বড় খবর


বাচ্চাদের ফুটবল থামাতে এসে পুলিশ নিজেই ফুটবলার, হৃদয় গলল সবার

খুদেদের এক জনের মা ইনস্টাগ্রামে এই ভিডিও শেয়ার করেছেন। সেই ভিডিওই আপাতত ভাইরাল নেট দুনিয়ায়। সেই ভিডিও দেখেই পুলিশের প্রশংসায় পঞ্চমুখ নেটিজেনরা।

রাস্তায় ফুটবল নিয়ে দাপাদাপি করছিল একদল খুদে। চিৎকার চেঁচামেচিতে প্রাণ ওষ্ঠাগত হয় পাড়া প্রতিবেশীদের। সহ্য করতে না পেরে সটান থানাতেই খবর দিয়ে দেন এক পড়শি। কিন্তু, একি! বাচ্চাদের থামাতে যে পুলিশ কর্তারা এসেছিলেন, তারাই জামা-প্যান্ট গুটিয়ে নেমে পড়লেন খুদেদের সঙ্গে। চিৎকার শোরগোলে ফের গমগম করে উঠল ছোট্ট এলাকা।

অবাক করার মতোই এমন কাণ্ড ঘটেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওহিও প্রদেশে। সেখানেই বাচ্চাদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে খেলতে নেমে পড়লেন উর্দিধারীরা।

সম্প্রতি কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লোয়েডকে হত্যার ঘটনায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এর পুলিশকে কাঠগড়ায় তুলেছিল গোটা বিশ্ব। বয়ে গিয়েছে প্রতিবাদের ঝড়। সেই ক্ষোভের আগুন এখনও ধিকি ধিকি জ্বলছে। তবে সেই হত্যাকাণ্ড যদি অমানবিক মুখ হয়, তাহলে খুদেদের সঙ্গে দাপিয়ে ফুটবল খেলার চিত্রতে পুলিশের মধ্যেও যে শিশুসুলভ ব্যাপার রয়েছে, তা ফুটে উঠেছে। যা দেখে নেটিজেনরা প্রশংসা করেছেন দুই পুলিশের।

খুদেদের এক জনের মা ইনস্টাগ্রামে এই ভিডিও শেয়ার করেছেন। সেই ভিডিওই আপাতত ভাইরাল নেট দুনিয়ায়। সেই ভিডিওয় দেখা যাচ্ছে, বাচ্চাদের শায়েস্তা করার জন্য দুই পুলিশ অফিসার হাজির হয়েছেন। তবে বাচ্চাদের খেলায় কোনোরকম বাধা সৃষ্টি না করেই তারাও যোগ দেন স্ট্রিট ফুটবলে।

 

View this post on Instagram

 

Another clip from the other day.

A post shared by Wendy B (@just.wendyb) on

পুলিশের সঙ্গেই একজন খুদের মা ওয়েন্ডি ব্রাউন্স এই ভিডিও শেয়ার করে লিখেছেন, “একজন আমার বাচ্চাদের খেলায় অভিযোগ জানিয়ে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ এসে খেলায় যোগ দিল।” শিশুদের কোনোরকম বাধা না দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি লিখেছেন, “বাচ্চাদের বাচ্চার মতো থাকতে দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ।”

সেই ঘটনার বিবরণ দিতে গিয়ে বাচ্চাদের মা ফক্স নিউজে আরো জানান, “সবসময় বাড়ির বাইরে গিয়ে বাচ্চাদের খেলায় উৎসাহ দিয়ে থাকি। তাই ওরা বাইরে খেলছিল। পুলিশদের নাম জানি না। কে পুলিশে খবর দিয়েছেন, তা-ও জানি না। ওরা এসে জানান, বাচ্চাদের বিষয়ে অভিযোগ পেয়ে ওরা এসেছেন। যদি তিনজন পুলিশ না আসতেন, তাহলে পরিস্থিতি খারাপ হতেই পারত।”

সেই ভিডিও অনলাইনে শেয়ার করেছে সংশ্লিষ্ট থানাও। টুইটারে সেই ক্লিপিংস শেয়ার করে ক্যাপশনে তারা লিখেছেন, “বাচ্চাদের সঙ্গে খেলার থেকেও যে বিষয় আমাদের পুলিশ উপভোগ করে তা হল, নিজেরাই বাচ্চা হয়ে যাওয়া। এক মুহূর্তের জন্য হলেও।”

Web Title: Video police called for to stop kids football instead they join

Next Story
দিনের সেরা ভাইরাল: পরীক্ষা বাতিলে হই হুল্লোড়, মন কাড়ল পাঞ্জাবের দম্পতি
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com