বড় খবর

হোয়াটস্অ্যাপের ভিডিও কলই হ্যাক করার মোক্ষম সময়

এতদিন ধরে সবার অগোচরেই চলছিল হ্যাকারবাবুদের কারসাজি। হাতে নাতে হ্যাকারদের ধরতে না পারলেও সম্প্রতি হ্যাক হওয়ার শিকড় খুঁজে পেয়েছেন গুগলের জিরো সিকিউরিটি বিশেষজ্ঞের দল।

হার্ভার্ড বিজনেস স্কুল এবং কর্নেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র অভিজিৎ বোস, ২০১৯ সালের প্রথম দিকে হোয়াটসঅ্যাপে যোগ দিতে চলেছেন।

হোয়াটসঅ্যাপে নিশ্চয়ই ভিডিও কল করেন, বরং একটু বেশিই পছন্দ করেন। কিন্তু জানেন কি, আপনার ভিডিও কলের অপেক্ষায় বসে আছে হ্যাকাররা? কল চলাকালীন হ্যাকারদের কাছে মোক্ষম সুযোগ আপনার অ্যাকাউন্টের অন্দরমহলে প্রবেশ করার। এতদিন ধরে সবার অগোচরেই চলছিল হ্যাকারবাবুদের কারসাজি। হাতেনাতে হ্যাকারদের ধরতে না পারলেও সম্প্রতি হ্যাক হওয়ার শিকড় খুঁজে পেয়েছেন গুগলের জিরো সিকিউরিটি বিশেষজ্ঞের দল।

সদ্য হোয়াটসঅ্যাপ খুঁজে পেয়েছে হ্যাক হওয়ার সুত্র। যখন ইনকামিং ভিডিও কল চলে, তখনই ডিভাইসের ভিতর ঢুকে পড়ে হ্যাকাররা। অ্যাপেলের ios অপারেটিং সিস্টেমও নিস্তার পায় না এর হাত থেকে। অ্যান্ড্রয়েড হোক বা ios, উভয় অপারেটিং সিস্টেমেই ঢুকতে পারদর্শী তারা। এই সমগ্র ঘটনার আলোকপাত ঘটেছে  ZDNet-এর একটি প্রতিবেদনে। নাটালি সিলভানোভিচ নামের এক বিশেষজ্ঞ আবিষ্কার করেছেন  হোয়াটসঅ্যাপের তথ্য ফাঁসের  সূত্র।

আরও পড়ুন : রিজার্ভ ব্যাঙ্কের নিয়ম মেনেই তৈরি হোয়াটসঅ্যাপের পেমেন্ট সার্ভিস

গবেষনা অনুযায়ী, “হোয়াটসঅ্যাপের নন-ওয়েবআরটিসি ভিডিও কনফারেন্সিং  ত্রুটি রয়েছে।” একজন ব্যবহারকারী যখন হোয়াটসঅ্যাপের ভিডিও কল গ্রহণ করেন, তখন সমস্যাটি মূলত ঘটতে পারে।

শুধুমাত্র ফোনের হোয়াটসঅ্যাপে ভিডিও কলের উত্তর দিলে হ্যাক হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। তবে অ্যাপ্লিকেশনটির ওয়েব সংস্করণটি প্রভাবিত হয় না কারণ এটি ভিডিও কলগুলির জন্য একটি ভিন্ন WebRTC প্রোটোকলের উপর নির্ভর করে। অ্যান্ড্রয়েড এবং আইওএসে, হোয়াটসঅ্যাপ ভিডিও কলগুলি রিয়েল-টাইম ট্রান্সপোর্ট প্রোটোকল (আরটিপি) নামে পরিচিত। ভিডিও কলের সময় ঢুকে পড়ছে হ্যাকাররা আপনার ডিভাইসে। রাতারাতি ক্র্যাশও হয়ে যেতে পারে আপনার ডিভাইস।

আরও পড়ুন: হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীরা সাবধান, এই ভার্সনটি থেকে দুরে থাকুন

সর্বশেষ যে সমস্যা সমাধান করা হয়েছিল। তারজন্য সেপ্টেম্বর মাসের ২৮ তারিখ শেষ আপডেট হয় অ্যান্ড্রয়েডের হোয়াটস্অ্যাপের। সদ্য ধরা পড়া সমস্যা থেকে বাঁচতে আবারও আপডেট নেবে কিনা তা জানানো হয় নি কোম্পানির তরফ থেকে। হোয়াটসঅ্যাপও এই বিষয়ে একটি বিবৃতি জারি করেছে এবং বলেছে যে তারা এই ত্রুটি সমাধান করার জন্য পদক্ষেপ নেবে। আগেভাগে সন্দেহ করলেও সমস্যার সূত্রপাত ঠিক কোথায় তা খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। তাই বর্তমানে হোয়াটসঅ্যাপ ভিডিও কল এড়িয়ে যাওয়াই ভালো।

Web Title: Whatsapp fixes bug that allowed hackers to take over during video call report

Next Story
চার ক্যামেরার ফোন নিয়ে হাজির Galaxy A9 Pro
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com