scorecardresearch

বড় খবর

পরিবার আটকে রয়েছে, চাকরি ছেড়ে যুদ্ধবিধ্বস্ত ইউক্রেনে পাড়ি দিলেন লন্ডনের শিক্ষক

ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে ইউক্রেনের পাশে থাকার আর্তি জানান তিনি।

পরিবার আটকে রয়েছে, চাকরি ছেড়ে যুদ্ধবিধ্বস্ত ইউক্রেনে পাড়ি লন্ডনের শিক্ষক

স্ত্রী এবং সন্তান আটকে রয়েছে যুদ্ধ বিধ্বস্ত ইউক্রেনে। চিন্তায় রাতের ঘুম উড়েছিল। তাই স্কুলের চাকরী ছেড়ে লন্ডন থেকে সোজা পাড়ি দিলেন যুদ্ধ বিধ্বস্ত ইউক্রেনে। লন্ডনের একটি স্কুলের ইংরাজী শিক্ষক ইয়ান উমনি ফেসবুক পোস্টে উল্লেখ করেছেন সেকথা। ইউক্রেনে পরিবারের পাশে থাকার জন্য চাকরী ছেড়েছেন এই শিক্ষক।

তিনি ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন ‘এই সময় আমাকে আমাকে পরিবারের সবচেয়ে বেশি দরকার। আমি তাই সবকিছু ছেড়ে তাদের পাশে থাকার জন্য ইউক্রেনে পাড়ি দিলাম’। ডেইলিমেইলের প্রতিবেদন অনুসারে জানা গিয়েছে গত চারদিন সারারাত চোখের পাতা এক করতে পারেননি এই শিক্ষক। কীভাবে আছেন তাঁর পরিবার তাই ভেবেই দিন কেটেছে অবশেষে তিনি ঠিক করলেন যে কোন ভাবেই হোক পরিবারের পাশে থাকতেই হবে। তাই সবকিছুকে ভুলে তিনি তার ব্যাগ প্যাক করে নিয়েছেন এবং বেরিয়ে পড়লেন ইউক্রেনের উদ্দেশ্যে। একটি আপডেটে তিনি লিখেছেন , ‘ইউক্রেনকে সর্মথন করুন’। ইউক্রেনের পাশে থাকুন”। ইউক্রেনের উদ্দেশ্যে রওনা হওয়ার আগে, তিনি একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন যেখানে তার ব্যাগ প্যাক করা দেখানো হয়েছে। তিনি ভিডিওটির ক্যাপশন দিয়েছেন ‘আমি আমার স্ত্রী ও ছেলেকে উদ্ধার করতে ইউক্রেনে যাচ্ছি।’

প্রথমে তিনি ম্যানচেস্টার বিমান বন্দরে পৌঁছান সেখান থেকে পোল্যান্ডের ক্রাকো বিমান বন্দরের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। তিনি একটি ফেসবুক পোস্ট করেছেন বলেছেন, “আমি এখানে ম্যানচেস্টার বিমানবন্দরে গেটে যাচ্ছি তারপর ক্র্যাকোর ফ্লাইটে যাচ্ছি। পরবর্তী আপডেট আমি করতে চাই যদি আমি ক্রাকোতে যেতে পারি, ওয়াইফাই চালু করতে পারি। পরবর্তী ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে তিনি ক্রাকওয়ের রেলস্টেশনের মধ্য দিয়ে হাঁটছিলেন। তিনি বললেন “ট্রেনটি শহরের কেন্দ্রে যাচ্ছে, পরবর্তী স্টপ হবে পোল্যান্ড সীমান্ত”। সোমবার সকালে, উমনি তার সাম্প্রতিক আপডেট পোস্ট করেছেন যখন তিনি সীমান্ত পেরিয়ে ইউক্রেনে প্রবেশ করেছিলেন। তিনি বলেন, “তাই আমি গতকাল রাতে সফলভাবে ইউক্রেনে প্রবেশ করেছি। এবং পরিবারকে উদ্ধার করে নিয়ে যেতে চাই”।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Viral news download Indian Express Bengali App.

Web Title: London english teacher travels ukraine russia war save wife son