বড় খবর

রাজ্যে আরও এক করোনা আক্রান্তের মৃত্যু

মঙ্গলবার ১৫ জনের শরীরে মিলেছে কোভিড-১৯ জীবাণু। রাজ্যে মৃত্যু সংখ্যা ৬।

coronavirus, করোনাভাইরাস

বাংলায় একলাফে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হল ৩৭। মঙ্গলবার ১৫ জনের শরীরে মিলেছে কোভিড-১৯ জীবাণু। রাজ্যে মৃত্যু সংখ্যা ৬। বেলঘরিয়ার বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন করোনা আক্রান্ত প্রৌঢ়ের বুধবার মৃত্যু হয়েছে।

রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের দেওয়া তথ্য অনুশারে, সোমবারই রাজ্যে কোয়ান্টাইনে থাকা মানুষের সংখ্যা ছিল ৪৭ হাজার। পরের ২৪ ঘন্টায় সেই সংখ্যা বেডে় হয়েছে প্রায় ১.৫ লক্ষ। রাজ্য প্রশাসন সূত্রে খবর, লকডাউনের জেরে গত এক সপ্তাহে ভিন রাজ্য থেকে কয়েক হাজার পরিযায়ী শ্রমিক বাংলায় প্রবেশ করেছে। এইসব পরিযায়ী শ্রমিকদের কোয়ান্টাইনে পাঠানো হয়েছে। এছাড়াও, গত কয়েকদিন তিন জেলার রিপোর্ট স্বাস্থ্য দফতরের হাতে ছিল না। মঙ্গলবার তাই কোয়ান্টাইনে থাকা মানুষের সংখ্যা প্রায় এক লক্ষ বেড়ে গিয়েছে।

স্বাস্থ দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে য়ে, হাওড়ার এক বেসরকারি হাসপাতালে মঙ্গলবার রাতে মৃত্যু হয়েছে এক করোনা আক্রান্তের। মৃতের পরিবারের আরও চার জন এই মুহূর্তে হাসপাতালে পর্যবেক্ষণে রয়েছেন। কলকাতার এনআরএস মেডিক্যাল কলেজে এক প্রৌঢ়ের মৃত্যু হয়। তিনি করোনার উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হয়েছিলেন। সেনা হাসপাতালের যে চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত তাঁর স্ত্রী ও দুই সন্তানও কোভিড-১৯ পডেটিভ। আরজি কর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন এক ব্যক্তি। তাঁর নমুনাও এ দিন পজিটিভ পাওয়া গিয়েছে । দমদমের বেসরকারি হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত এক প্রৌঢ়া ভর্তি রয়েছেন। হুগলিতেও জ্বর, কাশি এবং শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি দু’জনের দেহেও মারণ ভাইরাস সংক্রমণের হদিশ মিলেছে। এদিকে, পঞ্চসায়রের বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি এক জনের লালারস পরীক্ষার রিপোর্ট করোনা পজিটিভ। এই ব্যক্তি নয়াবাদের করোনা-আক্রান্ত বৃদ্ধের আত্মীয়।

আরও পড়ুন: Live: নিজামুদ্দিনে জমায়েতকারীদের চিহ্নিতকরণের কাজ শুরু

বেলঘরিয়ার করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির বিদেশ-যোগ নেই বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিকরা। এক্ষেত্রে কীভাবে সংক্রমণ ছড়ালো তা নিয়েই বিভ্রান্ত বিশেষজ্ঞরা। সাস্থ্য দফতরের এক আধিকারিকের কথায়, সল্টলেক ও টালিগঞ্জের করোনা আক্রান্তদের বিদেশ যাত্রা বা ভিন রাজ্যে যাওয়ার কোনও ইতিহাস নেই। তাঁদের পরিবারের কেউ বিদেশে বা ভিন রাজ্যে গিয়েছিলেন কিনা তারই হদিশ বার করার চেষ্টা চলছে। এই দুই রোগীরই পরিবারের সদস্যরা কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন।

দাসপুরের করোনা আক্রান্ত মহারাষ্ট্র ফেরত ৩২ বছরের যুবককে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা হাসপাতাল থেকে মঙ্গলবারই বেলেঘাটা আইডিতে ভর্তি করা হয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় স্বাস্থ্য দফতরের হেল্থ বুলেটিনে জানানো হয়েছে, কোভিড-১৯ পরীক্ষায় ৫৪৩ জনের মধ্যে ৫২৭ জনের রিপোর্ট নেগেটিভ। ২৭ জন করোনা পজেটিভ। চার জনেরর রিপোর্ট আসা বাকি রয়েছে। করোনা আক্রান্তদের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল।

ইতিমধ্যেই রাজ্যের প্রথম করোনা আক্রান্ত সহ ৩ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গিয়েছেন। বাংলায় স্বরাষ্ট্র সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় টুইটে জানিয়েছেন, দিল্লির নিজামুদ্দিনের জমায়েতে এ রাজ্যের অংশগ্রহণকারীদের চিহ্নিতকরণের কাজ চলছে।

Read  the full story  in English

Web Title: 15 more corona test positive in west bengal kolkata highest single day jump takes count to 37

Next Story
যুবকের করোনা পজেটিভ হতেই পুরো গ্রাম হোম কোয়ারেন্টাইনে, চলছে কড়া নজরদারি
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com