scorecardresearch

বড় খবর

দুই নেতার দ্বন্দ্ব চরমে, শুভেন্দুর সভায় মর্মান্তিক-কাণ্ড নিয়ে বিস্ফোরক দিলীপ

আসানসোলে বিজেপির কম্বল বিলির অনুষ্ঠানে পদপিষ্ট হয়ে মৃত্যু হয় ৩ জনের।

দুই নেতার দ্বন্দ্ব চরমে, শুভেন্দুর সভায় মর্মান্তিক-কাণ্ড নিয়ে বিস্ফোরক দিলীপ
দিলীপ-শুভেন্দু দ্বন্দ্ব এখন জোর চর্চায়।

এবার আসানসোলের ঘটনা নিয়েও দিলীপ-শুভেন্দু দূরত্ব আরও প্রকট হল। ”এই ধরনের প্রোগ্রামে শুধু পুলিশের উপর ভরসা করলেই হয় না। নিজেদেরও ব্যবস্থা করা উচিত।” শুভেন্দু অধিকারী শিবিরের অস্বস্তি বহু গুণে বাড়িয়ে সাফ জবাব বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষের।

রাজ্য বিজেপিতে শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে দিলীপ ঘোষের সম্পর্ক নিয়ে গত কয়েক মাসে চর্চা তুঙ্গে উঠেছে। দুই নেতাই একে অপরের বিরুদ্ধে সরাসরি তোপ না দাগলেও ‘চিমটি’ কাটতে কুণ্ঠা বোধ করেন না। দিন কয়েক আগেই হাজরার সভা থেকে নাম না করে দিলীপ ঘোষের প্রাতঃভ্রমণে বেরিয়ে মিডিয়ায় বাইট দেওয়া নিয়ে কটাক্ষ করেছিলেন শুভেন্দু। সেই সময় দিল্লিতে ছিলেন দিলীপ ঘোষ। তবে শুভেন্দুর বক্তব্যের পাল্টা জবাব দিতে সময় নেননি রাজ্য বিজেপির প্রাক্তন সভাপতি। শুভেন্দুর নাম না করে তিনিও সাফ বলেন, ”প্রাতঃভ্রমণ করতে গেলেও দম থাকতে হয়”।

এবার আসানসোলের মর্মান্তিক ঘটনা নিয়েও নাম না করে শুভেন্দু-শিবিরকে নিশানা দিলীপ ঘোষের। বুধবার আসানসোলে বিজেপির কম্বল বিলি কর্মসূচি চলে। সেই কম্বল নিতেই হুড়োহুড়ি পড়ে যায়। পদপিষ্ট হয়ে তিনজনের মৃত্যু হয়। পুলিশি অনুমোদন ছাড়াই বিজেপি ওই কর্মসূচি করে বলে অভিযোগ তৃণমূলের। পুলিশেরও ওই একই অভিযোগ। যদিও বিজেপির দাবি, কর্মসূচির কথা সপ্তাহ দু’য়েক আগেই পুলিশকে জানানো হয়েছিল। পুলিশই পর্যাপ্ত সুরক্ষার বন্দোবস্ত করতে পারেনি বলে দাবি গেরুয়া শিবিরের।

আরও পড়ুন- বিশ্বভারতীতে হুলস্থূল, কী বলছেন আন্দোলনকারীরা? এবার সোজাসাপটা উপাচার্যও

গতকাল আসানসোলে দলের ওই কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। এবার সেই কর্মসূচি নিয়ে মুখ খুলে কার্যত শুভেন্দুকেই নিশানা করতে চেয়েছেন দিলীপ, এমনই বলছে রাজনৈতিক মহল। এদিন দিলীপ ঘোষ বলেন, ”কর্মসূচির অনুমতি ছিল কি ছিল না এটা তো রেকর্ডের ব্যাপার। পুলিশ বলছে অনুমতি ছিল না। যারা করেছেন তাঁরা বলছেন অনুমতি ছিল। কিন্তু এই ধরনের প্রোগ্রামে শুধু পুলিশের উপর ভরসা করে হয় না। নিজেদেরও ব্যবস্থা করা উচিত।”

আরও পড়ুন- ‘সব জানত পুলিশ’, অভিযোগ উড়িয়ে তোলপাড় ফেলা ‘প্রমাণ’ পেশ বিজেপিনেত্রীর

এরপর তাঁরই দলের কম্বল বিলি কর্মসূচিকেও কটাক্ষ করেছেন দিলীপ ঘোষ। তাঁর কথায়, ”দান-খয়রাতির ব্যাপার আসলে মানবতার অপমান। লোককে লোভ দেখিয়ে নিয়ে আসা তারপর এই ঘটনা। আমি সমর্থন করি না। এব্যাপারে আরও সতর্ক হওয়া উচিত। গরিবদের দিতে হলে অনেক ব্যবস্থা আছে। তবে এই ধরনের পরিবেশ যাতে না হয় সেটা সবাইকে খেয়াল রাখতে হবে।”

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Dilip ghosh on asansol stampede incident