scorecardresearch

বড় খবর

স্বঘোষিত গডম্যানের ‘মহাপ্রয়াণ’, আসানসোলে ভক্তদের ভিড়

নিজেকে পুজো করা স্বঘোষিত ‘গডম্যান’-এর মৃত্যু হল সোমবার। এদিন তাঁকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে বাংলার পাশাপাশি ঝাড়খণ্ড, বিহার থেকেও ভক্তরা ভিড় করেন ওই মন্দির চত্বরে

asansol godman died
আসানসোলের 'গডম্যানের' প্রয়াণে জনতার ঢল। ছবি- ছোটন সেনগুপ্ত
আসানসোলের নিয়ামতপুরের স্বঘোষিত ভগবান ‘সিংহরায় বাবা’ দেহ রাখলেন। মৃ্ত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৩ বছর। আসানসোল শিল্পাঞ্চলের নিয়ামাতপুরে ১৯৭৬ সালে ‘সিংহরায় বাবা’ নিজেই নিজের মন্দির প্রতিষ্ঠা করেন। এই মন্দিরে নিজের মূর্তিই বিগ্রহ হিসাবে পূজা করতেন সিংহরায়। পুজো দিতেন ‘বাবা’র ভক্তরাও। সেই নিজেকে পুজো করা স্বঘোষিত ‘গডম্যান’-এর মৃত্যু হল সোমবার। এদিন তাঁকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে বাংলার পাশাপাশি ঝাড়খণ্ড, বিহার থেকেও ভক্তরা ভিড় করেন ওই মন্দির চত্বরে।

আরও পড়ুন- ভগবানরূপী নিজ মূর্তিতে সাধনা কলি যুগের স্বঘোষিত ত্রাতার

দীর্ঘ ৪৩ বছরে শুধু শিল্পাঞ্চল নয়, পার্শ্ববর্তী ঝাড়খণ্ড ও বিহার থেকেও প্রচুর ভক্ত আসতেন ‘সিংহরায় বাবা’র কাছে। তাঁর প্রয়াণের খবর পেয়ে দূরদূরান্ত থেকে অসংখ্য ভক্ত তাঁকে শেষবারের মতো দেখার জন্য হাজির হয়েছেন। সোমবার তাঁর মরদেহ নিয়ে নিয়ামতপুর এলাকা পরিক্রমণ করার পর মন্দিরে সমাধিস্থ করা হল। জানা যাচ্ছে, সিংহরায় ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন। রেলওয়ে হাসপাতাল, ইসিএল হাসপাতাল, বেসরকারি হাসপাতাল এবং মুম্বাইয়ের হাসপাতালে তাঁর চিকিৎসা চলছিল। তাঁর প্রয়াণে শোকস্তব্ধ শিল্পাঞ্চল।

আরও পড়ুন- বিদ্যুৎহীন স্কুল, আসানসোলে মাঠে বসেই চলছে পঠন পাঠন

নিজের মূর্তি নির্মাণ নিয়ে তাঁর বক্তব্য ছিল, “ভগবান মানুষের মধ্যেই বিরাজ করেন। আমিই ভগবান। মানুষ রূপে আমিই নারায়ণ। আমার আত্মা আমাকে নির্দেশ দিয়েছে ওই মূর্তি নির্মাণ করতে।”

সিংহরায় ১৯৪৭ সালে সাঁওতাল পরগনার পাকুড় জেলায় জন্মগ্রহণ করেন সিংহরায়। ১৯৬৮ সালে তিনি বাড়ি ছেড়ে ভাগ্যান্বেষণে বেড়িয়ে পড়েন। ঘুরতে ঘুরতে চলে আসেন আসানসোলের নিয়ামতপুরে। সেখানেই স্থায়ীভাবে বাসা বাঁধেন তিনি। এরপর আজ থেকে ৪৩ বছর আগে মন্দিরে নিজমূর্তি স্থাপন করেন সিংহরায়। তাঁর এই মূর্তি স্থাপন নিয়ে শিল্পাঞ্চল জুড়ে হইচই পড়ে যায়। তবে দিনে দিনে তাঁর ভক্তের সংখ্যাও বাড়তে থাকে। ২০১৩ সালে মন্দিরে ফের নিজের আর একটি মূর্তি স্থাপন করেন তিনি। গতবছর অগাস্টে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা-কে তিনি জানিয়েছিলেন, ঘোর কলি যুগে তিনিই ত্রাতারূপী ভগবান। এমনকী তাঁর ভগবানরূপী মূর্তি যে নারায়ণের প্রতিরূপ তাও জানাতে ভোলেননি সিংহরায়।

আরও পড়ুন- পায়ে পায়ে বিশ্বজয়ের লড়াইয়ে মগ্ন আসানসোলের অদ্রিজা

প্রতিবছর সিংহরায়ের মন্দিরে বিপুল সংখ্যায় ভিড় জমান ভক্তেরা। বিগত ৪৩ বছর ধরে ‘ভগবান সিংহরায় বাবা’র মূর্তিতে পুজো করে আসছেন তাঁরা। ঝাড়খণ্ডের প্রাক্তন মুখ্য়মন্ত্রী শিবু সোরেন পর্যন্ত তাঁর কাছে নিয়মিত আসতেন বলে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা-কে জানিয়েছিলেন স্বয়ং সিংহরায়ই। সোমবারও অসংখ্য ভক্ত ভিড় করেছেন তাঁর মন্দিরে। ‘গডম্যান’কে শেষবারের মতো দর্শন করতে রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Asansol godman dead huge crowd in his last rite