বড় খবর

হংকং থেকে নিজেদের তলপি-তলপা গুটিয়ে নিতে চলেছে টিকটক

ইউজারদের ডেটা চিনের হাতে তুলে দেওয়া হয়নি। অন্যদিকে চিন সরকারও টিকটকের কাছে ইউজারের কোনও ডেটা চায়নি।

চিনে তাদের আর শিকড় নেই, বাইটডান্স কোম্পানি এখন চিনের সঙ্গে তাঁর সম্পর্কে মুছে ফেলতে চাইছে। সম্প্রতি তারা গোটা বিশ্বের কাছে জানাতে চাইছে যে তাদের উপর চিনের হস্তক্ষেপ আগামী দিনে থাকবে না। কাজেই, অন্যতম পদক্ষেপ হিসেবে বর্তমানে হংকং থেকে নিজেদের ব্যবসা বাণিজ্য গুটিয়ে নিতে চলেছে টিকটক। হংকংয়ে নতুন জাতীয় নিরাপত্তা আইন এনে সম্পূর্ণ ব্যবস্থাটাই বদলে ফেলেছে জিনপিং প্রশাসন। স্বাধীনভাবে মত প্রকাশের অধিকার কেড়ে নিয়েছে নতুন আইন।

হংকংয়ের স্বায়ত্তশাসন বিঘ্নিত হয়েছে। জানা গিয়েছে, প্রথমেই জিনপিং প্রশাসন টিকটককে নিষিদ্ধ ঘোষণা করতে চেয়েছিল। কারণ, অভিযোগ উঠেছিল গ্রাহকদের গোপন তথ্য হাতিয়ে নিচ্ছে চিন সরকার। চিনের আইন অনুসারে স্থানীয় কোম্পানিকে দেশের গোয়েন্দা বিভাগকে সহায়তা করতে হবে। কাজেই, গোপনীয়তা সুরক্ষায় হংকংয়ে ঝাঁপ বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, জানিয়েছেন টিকটকের এক মুখপাত্র।

নতুন জাতীয় নিরাপত্তা আইন জারি হওয়ার পর ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ, গুগলের মতো কোম্পানির কাছে গ্রাহকদের তথ্য চাইলে, হংকং প্রশাসনকে তা দিতে অস্বীকার করে জায়েন্ট টেক সংস্থাগুলি। কোম্পানির শীর্ষকর্তা ওয়াল্ট ডিজনির প্রাক্তন কো এক্জিকিউটিভ কেভিন মেয়ারস জানিয়েছেন, অ্যাপ ইউজারদের ডেটা চিনের হাতে তুলে দেওয়া হয়নি। অন্যদিকে চিন সরকারও টিকটকের কাছে ইউজারের কোনও ডেটা চায়নি। তবে হংকংয়ে  টিকটকের বাজার ভালো ছিল, এমনটাও একেবারেই নয়। গত আগস্ট থেকে মাত্র দেড় লাখ ইউজার ছিল টিকটকে।

জানা যাচ্ছে, শুরু থেকেই টিকটককে এমনভাবেই তৈরি করা হয়েছিল, যাতে চিন কখনই টিকটকে হস্তক্ষেপ করতে না পারে, পাশাপাশি বিশ্বব্যাপী ইউজারের লক্ষ্য নিয়ে টিকটকের পথা চলা শুরু হয়েছিল। বাইটডান্সের ভিডিও শেয়ারিং Douyin অ্যাপ রয়েছে চিনে।

Get the latest Bengali news and Technology news here. You can also read all the Technology news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Tiktok says it will exit hong kong market within days

Next Story
আমেরিকাতেও সম্ভাব্য নিষেধাজ্ঞার মুখে টিকটক সহ চিনা অ্যাপ
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com