scorecardresearch

বড় খবর

স্বামীহারা মহিলাকে দুহাত ভরে আর্শীবাদ, সন্তান মানুষে ৫১ লক্ষ, নেপথ্যে ফেসবুক

তিন সন্তানের মধ্যে একজন বিশেষভাবে সক্ষম।

স্বামীহারা মহিলাকে দুহাত ভরে আর্শীবাদ, সন্তান মানুষে ৫১ লক্ষ, নেপথ্যে ফেসবুক

স্বামী মারা গিয়েছেন আগেই। তিন সন্তানকে নিয়ে কোনমতে দিন কাটান মহিলা। অভুক্ত সন্তানদের মুখে খাবার তুলে দেওয়ার জন্য কেরালার এই মহিলা তার ছেলের শিক্ষকের কাছ থেকে ৫০০ টাকার সাহায্য চান। পরিবর্তে তিনি যা পেলেন তাতে রীতিমত আপ্লুত এই মহিলা। তিন সন্তানের মধ্যে একজন বিশেষভাবে সক্ষম।

কেরালার পালাক্কডের বাসিন্দা বছর ৪৬-এর সুভদ্রা তার ছেলে অভিষেকের শিক্ষক গিরিজা হরিকুমারের কাছ থেকে ছেলেদের মুখে খাবার তুলে দেওয়ার জন্য ৫০০ টাকা সাহায্য চান।  কিছু গত আগস্টে মৃত্যু হয় স্বামীর। তারপর থেকেই একাই লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন, সন্তানদের মানুষ করতে।

পরিবারের দুর্দশা দেখে শিক্ষক এটি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন এবং ওই মহিলার জন্য কিছু সাহায্য চান। তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ক্রাউডফান্ডিং গঠন করেন। তিনি পোস্টে সুভদ্রার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের বিবরণও শেয়ার করেন, এরপর ঘটে মিরাকেল। মানুষজন এই পোস্টে বিপুল সাড়া দেন। সকলেই এগিয়ে আসেন সুভদ্রার জীবন যুদ্ধে সামিল হতে। পোস্টটি রীতিমত ভাইরাল হয় এবং দুই দিনের মধ্যে, অনুদান বাবদ ৫১ লক্ষ টাকা মহিলার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে জমা পড়ে।

এই ঘটনায় মানুষজনের এভাবে এগিয়ে আসায় অভিভূত শিক্ষক। গিরিজা বলেন, “আমার কাছে সন্তানদের মুখে খাবার তুলে দেওয়ার জন্য ৫০০ টাকা চেয়েছিলেন ওই মহিলা এবং আমি ওনাকে ১০০০ টাকা দিই, এবং ওনার দুর্দশায় পাশে থাকার চেষ্টা করি। একি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করি এবং ক্রাউডফান্ডিং গঠন করি। তাতে মানুষজন ব্যপক সাড়া দিয়েছেন”।

সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে নেটিজেনরা শিক্ষকের এই প্রয়াসের প্রশংসা করছেন”। এতটাকা একসঙ্গে পেয়ে আপ্লুত সুভদ্রাও। তিনি বলেন, “আমি জানি না কিভাবে আপনাদের সকলের প্রতি আমার কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করব,। এক মুঠো চাল ছাড়া সেদিন আমার কাছে কিছু ছিল না। এই টাকায় আমি সন্তানদের ভালভাবে মানুষ করব”।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Viral news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Kerala woman asks sons teacher for rs 500 to buy food gets rs 51 lakh in donations