scorecardresearch

বড় খবর

কলকাতার জনপ্রিয় পর্যটনস্থলে ভয়ঙ্কর নজরদারির অভাব! চটে লাল মমতা, মেয়র ফিরহাদকে হুঁশিয়ারি

মুখ্যমন্ত্রীর কড়া নজর

কলকাতার জনপ্রিয় পর্যটনস্থলে ভয়ঙ্কর নজরদারির অভাব! চটে লাল মমতা, মেয়র ফিরহাদকে হুঁশিয়ারি
মেয়রকে তিরস্কার মুখ্যমন্ত্রীর।

কলকাতার অন্যতম পর্যটনস্থল প্রিন্সেপ ঘাট। ছুটির দিন কয়েক হাজার মানুষের ভিড় জমে ওই স্থানে। অন্যান্য দিনেও মানুষের সমাগম কম নয়। গত কয়েক বছর ধরে শীতে রাজ্য সরকারের উদ্যোগে প্রিন্সের ঘাটে বসে উৎসবের আয়োজন। কিন্তু, এহেন জনপ্রিয় পর্যস্থলেই কলকাতা পুরসভার নজরদারির অভাব রয়েছে বলে তোপ দাগলেন মুখ্যমন্ত্রী। নিয়মিত কেন নজরদারি হয় না? নবান্নে মেয়র ফিরহাদ হাকিমকে এ নিয়ে কড়া কথাও শুনিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অবিলম্বে প্রিন্সেপ ঘাটের সংস্কারের জন্য কলকাতা পুরসভাকে নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

এ দিন নবান্নে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দফতরের পর্যালোচনা বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানেই উপস্থিত ছিলেন পুর ও নগোরন্নয় মন্ত্রী তথা কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম। পর্যালোচনা সভা কয়েক মিনিট এগোতেই প্রিন্সেপ ঘাট প্রসঙ্গ উত্থাপণ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। উষ্মা প্রকাশ করে ফিরহাদ হাকিমকে উদ্দেশ্য করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘প্রিন্সেপ ঘাট অবিলম্বে পরিস্কার করতে হবে। আমার ওই জায়গায় শীতকালে পৌষ মেলা হয়। কখনও মন্ত্রী, কখনও অফিসার বদলাবে, কিন্তু সরকারের নীতির তো পরিবর্তন হবে না। কেন তাহলে প্রিন্সেপ ঘাটে নিয়মিত নজরদারি হয় না? যিনি পুরসভার উদ্যান দেখেন বা সেই দফতরের আধিকারিক এগুলো তাঁর বা তাঁদের দায়িত্ব নয়?’

মুখ্যমন্ত্রীর সংযোজন, ‘কলকাতার মানুষের ঘুরতে যাওয়ার জায়গা নেই। তাই তো প্রিন্সেপ ঘাট থেকে মিলেনিয়াম পার্কের সংস্কার করিয়েছিলাম। এগুলো নিয়ে কেউ বাইরে থেকে কিছু বললে আমার খুব গায়ে লাগে। এগুলো দেখতে হবে।’

ঘাট সংস্কারের পাশাপাশি, গঙ্গা আরতির জন্য জায়গা নির্ধারণ করতে নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী। বলেন, ‘গঙ্গা আরতির জন্য একটা জায়গা চাই। ওটা আমাদের এখানে নেই। এর জন্য মানুষের নিরাপত্তার দিক, কোথায় মন্দির রয়েছে, বসার জায়গা রয়েছে, মানুষ বলে দুদণ্ড মনের শান্তি পায়, সেসব দেখে জায়গার আয়োজন করতে হবে। এ জন্য দু’সময় লাগলে লাগুক।’

মুখ্যন্ত্রীর ধমকের পর সোমবার রাতেই প্রিন্সেপ ঘাট পরিদর্শন করেন মেয়র ফিরহাদ হাকিম। তিনি বলেন, ‘এই ঘাটগুলো ফের সংস্কার কীভাবে করা যায় সেটা একজন আর্কিওলজিস্টের সঙ্গে আলোচনা করব। মুখ্যমন্ত্রী যখন নির্দেশ দিয়েছেন সেটা বাস্তবে কার্যকর হবে।’ মুখ্যমন্ত্রীর ইচ্ছেকে প্রাধান্য দিয়ে বাজে কদমতলা ঘাটে গঙ্গা আরতির আয়োজন করা সম্ভব কিনা তা খতিয়ে দেখতে মঙ্গলবার মেয়র পারিষদ তারক সিং ও কলকাতা পুরনিগমের আধিকারিকরা সেখানে যাবেন বলে জানা গিয়েছে।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Cm mamata banerjee slams mayor firhad hakim for lack of vigilance at prinsep ghat