scorecardresearch

বড় খবর

সিইও পদে থাকা উচিত কিনা জানতে চেয়ে টুইট মাস্কের, তুঙ্গে জল্পনা

মাস্ক মাইক্রোব্লগিং ওয়েবসাইটে লক্ষ লক্ষ ব্যবহারকারীদের মতামত নেওয়ার জন্য একটি সমীক্ষা শুরু করেছেন

সিইও পদে থাকা উচিত কিনা জানতে চেয়ে টুইট মাস্কের, তুঙ্গে জল্পনা
চটপট মিলবে বিজ্ঞাপনের ঝামেলা থেকে চিরতরে মুক্তি। নতুন এই পরিকল্পনা নিয়ে ইলন মাস্ক।

গত কয়েকদিনে টুইটারে একাধিক নীতি পরিবর্তন করার পর, টুইটারের সিইও ইলন মাস্ক টুইটারের সিইও পদ থেকে পদত্যাগ করার বিষয়ে সাধারণের কাছে একটি প্রশ্ন করেন। মাস্ক মাইক্রোব্লগিং ওয়েবসাইটে লক্ষ লক্ষ ব্যবহারকারীদের মতামত নেওয়ার জন্য একটি সমীক্ষা শুরু করেছেন।একটি টুইটে, মাস্ক জনগণকে একটি সমীক্ষায় অংশ নিতে বলেছেন। তিনি জানতে চেয়েছেন “আমার কি টুইটারের প্রধান পদ থেকে সরে যাওয়া উচিত?”

একটি টুইটে, মাস্ক জনগণকে একটি সমীক্ষায় অংশ নিতে বলেছেন। মাস্ক একটি সমীক্ষার মাধ্যমে জনগণকে জিজ্ঞাসা করেছেন যে তিনি টুইটারের প্রধানের পদ থেকে পদত্যাগ করবেন কিনা। এর পাশাপাশি ভোটের ফলাফল অনুসরণের কথাও বলেছেন মাস্ক।
মাস্ক আরেকটি টুইটে টুইটারে বড় ধরনের পরিবর্তনের কথাও বলেছেন। তিনি বলেন, বড় ধরনের নীতিগত পরিবর্তনের জন্যও জনসাধারণের মতামত নেওয়া হবে।

মাস্ক ১৯ ডিসেম্বর ভোর ৪:৫০ মিনিট নাগাদ একটি টুইট করেন, যেখানে তিনি জনগণকে জিজ্ঞাসা করেছেন যে আমার কি টুইটারের সিইও পদ থেকে পদত্যাগ করা উচিত? এই টুইটের পরে, মানুষ টুইটারে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। প্রায় ১ লাখ ৩০ হাজার মানুষ এই টুইট রিটুইট করেছেন। একইসঙ্গে খবর লেখা পর্যন্ত এতে ভোট দিয়েছেন ৮০ লাখের বেশি মানুষ। যেখানে পদত্যাগের পক্ষে ভোট দিয়েছেন ৫৭ শতাংশ মানুষ। এর বাইরে টুইটারে বড় ধরনের পরিবর্তনের কথাও জানিয়েছেন মাস্ক। তিনি বলেছেন যে আগামী দিনে টুইটারে বড় নীতি পরিবর্তনের জন্য ভোট করা হবে।

ইলন মাস্ক একদিন আগেই বেশ কয়েকজন সাংবাদিকের টুইটার অ্যাকাউন্ট স্থগিত করেছিলেন। এরপর এই সিদ্ধান্ত নিয়ে তুমুল সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি। এর পরে এই অ্যাকাউন্টগুলি আবার সক্রিয় করা হয়। পাশাপাশি মাস্ক ব্লু ভেরিফাইড সংক্রান্ত নতুন আপডেটও শেয়ার করেছেন। তিনি বলেছেন যে এখন ব্লক সিগন্যাল এবং মিউটও ব্লু ভেরিফাইয়ে অন্তর্ভুক্ত করা হবে।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Technology news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Elon musks latest twitter poll talks about his resignation