scorecardresearch

বড় খবর

পথেই হার্ট অ্যাটাক, সিপিআরে রক্ষা, মহিলা পুলিশকর্মীকে কুর্নিশ

সোশ্যাল মিডিয়ায় সোনমের এই কাজের প্রশংসা করছেন মানুষজন।

পথেই হার্ট অ্যাটাক, সিপিআরে রক্ষা, মহিলা পুলিশকর্মীকে কুর্নিশ

৬১ বছরের এক বৃদ্ধের জীবন বাঁচিয়ে মানবতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন সোনম। মহিলা পুলিশ কর্মীর তৎপরতায় প্রাণে বাঁচলেন বৃদ্ধ। আর এই কাহিনী এখন ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়। মহিলা পুলিশ কর্মীকে তার এই মহান কাজের জন্য কুর্নিশ জানিয়েছেন সকলেই।

সামনে এল পুলিশের মানবিক চেহারা। এবার গোয়ালিয়র পুলিশের মহিলা সাব-ইন্সপেক্টর সোনম পরাশর এক বৃদ্ধের জীবন বাঁচালেন। রাস্তাতেই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে অজ্ঞান হয়ে পড়েন এক বৃদ্ধ। এসআই সোনম খবর পেয়ে ছুটে আসেন। বৃদ্ধকে সিপিআর দেন। (সিপিআর কার্ডিও পালমোনারি রিসাসিটেশন) জীবন রক্ষা করেন বৃদ্ধের। সোনমেরীই মহান কাহিনীকে সালাম জানাচ্ছেন সবাই।

ডিউটি করাকালীন এক পথচারী তাকে জানান, পাশেই এক বৃদ্ধ অজ্ঞান হয়ে পড়ে আছেন। সোনম সঙ্গে সঙ্গে দৌড়ে বৃদ্ধের কাছে গিয়ে দেখেন তিনি অজ্ঞান অবস্থায় পড়ে রয়েছেন। প্রথম দেখাতেই পুলিশ কর্মী বুঝে নেন বৃদ্ধের হার্ট অ্যাটাক হয়েছে। দেরি না করে সোনম সেই ব্যক্তিকে সিপিআর (কার্ডিও পালমোনারি রিসাসিটেশন) দেওয়া শুরু করেন। বৃদ্ধের বুকে পাম্প করলেন সোনম। ধীরে ধীরে তার হৃৎপিণ্ড স্পন্দিত হতে থাকে। সোনম অবিলম্বে অ্যাম্বুলেন্স কল করেন এবং বৃদ্ধকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করে্ন। এখন তার অবস্থা স্থিতিশীল বলেই জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

আরও পড়ুন: [ মেয়ের ‘উদারতায়’ জীবনের স্বাদ বদল, ৫০-এ বিয়ের পিঁড়িতে মা ]

জানা গিয়েছে ওই বৃদ্ধের নাম অনিল উপাধ্যায়, তিনি গোলার মন্দির এলাকায় থাকেন। তার পরিবার দিল্লিতে থাকে। পুলিশ পরিবারকে খবর দিয়েছে। এই ঘটনার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হচ্ছে, যা দেখে সবাই সোনামকে অভিনন্দন জানাচ্ছেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় সোনমের এই কাজের প্রশংসা করছেন মানুষ। সোনম জানান, ডিউটিতে থাকাকালীন জরুরি অবস্থায় জীবন বাঁচাতে পুলিশকর্মীদের সিপিআর সহ অনেক ট্রেনিং দেওয়া হয়। সিপিআরে হার্ট অ্যাটাকের সময় পাম্পিং করে আক্রান্তকে বাঁচানো যায়। আজ আমি সেটাই করলাম। একজনের জীবন বাঁচিয়ে সে তৃপ্তি তার চেয়ে বড় কিছুই হতে পারেনা।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Viral news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Gwalior lady sub inspector saves eleder mans life