অ্যাপ্রন পরে করোনাসুর বধ দশভুজার, নেট দুনিয়ায় তুমুল ঝড়

প্রস্তুত বাঙালি। রাজ্যজুড়ে সেজেছে বিভিন্ন পুজো মণ্ডপ। পাখনা মেলছে শিল্পীদের কল্পনা। হুজুগে বাঙালির আকর্ষণের কেন্দ্রে চিকিৎসকরূপী করোনাসুর বধকারীনি দেবী দুর্গা।

By: Kolkata  Updated: October 20, 2020, 01:55:26 PM

প্রস্তুত বাঙালি। করোনা আবহেই রাজ্যজুড়ে সেজে উঠেছে বিভিন্ন পুজো মণ্ডপ। পাখনা মেলছে শিল্পীদের কল্পনা। এর মধ্যেই আবার মণ্ডপে প্রবেশের ক্ষেত্রে নো-এন্টি জারি করেছে হাইকোর্ট। আইনি লড়াইয়ে বারোয়ারি পুজো কমিটিদের সংগঠন। কিন্তু, এতসবের মধ্যেও হুজুগে বাঙালির আকর্ষণের কেন্দ্রে চিকিৎসকরূপী করোনাসুর বধকারীনি দেবী দুর্গা। নেট দুনিয়ায় আপাতত সুনামি তীব্রতায় ভাইরাল মায়ের এই রুপ।

করোনাকালে ঈশ্বরের স্থান দেওয়া হয়েছে চিকিৎসকদের। তাই এবার মাকেও তুলে ধরা হয়েছে চিকিৎসকের আদলেই। লাল-পড়া শাড়ির বদলে মায়ের পরনে রয়েছে অ্যাপ্রন। প্রথাগত ত্রিশূলের বদলে দু-হাতে মা বিশালাকার সিরিঞ্জ দিয়ে ভ্যাকসিন প্রয়োগের মাধ্যমে বধ করছেন করোনারূপী মহিষাশুরকে। সিংহের বদলে দেবী দুর্গার সঙ্গে রয়েছে অ্যাম্বুলান্স।

শুধু দেবী দুর্গাই নয়, মহামারীকালে মামার বাড়ি আগত তাঁর চার ছেলে-মেয়েও সমানতালে করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে সামিল। করোনা যোদ্ধা রূপে উপস্থাপন করা হয়েছে গণেশ,লক্ষ্মী, সরস্বতী, কার্তিকে। গণেশ ও লক্ষ্মী যথাক্রমে একজন পুলিশ কর্মী ও নার্স হিসাবে ধরা দিয়েছেন মণ্ডপে। আর সবস্বতী, কার্তিককে দেখা যাচ্ছে স্বাস্থ্যসেবা ও স্যানিটাইজেশন কর্মীর রূপে।

এর আগে পরিযায়ী শ্রমিকের বেশে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে মায়ের রূপ। যা ইতিমধ্যেই ভাইরাল। এবার সেই তালিকায় সংযোজিত হল করোনারূপী মহিষাসুরমর্দিনী দেবী দুর্গা। কিন্তু, বাংলায় কোথায় মায়ের এই রূপ শোভা পাচ্ছে? ফেসবুকে নিত্য পাল নামের এক ব্যক্তি জানিয়েছেন শিলিগুড়িতে দেবীর করোনারূপী মহিষাসুরমর্দিনীর রূপ প্রতিভাত হচ্ছে। মৃৎ শিল্পী হলেন জীতেন পাল। আবার অনেকেই বলেছেন, প্রতিমার এই রূপ আসাম ও ঝাড়খণ্ডের। ফলে তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা।

Read in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get all the Latest Bengali News and West Bengal News at Indian Express Bangla. You can also catch all the Latest News in Bangla by following us on Twitter and Facebook

Web Title:

Goddess durga reimagined as a doctor killing coronasur goes viral

The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com.
Advertisement

ট্রেন্ডিং
MUST READ
X