বড় খবর

বন-সহায়ক পদে নিয়োগ মামলা: রাজ্যের কাছে হলফনামা তলব হাইকোর্টের

৪ঠা মার্চের মধ্যে রাজ্যকে হলফনামা জমার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। তারপরই পরবর্তীর শুনানির দিন ধার্য হবে বলে জানিয়েছেন বিচারপতি।

বন-সহায়ক পদে নিয়োগ নিয়ে উত্তপ্ত রাজ্য রাজনীতি। তার আগেই বন সহায়ক পদে নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অস্বচ্ছতার অভিযোগ তুলে কলকাতা হাই কোর্টে মামলা দায়ের হয়েছিল। সেই মামলা এবার রাজ্যের কাছে হলফনামা চাইল কলকাতা হাইকোর্ট। ৪ঠা মার্চের মধ্যে রাজ্যকে হলফনামা জমার নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

গত বছর নভেম্বর মাসে রাজ্যের ২ হাজার বন সহায়ক নিয়োগ হয়। সেই নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অস্বচ্ছতার অভিযোগ উঠেছে। মামলা গড়িয়ে আদালতে। কলকাতা হাই কোর্টে মামলা দায়ের করেন মালদহের বাসিন্দা কৌশিক ঘোষ। এর আগে স্যাটেও একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এদিন হাই কোর্টের বিচারপতি রাজশেখর মন্থা নিয়োগ সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য জানতে চেয়েছেন রাজ্যের কাছে। মেধা তালিকা কী অবস্থায় রয়েছে, সে বিষয়েও বিস্তারিত তথ্য জমার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। হলফনামা জমা পড়ই মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য হবে বলে জানিয়েছেন বিচারপতি।

বন-সহায়ক পদে নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে দিন কয়েক আগে অভিযোগ প্রকাশ্যে আনেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেছিলেন, “আমাদের সঙ্গে ছেলেটা ছিল। সে এখন আমাদের সঙ্গে আর নেই। আমার কাছে অভিযোগ এসেছে বন সহায়ক পদ নিয়ে কারচুপি হয়েছে। আমরা তদন্ত করে দেখছি।” মুখে নাম নিলেও তাঁর নিশানায় যে বিজেপির রাজীব বন্দ্যপাধ্যায় তা স্পষ্ট।

পালটা তোপ দাগেন তৎকালীন বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ও। কার্যত চ্যালেঞ্জ ছুড়ে তিনি বলেছিলেন, ‘সব রেকর্ড করে রেখেছি। প্যানডোরা’স বক্স খুলেছেন মুখ্যমন্ত্রী। এখন এটুকুই থাক। প্রয়োজনে আবার বলব।’

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Westbengal news here. You can also read all the Westbengal news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Bon sahayak post recruitment case calcutta high court sought states affidavit

Next Story
খাগড়াগড় বিস্ফোরণের মাস্টারমাইন্ড কওসরের ২৯ বছরের জেল
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com