scorecardresearch

বড় খবর
এক ফ্রেমে কেন্দ্রীয় কয়লামন্ত্রী ও কয়লা মাফিয়া, বিজেপিকে বিঁধলেন অভিষেক

বাবার তালিমে সফটওয়্যার দুনিয়া হাতের মুঠোয় তেরো বছরের খুদের

পাঁচ বছর বয়স থেকে কম্পিউটার গুলে খেয়েছে সে। কম্পিউটারে গেম খেলাই তার একমাত্র হবি। মাত্র ৯ বছর বয়সে মোবাইল অ্যাপ তৈরি করে চমকে দিয়েছে প্রযুক্তি বিশ্বকে।

বাবার তালিমে সফটওয়্যার দুনিয়া হাতের মুঠোয় তেরো বছরের খুদের

বয়স সত্যিই বারো কী তেরো। কিন্তু মগজ হার মানাচ্ছে তাবড় তাবড় বিজ্ঞানীদের। এই মাস্টারমাইন্ডের নাম আদিত্যন রাজেশ। ন’বছর বয়সেই মোবাইল অ্যাপলিকেশন বানিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছিল কেরলের এই খুদে। যা দেখে সফটওয়্যার কোম্পানিদের চোখ পর্যন্ত কপালে উঠেছিল। এবার দুবাইতে নিজেই ট্রাইনেট সলিউশনস নামে একটি সফটওয়্যার কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করে আবার শিরোনামে রাজেশ ।

পাঁচ বছর বয়স থেকে কম্পিউটার গুলে খেয়েছে সে। কম্পিউটারে গেম খেলাই তার একমাত্র হবি। মাত্র ন’বছর বয়সে অসাধ্য সাধন করে বিরক্তি বা একঘেয়ে জীবনকে নাশ করার অ্যাপ বানিয়েছিল। বর্তমানে চটজলদি লোগো ডিজাইন থেকে শুরু করে ক্লায়েন্টদের জন্য ওয়েবসাইট বানিয়ে ফেলে এই মাস্টারমাইন্ড। ইতিমধ্যে প্রায় ১২ টি কোম্পানির জন্য সে বানিয়ে ফেলেছে ফ্রি লোগো এবং ওয়েবসাইট।

আরও পড়ুন: ৫,০০০ টাকার কমে ফোন কিনতে চান না ভারতীয়রা

ছোট্ট খুদের রয়েছে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট। যেখানে ‘বায়ো’-র জায়গায় সে লিখে রেখেছে, “আমি কোড এবং আমার নিজের ডিজাইন করা অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করতে ভালোবাসি, পাশাপাশি গেম খেলতে।” এই বয়সে কিভাবে শিখল এমন কঠিন কোড? ও, বলা হয় নি, রাজেশ ইতিমধ্যে শারজার আমেরিকান ইউনিভার্সিটির ইনফরম্যাটিকসের ডিগ্রি অর্জন করেছে।

দুবাইয়ের এক ইংরেজি সংবাদপত্রকে রাজেশ জানিয়েছে, “আমি কেরালার থিরুভিলাতে জন্মগ্রহণ করেছি এবং যখন আমার বয়স পাঁচ, আমার পরিবার দুবাই চলে আসে। আমার বাবাই আমাকে প্রথমবার দেখিয়েছেন বিবিসি টাইপিং, বাচ্চাদের জন্য একটি ওয়েবসাইট যেখানে শিশুরা টাইপিং শিখতে পারে।”

বাবা রাজেশ এন রেঞ্জিনী নাইয়ার প্রথম ওয়েবসাইট ডিজাইনিং শিখিয়েছিলেন। তাঁদের কোম্পানিতে সম্প্রতি তিনজন কর্মচারী নিয়োগ করেছেন, যারা রাজেশের স্কুলের ছাত্র। তিনি জানিয়েছেন, এই মূহুর্তে প্রয়োজন আঠারো বা তার বেশি বয়সের কর্মচারীর। যাঁরা কোম্পানির ভার নিতে পারবেন। “ইতিমধ্যে আমরা বারোজনের বেশি ক্লায়েন্টের সঙ্গে কাজ করেছি, এবং তাদের ডিজাইন এবং কোডিং সার্ভিস পুরোপুরি বিনামূল্যে প্রদান করা হচ্ছে,” জানিয়েছেন তিনি।

Read the full story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Technology news download Indian Express Bengali App.

Web Title: 13 year old indian boy prodigy launches own software development company dubai