scorecardresearch

বড় খবর

SSC থেকে অশিক্ষক কর্মী নিয়োগ, বার বার আদালতে ধাক্কা রাজ্যের, কেন কড়া হাইকোর্ট?

নিয়োগ দুর্নীতির মামলার শুনানিতে প্রতিদিন আদালতের কটাক্ষের মুখে এসএসসি এবং রাজ্য সরকার।

Mamata Banerjee, Calcutta High Court
নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগে আদালতে বার বার ধাক্কা খেয়েছে রাজ্য সরকার।

সম্প্রতি খবরে এসেছে এসএসসি (SSC) গ্রুপ-ডি নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগ। অস্বচ্ছ নিয়োগে উষ্মা প্রকাশ করেছে কলকাতা হাইকোর্ট। সিঙ্গল বেঞ্চ এই দুর্নীতির তদন্তে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে। কিন্তু ডিভিশন বেঞ্চ সেই নির্দেশে স্থগিতাদেশ দিয়েছে। ইতিমধ্যে মোট ৫৬৭ জনের বেতন আটকানোর নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট। এঁদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে অস্বচ্ছ ভাবে গ্রুপ-ডি পদে নিয়োগের প্রমাণ মিলেছে।

এই নিয়োগ দুর্নীতির মামলার শুনানিতে প্রতিদিন আদালতের কটাক্ষের মুখে এসএসসি এবং রাজ্য সরকার। তবে শুধু গ্রুপ-ডি নিয়োগ নয়। টেটের মাধ্যমে উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগেও অস্বচ্ছতার অভিযোগে মামলা চলছে হাইকোর্টে। একাধিকবার মেধা তালিকা-সহ প্যানেল বাতিলের নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট। ঘোষণা করেও শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে পিছু হটতে হয়েছে নবান্নকে।

এই প্রসঙ্গে উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের নভেম্বরে নবম ও দশম শ্রেণির শিক্ষক নিয়োগে এসএসসির বিরুদ্ধে গরমিলের অভিযোগ ওঠে। ২০১৯ সালে এই নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ হয়। চলতি বছরে জানা যায়, ওয়েটিং লিস্টের ২১৪ নম্বর প্রার্থীকে টপকে ২৫৩ নম্বর র্যাঙ্কের প্রার্থী সুযোগ পেয়েছেন।

নিয়োগে দুর্নীতি হয়েছে, এই অভিযোগ তুলে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা রুজু করেন কয়েকজন চাকরিপ্রার্থী। কমিশনের কাছে বিচারপতি শুনানির সময় জানতে চান, কেন বারবার এধরনের বেনিয়মের অভিযোগ উঠছে? স্বচ্ছতার সঙ্গে কেন নিয়োগ হচ্ছে না? এই মর্মে এসএসসি-র কাছে হলফনামা তলব করে আদালত। ৩১ অগাস্টের মধ্যে ওই হলফনামা আদালতে জমা দিতে বলা হয়েছিল। এই আবহে গত একবছর শিক্ষক নিয়োগ এবং শিক্ষাকর্মী নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগে কীভাবে আদালতে ধাক্কা খেয়েছে রাজ্য সরকার। সেই খতিয়ান তুলে ধরা হল–

১১ ডিসেম্বর, ২০২০: হাইকোর্টে বড় ধাক্কা রাজ্যের, উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগ প্রক্রিয়া খারিজ,। প্যানেল থেকে শুরু করে মেধাতালিকা সবই বাতিল করে দিয়েছেন হাইকোর্টের বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্য। স্বজনপোষন ও দুর্নীতির অভিযোগে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিল উচ্চ প্রাথমিকের পরীক্ষার্থীদের একাংশ।

৮ জানুয়ারি, ২০২১: ২০০৯ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে মামলায় হাইকোর্টে বড় ধাক্কা রাজ্যের

৩০ জুন, ২০২১: নিয়োগে বিস্তর অসঙ্গতি হাইকোর্টের নির্দেশে স্থগিত উচ্চ প্রাথমিক নিয়োগ

২ জুলাই, ২০২১: হাইকোর্টের কটাক্ষের মুখে SSC, এক সপ্তাহের মধ্যে নতুন মেধা তালিকা প্রকাশের নির্দেশ। কমিশনের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রার্থীদের নম্বর-সহ সেই তালিকা প্রকাশ করতে হবে।

৮ জুলাই, ২০২১ কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশ মেনে উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগের ইন্টারভিউয়ের পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশ স্কুল সার্ভিস কমিশনের। যাঁদের নাম বাদ পড়েছে তাঁদের নামের তালিকাও প্রকাশ করেছে এসএসসি।

২০ জুলাই, ২০২১: হাইকোর্টের অনুমতি ছাড়া উচ্চ প্রাথমিকে কোনও নিয়োগপত্র নয়

৯ অগাস্ট, ২০২১: SSC নিয়োগে কেন চাকরিপ্রার্থীরা বারবার কোর্টে? প্রশ্ন ক্ষুব্ধ হাইকোর্টের। কেন বারবার কমিশনের বিরুদ্ধে অস্বচ্ছতার অভিযোগ উঠছে? প্রশ্ন বিচারপতির

•১৭ অগাস্ট, ২০২১: শারীরশিক্ষা এবং কর্মশিক্ষা পদে নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ। কাঠগড়ায় মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশন। দ্রুত মামলা শুনতে চান হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়।

•২৭ অগাস্ট, ২০২১: নিয়োগ হওয়া শিক্ষকদের পরীক্ষা পাশের কোনও প্রমাণ নেই। অস্বচ্ছতা রয়েছে নথি যাচাইয়ে। তাও বেশ কয়েক বছর ধরে তাঁরা শিক্ষকতা করছেন! এমন এক-দু’জন নয়, উঠে এসেছে ১২ জনের নাম। যা দেখে স্তম্ভিত বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় ক্ষোভ উগড়ে নিজেই মামলা থেকে সরে দাঁড়ান।

•৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১: কলকাতা হাইকোর্টের চরম তিরস্কৃত স্কুল সার্ভিস কমিশন। বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের সাফ কথা, ‘এসএসসি-র ওপর আমার কোনও বিশ্বাসই নেই।’

•১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১: চুক্তিভিত্তিক শিক্ষিকা বদলির নির্দেশে অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশ হাইকোর্টের

•১০ নভেম্বর ২০২১: উচ্চ প্রাথমিকের নিয়োগে আবারও জটিলতা। বিস্তর অভিযোগে উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগ বন্ধের নির্দেশ আদালতের। কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সৌমেন সেন ও বিচারপতি সৌগত ভট্টাচার্যের ডিভিশন বেঞ্চ এই নির্দেশ দেয়।

১৬ নভেম্বর, ২০২১: গ্রুপ-ডি কর্মী নিয়োগে বেজায় অসঙ্গতিতে বিস্মিত হাইকোর্ট। প্রয়োজনে সিবিআইকে দিয়ে তদন্ত করানোর হুঁশিয়ারি। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তলব স্কুল সার্ভিস কমিশনের কেন্দ্রীয় সচিবকে

১৭ নভেম্বর, ২০২১: গ্রুপ-ডি কর্মী নিয়োগে কড়া নির্দেশ হাইকোর্টের। অনিয়মের অভিযোগ ওঠা ২৫ জনের বেতন বন্ধের নির্দেশ। বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের মন্তব্য, কোর্টের অনুমতি ছাড়া ওই ২৫ জনকে বেতন দেওয়া হবে না। কীভাবে তাঁরা চাকরি পেলেন তা-ও জানাতে হবে আদালতকে।

১৭ নভেম্বর, ২০২১: বুধবারের শুনানিতে কোর্টের নির্দেশ ছিল, ৩টের মধ্যে সব তথ্য আদালতকে দিতে হবে। বাড়তি সময় দেওয়া হবে না। প্রয়োজনে সিআইসিএফ (CISF), আইবি (IB), সিবিআই (CBI) ঘিরে থাকবে অফিস। সব তথ্য খতিয়ে দেখা হবে, পিছনে কে রয়েছে? কেন নিয়োগ হয়েছে? বিচারপতি একগুচ্ছ নির্দেশ পাঠান। তিনি বলেন, ‘কমিশনের কোনও কর্মীকে বাইরে যেতে পারবে না। সিবিআই সমস্ত কম্পিউটারের তথ্য খতিয়ে দেখবে। এই তথ্য-নথি পরীক্ষা চলাকালীন আঞ্চলিক অফিসের সঙ্গে কেউ যোগাযোগ করতে পারবে না। কোর্ট অর্ডার ছাড়া কোনও কম্পিউটার অপারেট করতে পারবে না এসএসসি।‘

১৮ নভেম্বর, ২০২১: গ্রুপ-ডি কর্মী নিয়োগ মামলায় এবার আঙুল মধ্যশিক্ষা পর্ষদের দিকে। দুর্নীতি করে প্রায় ৫০০ জনের বেশি নিয়োগ হয়েছে। আদালতে এমন দাবি করলেন মামলাকারীরা। বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের নির্দেশ, ‘প্রত্যেকের নাম, ঠিকানা-সহ তালিকা আদালতে জমা দিতে।‘

২২ নভেম্বর, ২০২১: SSC গ্রুপ-ডি নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগ। তদন্তভার সিবিআইকে দিল হাইকোর্ট।

২৫ নভেম্বর, ২০২১: SSC গ্রুপ ডি নিয়োগে অস্বচ্ছতার অভিযোগ। ৫৪২ জন কর্মীর বেতন বন্ধের নির্দেশ আদালতের।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: From ssc teacher to non teaching staff recruitments timeline of calcutta hc orders