WhatsApp-এর বিরুদ্ধে দিল্লি হাইকোর্টের দ্বারস্থ কেন্দ্র, কিন্তু কেন?

আদালত এই মামলার শুনানি আগামী ২০ এপ্রিল পর্যন্ত পিছিয়ে দিয়েছে।

WhatsApp
প্রতীকী ছবি

নয়া প্রাইভেসি পলিসি কার্যকর যাতে না করতে পারে, সে জন্য দিল্লি হাইকোর্টে WhatsApp কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে জনস্বার্থ মামলায় হলফনামা দিল কেন্দ্র। যেহেতু মামলা বিচারাধীন তাই এই ইস্যুতে স্থগিতাদেশ দেওয়ার আবেদন জানাল কেন্দ্রীয় সরকার। এই জনস্বার্থ মামলায় অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়ায় গ্রাহকদের ব্যক্তিগত তথ্যসুরক্ষার বিষয়টি সুনিশ্চিত করার জন্য গাইডলাইন তৈরির আবেদন জানানো হয়েছে।

কেন্দ্র আদালতকে লিখিত আবেদনে জানিয়েছে, WhatsApp-এর প্রাইভেসি পলিসি কেন্দ্রীয় তথ্যপ্রযুক্তি আইন (২০১১) লঙ্ঘন করেছে। এই প্রাইভেসি পলিসির মাধ্যমে গ্রাহকদের কীরকম তথ্য WhatsApp সংগ্রহ করবে তা স্পষ্ট করা হয়নি। এমনকী তৃতীয় কোনও পক্ষের কাছে এই তথ্য ফাঁস হবে না এমন কোনও নিশ্চয়তা দেওয়া হয়নি বলে দাবি করেছে কেন্দ্র।

কেন্দ্রীয় তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রক আবেদনে আরও জানিয়েছে, সরকার ব্যক্তিগত তথ্যসুরক্ষা বিল, ২০১৯ লোকসভায় পেশ করেছে। এই বিল আইনে পরিণত হলে WhatsApp-এর মতো সংস্থা প্রাইভেসি পলিসি কার্যকর করতে পারবে না।

আদালত এই মামলার শুনানি আগামী ২০ এপ্রিল পর্যন্ত পিছিয়ে দিয়েছে। আইনজীবী মেঘান জানিয়েছেন, নাগরিকের ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষার জন্য কী কী পদক্ষেপ করা হচ্ছে তা নিয়ে হলফনামায় কিছু জানানো হয়নি WhatsApp-এর তরফে। হাইকোর্টে সিঙ্গল বেঞ্চে এই প্রাইভেসি পলিসি সংক্রান্ত আরও একটি মামলা ঝুলে রয়েছে।

সরকার এর আগে WhatsApp-এর কাছ থেকে প্রাইভেসি পলিসি নিয়ে জবাব চেয়েছিল। তবে মেসেজিং অ্যাপ কর্তৃপক্ষ এই নীতি কার্যকর স্থগিত রাখে গত জানুয়ারি মাসে। তবে আগামী মে মাস থেকে তা কার্যকর করা হতে পারে।

Get the latest Bengali news and Technology news here. You can also read all the Technology news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Centre urges delhi high court to restrain whatsapp from implementing new privacy policy

Next Story
ওয়ানপ্লাস ৬, নতুন কি থাকবে এই ফোনে? জানাল কোম্পানিoneplus tipped to feature 8 GB RAM 128 GB storage in Oneplus 6
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com