বড় খবর

খাগড়াগড় বিস্ফোরণের মাস্টারমাইন্ড কওসরের ২৯ বছরের জেল

২০১৪ সালে অক্টোবরে বর্ধমানের খাগড়াগড়ে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় কওসর আলি ওরফে বোমারু মিজানকে ২০১৮ সালের অগাস্ট মাসে গ্রেফতার করে এনআইএ।

খাগড়াগড় বিস্ফোরণকাণ্ডের অন্যতম মাস্টারমাইন্ড জামাত জঙ্গি কওসর আলি ওরফে বোমারু মিজানকে সাজা শোনাল আদালত। দেশদ্রোহিতা-সহ একাধিক গুরুতর ধারায় তাঁকে ২৯ বছরের জেলের সাজা শুনিয়েছেন বিচারক।

২০১৪ সালে অক্টোবরে বর্ধমানের খাগড়াগড়ে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় কওসর আলি ওরফে বোমারু মিজানকে ২০১৮ সালের অগাস্ট মাসে গ্রেফতার করে এনআইএ। তদন্তে উঠে আসে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন জামাত উল মুজাহিদিনের নেতা তথা বাংলাদেশের নাগরিক কওসরের নাম। আইইডি বিস্ফোরণের অন্যতম বিশেষজ্ঞ এই জামাত জঙ্গি কওসর আলি ওরফে বোমারু মিজান।

তদন্তে জাতীয় তন্দকারী সংস্থা জানতে পারে যে, বীরভূমে কওসরের একটি বাড়িও রয়েছে। সেখান থেকেই সে একটা সময় এই রাজ্যের সংগঠন চালাত। মুর্শিদাবাদ, বীরভূম ও বর্ধমানের বিভিন্ন মাদ্রাসাতে গোপনে অস্ত্র প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেছিল কওসর। খাগড়াগড় বিস্ফোরণের পরই বাংলাদেশে পালিয়ে যায় এই জঙ্গি। সেখান থেকে ফের জঙ্গি কার্যকলাপ শুরু করে সে। পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হয়েছে মনে করে আবারও ভারতে চলে আসে ওই জঙ্গি। তারপরই ২০১৮ সালে বেঙ্গালুরুতে রীতিমতো ফাঁদ পেতে কওসরকে ধরেন এনআইএ গোয়েন্দারা।

খাগড়াগড় কাণ্ডে ইতিমধ্যেই ৩১ জনকে দোষী সাব্যস্ত করেছে আদালত। তাদের মধ্যে ৩০ জনের সাজা ঘোষণা আগেই হয়েছে। এবার কওসরকে ২৯ বছরের জেলের সাজা দেওয়া হল।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Web Title: Khagragarh blast nia court sends jmb terrorist sheikh kausar to 29 years in jail

Next Story
বাড়ল স্বাস্থ্যসাথীর প্যাকেজ দর, বেসরকারি হাসপাতাল-নার্সিংহোমের দাবি মানল রাজ্য
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com