scorecardresearch

বড় খবর

‘হাত পাকানো শুরু হয়েছে, মার একটাও বাইরে পড়বে না’, তৃণমূলকে হুঁশিয়ারি দিলীপের

‘সমালোচকদের চামড়া দিয়ে জুতো তৈরি করা হবে।’ সৌগত রায়ের এই মন্তব্যের রেশ এখনও রয়ে গিয়েছে।

‘হাত পাকানো শুরু হয়েছে, মার একটাও বাইরে পড়বে না’, তৃণমূলকে হুঁশিয়ারি দিলীপের
ফের তৃণমূলকে আক্রমণ দিলীপ ঘোষের।

কোনও রাখঢাক নয়, একেবারে প্রকাশ্যেই তৃণমূল নেতা, কর্মীদের হুঁশিয়ারি দিলেন দিলীপ ঘোষ। বললেন, ‘হাত পাকানো শুরু হয়েছে, শান দেওয়া হচ্ছে, পাবলিকের মার একটাও বাইরে পড়বে না।’

কামারহাটিতে তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়ের হুঁশিয়ারি মন্তব্য ঘিরে শোরগোল পড়েছিল। বর্ষীয়ার অধ্যাপ বলেছিলেন, ‘সমালোচকদের চামড়া দিয়ে জুতো তৈরি করা হবে।’ পরে অবশ্য তিনি স্বীকার করেছিলেন যে, ওই মন্তব্য না করলেই ভালো হত। তবে এহেন বক্তব্যের জন্য ক্ষমা চাইতে নারাজ ছিলেন তিনি।

সৌগত রায়ের মন্তব্যের রেশ ধরেই জোড়া-ফুল শিবিরকে নিশানা করছেন পদ্ম ফুলের নেতারা। যা করতে গিয়ে আরও বেগালাম মন্তব্য করে বসছেন দিলীপ ঘোষরা। শুক্রবার দিলীপ ঘোষ বলেছেন, ‘সবের হিসাব হবে। সুদে, আসলে হিসাব হবে। কার চপ্পল আর কার জুতো চাই তার হিসাব পাবলিক দিয়ে দেবে। একটা মারও বাইরে পড়বে না। চাঁদার মার হবে। সবে শান দেওয়া শুরু হয়েছে। যেদিন মার পড়বে সেদিন পালানোর জায়গা থাকবে না। ব্যান্ডেজ লাগানোর জায়গা পাবে না। হাসপাতালে জায়গা পাবে না। কোনও পুলিশ উদ্ধার করতে যাবে না। শুদ্ধিকরণ যজ্ঞ শুরু হয়েছে। এই যজ্ঞে অনেকে অহুতি হয়ে যাবে। সিবিআই ঠিক করেছে প্রথমে ভারী চেহারারগুলোকে তুলবে। তারপর পুকুর ছেঁচার কাজ হবে।’

আরও পড়ুন- দিলীপের ডিগবাজি, ‘সেটিং’য়ের CBI-কেই এখন ‘একমাত্র ভরসা’ বলছেন বিজেপির সহসভাপতি

এর পাল্টা অধ্যাপক ও তৃণমূলের সাংসদ সৌগত রায় বলেন, ‘ওঁর কথায় তো পাবলিক চলে না। নিজের পার্টির লোকেরাই ওঁর কথা সোনে না তো পাবলিক কেন শুনবে? এঁদের মতো লোকেদের রাজনীতিতে পরিহার করা উচিত। গণমাধ্যমের এঁদের পরিত্যাগ করা উচিত।’

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Dilip ghosh attack tmc