ফেসবুকে ভোট প্রচার, কয়েক কোটি টাকা খরচ বিজেপির, লাখে তৃণমূল

প্রকাশ্যে তারা রাজনৈতিক দলগুলির সঙ্গে কেউই সরাসরি যুক্ত নয়, কিন্তু শুরু থেকে শেষ লোকসভাকে কেন্দ্র করে ভোটের প্রচার, যেখানে রাজনৈতিক দলগুলির মতাদর্শ স্পষ্ট।

By: Karishma Mehrotra New Delhi  Updated: April 21, 2019, 01:26:59 PM

২০১৯ এর নির্বাচনী প্রচারের জন্য সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মকে বেছে নিয়েছে রাজনৈতিক দলগুলি। প্রতিটি ডিজিটাল বিজ্ঞাপনের পিছনে খরচ হচ্ছে মোটা অঙ্কের টাকা। ইতিমধ্যে প্রায় ৪৮ টা পেজের সন্ধান পাওয়া গেছে ফেসবুক থেকে। যার অর্ধেক পেজে রয়েছে কোটি টাকার রাজনৈতিক বিজ্ঞাপনের বহর। দেখা যাচ্ছে, প্রতিটি পেজ কমিউনিটি খবর এবং ব্যক্তিগত ব্লগ হিসাবে পরিচিত ফেসবুক প্ল্যাটফর্মে। প্রকাশ্যে তারা রাজনৈতিক দলগুলির সঙ্গে কেউই সরাসরি যুক্ত নয়, কিন্তু শুরু থেকে শেষ লোকসভাকে কেন্দ্র করে ভোটের প্রচার, সেখানে রাজনৈতিক দলগুলির মতাদর্শ স্পষ্ট। উল্লেখ্য, এই বিজ্ঞাপনের বেশির ভাগটাই বিজেপির।

বিগত ছয় সপ্তাহে, ৩৫,০০০ বিজ্ঞাপনের মধ্যে ১৮,০০০ বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়েছে বিজেপির তরফ থেকে। যার জন্য খরচ হয়েছে প্রায় ৫.৩ কোটি টাকা। মোটের ওপর ৭২,৬৯৪ টি ফেসবুক বিজ্ঞাপনের জন্য খরচ হয়েছে ১৪,৭ কোটি টাকা। দ্য সানডে এক্সপ্রেস জানিয়েছে, যার মধ্যে ৮৫শতাংশ বিজ্ঞাপনের দাম প্রায় হাজার পঞ্চাশ টাকা।

আরও পড়ুন: বেশি কথা বললে মুখে লিউকোপ্লাস্ট লাগিয়ে দেব, মোদীকে হুঙ্কার মমতার

যে সব পেজ থেকে বিজ্ঞাপনের পিছনে অধিক টাকা ব্যয় করা হয়েছে, সেই পেজ সরাসরি কোনো দলের সঙ্গে যুক্ত নয়। পেজ গুলির নাম যেমন, “ভারত কে মন কি বাত” (৩২,০০ বিজ্ঞাপনের পিছনে খরচ করেছে ২.২ কোটি টাকা) , “মাই ফার্স্ট ভোট ফর মোদী” ( ৭,২০০ বিজ্ঞাপনের পিছনে খরচ হয়েছে ১ কোটি টাকা), “নেশন উইথ নমো” (১.২ কোটি খরচ হয়েছে ৩,১০০ টি বিজ্ঞাপনে) ইত্যাদি। ফেসবুকে প্রতিটি পেজের পরিচয় ‘কমিউনিটি’।

নির্বাচন সংক্রান্ত সমস্ত খবর জানার জন্য ক্লিক করুন এখানে

বাদবাকি পেজ রয়েছে কংগ্রেসের অধীনে। তারাও এই একই পন্থা অনুসরণ করেছে। পেজে নাম নেই কংগ্রেস দলের। অথচ শুরু থেকে শেষ কংগ্রেসকে সমর্থন করার প্রচার। একটি পেজের নাম ‘মুদ্দা ধাবা’, যেখানে ৩৫ টি বিজ্ঞাপেনের পিছনে খরচ হয়েছে ২.৫ লাখ টাকা। যার পরিচয় এন্টারটেনমেন্ট ওয়েবসাইট। জানা যাচ্ছে, পেজের পাবলিশারের নাম হীতেশ চাওলা। যাকে সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে কংগ্রেসের প্রচারের জন্য চুক্তি দেওয়া হয়েছিল। ‘শাট দ্য ফেক আপ’ পেজে ২৬০ টি বিজ্ঞাপেনের জন্য খরচ হয়েছে ২.৪ লাখ টাকা। এর ডিজাইন করেছে ‘ডিজাইনবক্সড’ নামক এক সংস্থা, মূলত এরাই পরিচালনা করছে পেজটির। এছাড়াও কংগ্রেসের প্রচার চালাচ্ছে এমন প্রায় ১৫০ পেজের সন্ধান পাওয়া গেছে। যারা সরাসরি পার্থীর নাম সহ প্রচার চালাচ্ছে। যেখানে ৯,৮০০ টি বিজ্ঞাপনের জন্য খরচ হয়েছে ৩ কোটি টাকা ।

আরও পড়ুন: মমতাদি আমাকেও ধোঁকা দিয়েছেন: মোদী

“রাজনৈতিক দল” বা “রাজনৈতিক সংগঠন” নাম উল্লেখ করে আরও ৩৫ টি পেজের খোঁজ মিলেছে ফেসবুক প্ল্যাটফর্মে। যেখানে মোট ৪,৫০০ টি বিজ্ঞাপন আছে। যার জন্য দাম দিতে হয়েছে প্রায় ২ কোটি। জানা যাচ্ছে, লোকসভা নির্বাচনকে ঘিরে জায়েন্ট সোশ্যাল মিডিয়া “পার্টি-অনুমোদিত” পেজ গুলি থেকে প্রায় এক চতুর্থাংশ বিজ্ঞাপন গ্রহণ করেছে।

ফেসবুক জানিয়েছে, ৮০ টি পেজ জুড়ে শুধু রয়েছে বিজেপির বিজ্ঞাপন। কিন্তু তারা জানিয়েছে, সমস্ত বিজ্ঞাপনের ৬০ শতাংশ তাদের, যার জন্য খরচ হয়েছে ৭.৫ কোটি টাকা। একইসঙ্গে কংগ্রেস দাবি করেছে, ৪,৪০০ টি বিজ্ঞাপনের জন্য খরচ হয়েছে ১ কোটি।

দেখে নেওয়া যাক বাকি দল ডিজিটাল বিজ্ঞাপনে কত টাকা খরচ করেছে ?

টিডিপি ৮১ লাখ, বিজেডি ৫৫ লাখ, ওয়াইএসআরসিপি ৬২ লাখ, এআইএডিএমকে ১৮ লাখ, শিব সেনা ৭.৯ লাখ, এএপি ৩.৮ লাখ, বিএসপি ৩.৮ লাখ, ডিএমকে ৩.১ লাখ অবশেষে টিএমসি ১.৫ লাখ।

Read the full story in English

Get all the Latest Bengali News and West Bengal News at Indian Express Bangla. You can also catch all the Technology News in Bangla by following us on Twitter and Facebook

Web Title:

Facebook has spent 15 crores of rupees in campaigning for bjp tmc 1 5 lakh

The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com.
Advertisement

ট্রেন্ডিং
হয়রানির আশঙ্কা
X