বাংলা বনধে কড়া নিরাপত্তা কলকাতায়

"জনজীবন সচল রাখতে পর্যাপ্ত পুলিশ ব্যবস্থা মোতায়েন থাকছে। কোনওরকম বিশৃঙ্খলা করার চেষ্টা হলে তা বরদাস্ত করা হবে না। কড়া হাতে দমন করা হবে।"

By: Kolkata  September 25, 2018, 10:21:40 PM

রাত পোহালেই বাংলা বনধ। যে বনধ ঘিরে এই মুহূর্তে সরগরম রাজ্য রাজনীতি। রাজ্যের প্রধান বিরোধী দলের ডাকা বনধের কেমন করে শাসক শিবির মোকাবিলা করে, সেদিকে সবার চোখ। তবে বিজেপির বাংলা বনধ ঘিরে যাতে শহর কলকাতায় কোনও অশান্তি না ছড়ায়, সেজন্য কাল শহরজুড়ে নিরাপত্তা ব্যবস্থা আঁটোসাঁটো করছে কলকাতা পুলিশ। বনধে বিশৃঙ্খলা এড়াতে পর্যাপ্ত পুলিশি ব্যবস্থা থাকছে বলে লালবাজার সূত্রে জানা গিয়েছে।

বনধে কলকাতায় কোনওরকম অশান্তি এড়াতে চার হাজার পুলিশকর্মী মোতায়েন করা হচ্ছে বলে মঙ্গলবার লালবাজারের তরফে জানানো হয়েছে। শহরজুড়ে থাকবেন ২১ জন ডিসি পদমর্যাদার পুলিশ আধিকারিক ও ৭০ জন এসি পদমর্যাদার আধিকারিক। শহরের বিভিন্ন প্রান্তে চারশোরও বেশি পুলিশ পিকেট থাকছে। নিরাপত্তার জন্য থাকছে ফ্লাইং স্কোয়াড। প্রয়োজনে রাখা হচ্ছে RAF। শহরের গুরুত্বপূর্ণ পথঘাট, অফিস এলাকায় বাড়তি নজর রাখা হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে। এছাড়াও বাস টার্মিনাস, রেল স্টেশন, মেট্রো, ফেরিঘাটে নিরাপত্তা বাড়ানো হচ্ছে।

forward bloc, ফরওয়ার্ড ব্লক ফরওয়ার্ড ব্লকের লালবাজার অভিযান। ছবি: শশী ঘোষ

বনধে নিরাপত্তা প্রসঙ্গে এদিন অতিরিক্ত নগরপাল (৩) সুপ্রতিম সরকার বলেন, “জনজীবন সচল রাখতে পর্যাপ্ত পুলিশ ব্যবস্থা মোতায়েন থাকছে। কোনওরকম বিশৃঙ্খলা করার চেষ্টা হলে তা বরদাস্ত করা হবে না। কড়া হাতে দমন করা হবে।”

আরও পড়ুন, ধর্মঘট সফল করতে মরিয়া বিজেপি, মোকাবিলায় কড়া সরকার

এদিকে এদিন ইসলামপুর ইস্যুতে লালবাজার অভিযান করে ফরওয়ার্ড ব্লক। পাশাপাশি, বনধের সমর্থনে শহরে মিছিল করে এবিভিপি। ধর্মতলায় এবিভিপি-র মিছিল ঘিরে ধুন্ধুমার কাণ্ড ঘটে। রাস্তা অবরোধ করতে গেলে এবিভিপি সমর্থকদের সঙ্গে পুলিশের ধ্বস্তাধ্বস্তি বাঁধে। এ ঘটনায় আটজন এবিভিপি কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়, যাঁদের মধ্যে ছিলেন দলের সর্বভারতীয় সভাপতি আকাশ চৌহান। পরে তাঁদের সকলকে ছেড়ে দেওয়া হয় বলে লালবাজার সূত্রে খবর।

abvp, এবিভিপি এবিভিপি-র মিছিলে উত্তেজনা ধর্মতলায়। ছবি: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

ইসলামপুরের দাড়িভিট হাইস্কুলে শিক্ষক নিয়োগ ঘিরে অশান্তিতে গুলিবিদ্ধ হয়ে দুই প্রাক্তন ছাত্রের মৃত্যু ঘিরে তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি। এ ঘটনারই প্রতিবাদে বুধবার ১২ ঘণ্টার বনধ ডেকেছে বিজেপি। রাজ্যের প্রধান বিরোধী দলের বাংলা বনধের মোকাবিলা করতে তৎপর রাজ্য সরকার। এবার বনধের সময় রাজ্যে মুখ্যমন্ত্রী থাকছেন না। রাজ্য মন্ত্রিগোষ্ঠীর কাছে তাই বনধ মোকাবিলা কার্যত চ্যালেঞ্জ। বনধের দিন স্কুল খোলা রাখার বার্তা দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। বনধে পরিবহণ ব্যবস্থা সচল রাখতে অতিরিক্ত বাস চালানোর কথা জানানো হয়েছে সরকারের তরফে।

Get all the Latest Bengali News and West Bengal News at Indian Express Bangla. You can also catch all the West-bengal News in Bangla by following us on Twitter and Facebook

Web Title:

Bangla bandh strike west bengal kolkata police bjp

The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com.
Advertisement

ট্রেন্ডিং