scorecardresearch

বড় খবর

‘বুস্টার ডোজ নেওয়ার পর ভেবেছিলাম আমি মরে যাব’, ইলন মাস্কের মন্তব্যে বিতর্কের ঝড়

মাস্কের এই ধরণের বিবৃতি ঘিরে রীতিমত শোরগোল পড়ে গিয়েছে

‘বুস্টার ডোজ নেওয়ার পর ভেবেছিলাম আমি মরে যাব’, ইলন মাস্কের মন্তব্যে বিতর্কের ঝড়

চিন সহ বিশ্বের একাধিক দেশে চোখ রাঙাচ্ছে ভয়ঙ্কর করোনা। এর মাঝেই কোভিডের টিকা নিয়ে বিতর্ক বাড়ালেন টুইটার সিইও ইলন মাস্ক। করোনার ভ্যাকসিন নিয়ে প্রশ্ন তুলে ইলন মাস্ক বলেন, ‘বুস্টার ডোজ নেওয়ার পর ভেবেছিলাম আমি মরে যাব’।

কোভিড ভ্যাকসিনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নিয়ে বিতর্ক ভারতসহ সারা বিশ্বে জোরদার হচ্ছে। এর মাঝেই মাস্কের এই ধরণের বিবৃতি ঘিরে রীতিমত শোরগোল পড়ে গিয়েছে। শনিবার টুইটারের সিইও ইলন মাস্কও এক প্রশ্নের উত্তরে বলেন, করোনা ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় বুস্টার নেওয়ার পর তাঁর শরীরে বেশ কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। তিনি আরও বলেন, দ্বিতীয় বুস্টার ডোজ নেওয়ার পর বেশ কয়েকদিন ধরেই মনে হচ্ছিল আমি মরে গেছি’।

কী লিখেছেন তিনি তাঁর টুইট বার্তায়? মাস্ক লিখেছেন, “দ্বিতীয় বুস্টার ডোজ নেওয়ার পর থেকেই আমার শরীরে বেশ কিছু পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। মরে যাওয়ার মত অনুভূতি হচ্ছিল। তবে আমি আশা করি, টিকার কোন দীর্ঘ স্থায়ী ক্ষতি নেই, যদিও সেটা আমি জানি না, “

কয়েকদিন আগেই, একটি রিপোর্ট সামনে আসে, যাতে দাবি করা হয় আগামী কয়েকদিনের মধ্যে আরও বেশ কিছু কর্মচারীকে ছাঁটাই করবে টুইটার। রিপোর্টে বলা হয়েছে যে মাস্ক টুইটারের একাধিক বিভাগ থেকে বেশ কিছু কর্মীকে ছাঁটাইয়ের পরিকল্পনা করেছেন। যদিও এদিন সেই বিষয়ে কিছুই খোলসা করে বলেন নি তিনি।

মাস্কের এই ধরণের বিবৃতি ঘিরে রীতিমত শোরগোল পড়ে গিয়েছে

মাস্কের দায়িত্ব নেওয়ার পর টুইটারের কর্মী সংখ্যা নাটকীয়ভাবে হ্রাস পেয়েছে। টেসলা এবং স্পেস এক্স মালিক গত বছর ৪৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের টুইটার কিনে নেয়। নতুন মালিক হিসাবে দায়িত্ব নিয়েই তৎকালীন সিইও সহ শীর্ষ পদের একাধিক কর্মী আধিকারিকদের বরখাস্ত করেন তিনি। এরপর শুরু হয় ধারাবাহিক ছাঁটাইপর্ব। কর্মীদের জন্য জারি করা হয় নিত্য নতুন নিয়ম। তার মাঝেই অ্যাড ফ্রি টুইটার নিয়ে গতকালই এক বিরাট বার্তা দেন তিনি।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Technology news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Elon musk criticises covid vaccines and says he felt like dying after his second booster shot