ক্রিকেটার টুর্নামেন্টে তাঁদের সাফল্য এনে দিতে পারবে কিনা তা যাচাই করা হয়। তারপরেই সেই ক্রিকেটার আইপিএলের কন্ট্রাক্ট পায়।”

ক্রিকবাজকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ক্লার্ক বিস্ফোরক ভাবে বলেছিলেন, “আন্তর্জাতিক ক্রিকেট হোক বা ঘরোয়া আইপিএলে আর্থিক দিক থেকে ভারত কতটা শক্তিশালী তা সবাই জানে। আমার মনে হয় অস্ট্রেলিয়া হোক বা বাকি দলগুলি ভারতের সামনে একটা পর্যায়ের পর আর আগ্রাসী হতে পারে না। কোহলি সহ অন্য ভারতীয় ক্রিকেটারদের কেউ স্লেজ করতে ভয় পায় কারণ এপ্রিলেই আবার ওদের সঙ্গে খেলতে হবে।”

এখানেই না থেমে ক্লার্কের আরো বক্তব্য ছিল, “অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের বার্তাই ছিল, আমি কোহলিকে স্লেজ করবো না। আমি চাই কোহলির ব্যাঙ্গালোর আমাকে ১ মিলিয়ন মার্কিন ডলারে নিক ছয় সপ্তাহে খেলার জন্য। ঠিক এই জায়গাতেই মনে হয়েছে অস্ট্রেলিয়ানরা নরম হয়ে পড়ছে। এমনটা দেখতে আমরা অভ্যস্ত ছিলাম না।”

ক্লার্কের বক্তব্যের সমালোচনা করেছেন কৃষ্ণমাচারি শ্রীকান্তও। তিনিও ক্রিকেট শো এর অনুষ্ঠানে জানিয়েছেন, “ক্লার্কের যুক্তি হাস্যকর। কেউ স্লেজ করে ম্যাচ জিততে পারে না। নাসের হুসেন কিংবা স্যার ভিভ রিচার্ডসকে জিজ্ঞাসা করা হোক। স্লেজিং করে রান তোলা কিংবা উইকেট পাওয়া যায় না। ভালো ক্রিকেট খেলার পাশাপাশি দৃঢ়তা দেখতে হবে। ভালো ব্যাটিং ও বোলিং করেই স্কোরবোর্ডে রান ও উইকেট পাওয়া সম্ভব।”

এদিকে, আইপিএল নিয়ে আশাবাদী লক্ষ্মণ। তিনি জানিয়েছেন, “বিশ্বের সমস্ত ক্রিকেট বোর্ডই মানবে আইপিএল একটা বড় টুর্নামেন্ট। বিশ্বকাপের আগে আইপিএল হলে তা মেগা টুর্নামেন্টের রিংটোন সেট করে দেবে।। আশাকরি দ্রুত পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যাবে। একবার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলেই আমি নিশ্চিত এবছরের ক্যালেন্ডারে আইপিএল থাকবেই।”

Get the latest Bengali news and Sports news here. You can also read all the Sports news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Vvs laxman reacts to michael clarkes ipl comment

Next Story
‘আমি  প্রত্যেক বলে চার মারার কথাই ভাবছিলাম শুধু’
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com