scorecardresearch

বড় খবর

দেশের গণ্ডীর মধ্যে রাখতে হবে ‘হোয়াটসঅ্যাপ পে’র লেনদেন সংক্রান্ত তথ্য, তবেই মিলবে ছাড়পত্র

শুক্রবার ভারতে পেমেন্ট সার্ভিস লঞ্চে তথ্য স্থানীয়করণের নিয়ম মেনে চলার জন্য যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক হোয়াটসঅ্যাপকে নির্দেশ দেওয়া হয়।

Whatsapp picture in picture PIP mode

বেশ কিছুদিন ধরেই অভিযোগ উঠেছে পেমেন্ট পরিষেবা চালু করার জন্য দেশের শীর্ষ ব্যাঙ্কের যে নিয়ম অনুসরণ করে চলতে হয়, তার কোনোটিই করছে না হোয়াটসঅ্যাপ পেমেন্ট। এই প্রসঙ্গে আরবিআই -এর মতামত জানতে চেয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।

পেমেন্ট সংক্রান্ত তথ্য কোথায় জমা থাকবে, তাই নিয়ে কিছু নির্দিষ্ট নিয়ম রয়েছে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের। সেন্টার ফর এ্যাকাউন্টাবিলিটি অ্যান্ড সিস্টেমিক চেঞ্জ (সিএএসসি) নামের অসরকারি সংস্থার দাবি, এই নিয়ম মেনে চলছে না মার্কিন মেসেজিং অ্যাপ সংস্থা হোয়াটসঅ্যাপ পে।

দেশের গণ্ডীর মধ্যেই সীমাবদ্ধ রাখতে হবে গ্রাহকের পেমেন্ট এর তথ্য, একইসঙ্গে রিজার্ভ ব্যাঙ্ককে জানাতে হবে কোথায় স্টোর থাকবে হোয়াটসঅ্যাপ পেমেন্ট মাধ্যমে ব্যাঙ্কিং লেনদেনের যাবতীয় তথ্য। শুক্রবার ভারতে পেমেন্ট সার্ভিস লঞ্চে তথ্য স্থানীয়করণের নিয়ম মেনে চলার জন্য হোয়াটসঅ্যাপকে নির্দেশ দেয় সুপ্রিম কোর্ট। পাশাপাশি এদিন তথ্য স্থানীয়করণের বিষয়ে ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ককে একটি দল গঠনের প্রয়োজনীয়তা উল্লেখ করে।

সম্প্রতি রিজার্ভ ব্যাঙ্ককে অবমাননা করে পেমেন্ট সার্ভিস লঞ্চ করার অভিযোগ উঠেছিল হোয়াটসঅ্যাপের বিরুদ্ধে। যার জল গড়িয়েছে সুপ্রিম কোর্ট অবধি। বিচারপতি আর এফ নারিমন ও বিনিত শরনের গঠিত বেঞ্চ এনজিও, সেন্টার ফর এ্যাকাউন্টবিলিটি অ্যান্ড সিস্টেমিক চেঞ্জ (সিএএসসি) কর্তৃক রিজার্ভ ব্যাঙ্ককে নোটিশ দেওয়া হয়। পিটিশন দায়ের করা হয়েছে , হোয়াটসঅ্যাপ কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কের নিয়মাবলি পুরোপুরি মেনে চলছে না।

 

এই বেঞ্চের পরবর্তী শুনানি ৫ মার্চ। ওইদিন শীর্ষ ব্যাঙ্কের জবাব শুনবে সুপ্রিম কোর্ট। ১৪ জানুয়ারি হাইকোর্টে আবেদনকারীর উপস্থিতিতে বিচারপতি ভিরাগ গুপ্তকে রিজার্ভ ব্যাঙ্কে দল গঠনের আবেদনপত্র দাখিল করার অনুমতি দেওয়া হয়েছিল।

কেন্দ্রের তরফে সলিসিটার জেনারেল তুষার মেহতা আদালতকে জানিয়েছেন, তথ্য স্থানীয়করণের  ইস্যুতে ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্কের  কাছে মার্কিন সংস্থার কিছু দায়বদ্ধতা আছে।

এই পিটিশনে উল্লেখ করা হয়েছে, ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্কের নিয়ম না মানলে হোয়টস্অ্যাপের পেমেন্ট পরিষেবাকে ভারতে ঢুকতে দেওয়া যাবে না।

কেন্দ্র এবং হোয়াটসঅ্যাপ আগে আদালতকে জানিয়েছিল যে ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং সার্ভিস কোম্পানিতে ভারতের জন্য একটি অভিযোগ কর্মকর্তা নিয়োগ করা হয়েছে। কিন্তু এনজিও সে কথা মানতে নারাজ, তারা জানিয়েছে নিয়োগ করা হয়েছে ঠিকই তবে তা ভারতে নয়, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে।

আইনি বেড়াজালে আটকে পড়ে হোয়াটসঅ্যাপ পে লঞ্চ ক্রমশ পিছিয়েই যাচ্ছে। এবার সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মান্য করলে তবেই ভারতে পরিষেবা চালু করার ছাড়পত্র পাবে।

Read the full story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Technology news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Whatsapp payment service data localisation issue supreme court seeks rbi response