scorecardresearch

বড় খবর

ল্যাপটপের বদলে এল কাপড় কাচার সাবান, ফ্লিপকার্টের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট

গ্রাহক এব্যাপারে অভিযোগ জানালে, কোম্পানি তাদের ‘নো রিটার্ন পলিসি’র উল্লেখ করে।

ল্যাপটপের বদলে এল কাপড় কাচার সাবান, ফ্লিপকার্টের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট
ল্যাপটপের বদলে এল কাপড় কাচার সাবান, ফ্লিপকার্টের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট

অনলাইনে অর্ডার করেছিলেন একটি দামি ল্যাপটপ, বাড়িতে যখন পার্সেল এল তাতে রয়েছে বেশ কয়েকটি কাপড় কাচার সাবান। এই ঘটনায় হুলস্থূল নেটদুনিয়ায়। ই-কমার্স সংস্থাগুলি গ্রাহকদের সব সময়েই সেরা পরিষেবা দেওয়ার দাবি করে। কিন্তু অনালাইনে ল্যাপটপ অর্ডার করা এক গ্রাহক যে তিক্ত অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হয়েছে তা জেনে হুঁশ উড়েছে নেটিজেনদের।

হ্যাঁ, ‘সিজন সেল’ শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই সোশ্যাল মিডিয়ায় এই রকম একটি ঘটনা সামনে এসেছে। আসলে, এক ব্যক্তি অনলাইনে একটি ল্যাপটপ অর্ডার করেছিলেন। কিন্তু অর্ডারটি তার কাছে যখন এসে পৌঁছাইয় তখন দেখা যায় পার্সেলের ভিতর রয়েছে বেশ কয়েকটি কাপড় কাচার সাবান।  গ্রাহক এব্যাপারে অভিযোগ জানালে, কোম্পানি তাদের ‘নো রিটার্ন পলিসি’র উল্লেখ করে। এরপরই গ্রাহক সোশ্যাল মিডিয়ায় গোটা ঘটনাটি সামনে

যশস্বী শর্মা, আইআইএম স্নাতক, ঘটনাটি উল্লেখ করে লিঙ্কডইন-এ একটি পোস্ট করেন।  তিনি তার পোস্টে দাবি করেন ‘ফ্লিপকার্টের বিগ বিলিয়ন ডেস সেল’- উপলক্ষে সে  তার বাবার জন্য একটি ল্যাপটপ অর্ডার করে। কিন্তু যখন অর্ডারটি যখন আসে তখন দেখা যায় পার্সেলের মধ্যে রয়েছে বেশ কয়েকটি কাপড় কাচার সাবান। ল্যাপটপের পরিবর্তে, তারা ফ্লিপকার্ট থেকে ঘড়ির ডিটারজেন্টে সাবানের প্যাকগুলি দেখে অবাক হয়ে যান তারা সকলেই। সঙ্গে সঙ্গে সংস্থার কাস্টমার কেয়ার সার্ভিসে বিষয়টি উল্লেখ করেন তিনি। সংস্থার তরফে নো রিটার্নের উল্লেখ করা হয়। যশস্বী বলেন, ল্যাপটপের বদলে ঘড়ির সাবান ডেলিভারির সিসিটিভির প্রমাণও রয়েছে তার কাছে, কিন্তু তা সত্ত্বেও কোম্পানির পক্ষ থেকে বিষয়টি অস্বীকার করা হচ্ছে!

আরও পড়ুন: [বিশ্বব্যাঙ্কে চাকরি পেতে ৬০০ ইমেল, ৮০ ফোন কল! দিল্লির যুবকের কাহিনীতে গর্ব হবে]

যশস্বী তার পোস্টে লিখেছেন যে ডেলিভারি বয় পার্সেলটি তড়ঘড়ি দিয়েই চলে যান। গোটা ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ তার কাছে রয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি। প্যাকেজটি খোলার সময় তিনি আনবক্সের একটি ভিডিওও করেছিলেন, যাতে স্পষ্টভাবে দেখা যায় যে বাক্সে কিছু সাবান বার রয়েছে, ল্যাপটপ নয়। কিন্তু তা সত্ত্বেও, ফ্লিপকার্টের সিনিয়র কাস্টমার কেয়ার এক্সিকিউটিভ তাকে জানান যে এটি ফেরত হবে না এ কারণেই তারা বিষয়টি সোশ্যাল মিডিয়ায় তুলেছেন। তিনি তার পোস্টে ফ্লিপকার্টের সিইও কল্যাণ কৃষ্ণমূর্তি এবং কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূষ গোয়েলকে ট্যাগ করেছেন। হাজার হাজার মানুষ এই পোস্ট দেখেছেন। অনেকেই ই-কর্মাসের এহেন আচরণে তাদের ক্ষোভ উগরে দেন।

(“Flipkart একটি গ্রাহক-সেবা ভিত্তিক সংস্থা। গ্রাহকের বিশ্বাসকে প্রভাবিত করে এমন সমস্ত ঘটনার ক্ষেত্রে সংস্থা জিরো টলারেন্স নীতি পালন করে। গ্রাহকদের সর্বোত্তম অনলাইন কেনাকাটার অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করা সংস্থার কাছে কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। নির্দিষ্ট ক্ষেত্রে যেটি একটি ওপেন বক্স ডেলিভারি বিকল্প অফার করেছে, গ্রাহক প্যাকেজটি না খুলেই ডেলিভারি এক্সিকিউটিভের সঙ্গে OTP শেয়ার করেছেন। আমাদের গ্রাহক পরিষেবা দল গ্রাহকের যে কন রকমের সমস্যার সমাধান করতে বদ্ধ পরিকর। গ্রাহক সমস্যা আমাদের জন্য মুল্যবান। ৩ থেকে ৪ দিনের মধ্যেই আমাদের কাস্টমার কেয়ার টিম গ্রাহক সমস্যা সমাধান করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। আমরা ইতিমধ্যেই এই বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করেছি। দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়াও শুরু করেছি

Flipkart-এর ওপেন বক্স ডেলিভারি হল গ্রাহকের স্বার্থ রক্ষার একটি উদ্যোগ। ওপেন বক্স ডেলিভারি প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে, সংস্থার (ডেলিভারি পার্টনার) পণ্যটি ডেলিভারির সময় গ্রাহকের সামনে খুলে দেয়। গ্রাহক তখনই পণ্য গ্রহণ করবেন যখন দেখবেন তাদের অর্ডার করা পণ্য অক্ষত অবস্থায় রয়েছে। তারপর OTP ডেলিভারি পার্টনারের সঙ্গে শেয়ার করুন। এটি বিভিন্ন উদ্যোগের একটি যা Flipkart বছরের পর বছর ধরে সামগ্রিক গ্রাহকের অভিজ্ঞতা উন্নত করতে এবং একটি উচ্চতর সাপ্লাই চেইন তৈরি করতে গ্রহণ করতে সহায়তা করেছে”)।

kindly note: Flipkart as a customer-focused organisation observes a zero-tolerance policy on all incidents that impact customer trust. It is of utmost importance to us to ensure the best possible online shopping experience for our customers. In this specific case that offered an Open Box Delivery option, the customer shared the OTP with the delivery executive without opening the package. Once the details of the incident were verified, our customer service team initiated a refund that will be credited within 3-4working days. We have identified the issue and have also initiated action against the errant party

Flipkart’s Open Box Delivery is an initiative dedicated to safeguarding the customer’s interests. As part of the Open Box Delivery process, Flipkart Wishmasters (delivery partner) opens the product at the time of delivery, in front of the customer. Customers need to accept the delivery only when their orders are present in an intact state and then share the OTP. This prevents any financial liability on part of the customer. This is an extension of the various initiatives that Flipkart has undertaken over the years to improve the overall customer experience and build a superior supply chain.

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Viral news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Iim ahemdabad graduate orders laptop during big billion days sale on flipkart gets ghadi detergent