বড় খবর

বিয়ের দিন খাবার না পেয়ে রাগে বিয়ের সব ছবি মুছে দিলেন ফটোগ্রাফার

সব ফটো মুছে দিলেও এখন অনুশোচনায় ভুগছেন চিত্রগ্রাহক!

প্রতীকী ছবি

দিনভর পরিশ্রম করে বন্ধুর বিয়ের সমস্ত ফটো নিজের হাতে শখ করে তুলেছিলেন। তারপর রাত্রে খিদে এবং ক্লান্তিতে জর্জরিত এক ফটোগ্রাফারকে দু’টি বিকল্প দেওয়া হয়েছিল। তিনি খেয়ে, বিশ্রাম করতে চান? না কি একজন পেশাদার হিসেবে নিজের কাজটুকু করে প্রাপ্য সাম্মানিক নিয়ে বাড়ি ফিরে যেতে চান। জবাবে এক মুহূর্তও দেরি না করে ওই ফটোগ্রাফার প্রথম বিকল্পটিই বেছে নিয়েছেন। যদিও সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর এখন তিনি দোটানায়। নেটমাধ্যমে জানতে চেয়েছেন তাঁর সিদ্ধান্তে ভুল ছিল না তো! প্রথম বিকল্প বেছে নেওয়াই তাঁর কাছে শ্রেয় বলেই মনে হয়েছিল।

সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি তাঁর অভিজ্ঞতার কথা শেয়ার করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, তিনি নিজে একজন পেশাদার চিত্রগ্রাহক নন, বন্ধুর বিয়ে উপলক্ষে কেবল শখ করেই ফটোগুলি তুলেছেন। এতদিন কিছু ওয়াইল্ড লাইফের ওপর ফটোগ্রাফি করতেন তিনি। কিছু দিন আগে হঠাৎই এক বন্ধু তাঁকে নিজের বিয়ের ছবি তোলার প্রস্তাব দেন। বন্ধু বলে তিনি আর কোনও আপত্তি করেনি। কিন্তু বিয়ে বাড়ির ফটো তুলতেই সমস্যার শুরু। সকাল ১১টা থেকে একটানা ফটো তুলে ক্লান্ত ওই চিত্রগ্রাহক। তিনি বলেন, ‘বিকেলের দিকে সকলের জন্য খাবার আয়োজন করা হলেও আমার জন্য কোনও রকম খাবার আয়োজন করা হয়নি। প্রথমে আমি সেভাবে কিছু মনে করেনি। কিন্তু ক্লান্তি আর খিদে দুটোই আমাকে এমন ভাবে গ্রাস করেছিল, আমার জন্য খাওয়াটা তখন খুবই প্রয়োজনীয় ছিল’। বন্ধু’র কাছে খাওয়ার জন্য ২০ মিনিটের ছুটি চান তিনি। প্রচণ্ড গরমে তখন ওই চিত্রগ্রাহকের প্রাণ ওষ্ঠাগত। জবাবে যা শুনতে হয়, তা যে তাকে শুনতে হবে তা তিনি ভাবতে পারেননি। বন্ধু তাঁকে বলেন, ‘টাকার বিনিময়ে কাজ করছ। হয় পেশাদারের মতো কাজ করে টাকা নিয়ে বাড়ি যাবে। না হলে কাজ ছেড়ে বিশ্রামই নাও।’

বন্ধুর কাছে একথা শুনে আর নিজের মাথার ঠিক রাখতে পারেনি চিত্রগ্রাহক। তখনই তিনি তাঁর ক্যামেরায় থাকা বিয়ের সব ফটো মুছে দেন। তবে রাগের মাথায় করা কাজ ঠিক হয়েছে কি না, সেটা ভেবে তিনি এখন দোটানায়। নেটমাধ্যমে জানিয়েছেন, তাঁর বন্ধু বিয়ের একটি ছবিও নেটমাধ্যমে দেননি। অনেকে তাঁদের জিজ্ঞাসাও করছেন ছবির ব্যাপারে। সে সব দেখে অপরাধবোধে ভুগছেন ওই আলোকচিত্রী। জানতে চেয়েছেন, তিনি যা করেছেন, তা ঠিক ছিল কি!

যদিও এই খবর ভাইরাল হতেই নেটিজেনরা দুভাবে বিভক্ত হয়েছেন। কেউ কেউ বলেছেন, ওই ফটোগ্রাফার যা করেছেন তা একদম যুক্তিযুক্ত। অপর দিকে নেটদুনিয়ায় থাকা একশ্রেণিরর মানুষ জানিয়েছেন, এভাবে বিয়ের ফটো মুছে দিয়ে সে একদমই ঠিক কাজ করেনি। হাজার হোক বন্ধুর বিয়ে বলে কথা!

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Viral news here. You can also read all the Viral news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Viral photographer deleted all weeding picture without getting food viral news

Next Story
জলের নীচে জ্যাভলিন ছুঁড়ে তাক লাগালেন সোনার ছেলে নীরজ
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com